আপডেট
১২-০১-২০১৮, ১৬:৫৫

শিশু ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনায় উত্তাল পাকিস্তান

pak-murder
পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের কাসুরে সাত বছরের এক শিশুকে ধর্ষণ ও হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছে পুরো দেশ। হত্যাকারীদের উপযুক্ত শাস্তি নিশ্চিতের পাশাপাশি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও আইনমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবিতে বৃহস্পতিবার কাসুরের মহাসড়ক অবরোধের পাশাপাশি পুলিশ স্টেশনের বাইরে অবস্থান নেয় তারা। এ সময় পুলিশের গুলিতে দুইজন নিহত ও তিন বিক্ষোভকারী আহত হন। জয়নবের হত্যাকারীকে ধরতে সব ধরণের ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন রাজ্য মুখ্যমন্ত্রী। এরইমধ্যে সন্দেহভাজনের স্কেচ তৈরি করে এরইমধ্যে ২৬ সন্দেহভাজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তদন্তে গাফিলতির অভিযোগে বদলি করা হয়েছে রাজ্যের কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তাকে।
সাত বছরের ফুটফুটে শিশু জয়নব আনসারির দূরন্ত শৈশব শুরু হয়েছিলো মাত্র। কিন্তু দুস্কৃতিকারীদের পাশবিক নির্যাতনে এখন এই নিষ্পাপ হাসি শুধুই ছবি। গত সপ্তাহে পূর্ব পাঞ্জাব প্রদেশের কাসুর গ্রামে নিজ বাড়ি থেকে মক্তবে যাওয়ার পথে নিখোঁজ হয় জয়নব। চারদিন পর বাড়ি থেকে ২০ কিলোমিটার দূরে ময়লার ভাগাড় থেকে উদ্ধার হয় শিশুটির নিথর দেহ। তাকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা কোরে আবর্জনায় ফেলে রাখা হয় বলে জানায় পুলিশ। লাশের ময়না তদন্ত শেষে বৃহস্পতিবার শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়। মানবাধিকার কর্মীসহ মিডিয়া অঙ্গনের আলোচিত ব্যক্তিরা এতে অংশ নিয়ে হত্যাকারীদের উপযুক্ত শাস্তির দাবি জানান।

আমরা জয়নবকে ফেরাতে পারবো না। কিন্তু চাইলে তার হত্যাকারীর শাস্তি নিশ্চিত করতে পারি। শাস্তি এমন হতে হবে যেন ভবিষ্যতে আর কেউ কোন শিশুর ওপর হাত ওঠানোর কথা ভাবতেও না পারে।

বাবা মায়ের শিশুদের সঙ্গে খোলামেলা কথা বলতে হবে। কেউ তাদের সঙ্গে প্রয়োজনের চেয়ে বেশি ঘনিষ্ঠ হওয়ার চেষ্টা করছে কিনা খোঁজ নেবেন। প্রতিটি স্কুলে সঠিক যৌন শিক্ষা ও আত্মরক্ষার বিষয়টি বাধ্যতামূলক করা দরকার।

এই ন্যক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে রাজপথে নেমে বিক্ষোভ করেছে কাসুরসহ পাকিস্তানের মানুষ। সবার দাবি একটাই অবিলম্বে জয়নবের হত্যাকারীকে আইনের আওতায় এনে শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। নিন্দার ঝড় ওঠে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও। হ্যাশট্যাগ জাস্টিস ফর জয়নবে প্রতিক্রিয়া জানান চলচ্চিত্র ও ক্রীড়া অঙ্গনের তারকারা। বৃহস্পতিবার কাসুরের দোকানপাট বন্ধ রেখে মহাসড়ক অবরোধ করার পাশাপাশি পুলিশ স্টেশনের বাইরে জড়ো হয় অন্তত কয়েকশ বিক্ষোভকারী। শিশু ধর্ষণ দমনে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে ব্যর্থতার অভিযোগ তুলে ১৭ তারিখের মধ্যে মুখ্যমন্ত্রী ও আইনমন্ত্রী পদত্যাগের সময় বেঁধে দেয় বিক্ষোভকারীরা।

প্রিয় সন্তানের এমন মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনা কোনভাবেই মানতে পারছেন না জয়নবের বাবা মা। সে সময় তারা সৌদি আরবে ওমরাহ হজের উদ্দেশ্যে ছিলেন। নিখোঁজের সঙ্গে সঙ্গে জয়নবের চাচা পুলিশের কাছে রিপোর্ট করলেও তাৎক্ষণিক কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি অভিযোগ তুলে বাবা আমিন আনসারি বলেন, প্রশাসনের গাফিলতির কারণে তার মেয়েকে হারাতে হয়েছে।


পাঞ্জাবে এ নিয়ে ১২টি শিশু নির্যাতনের শিকার হয়েছে। যার বেশিরভাগ ঘটনার কোন সুরাহা হয়নি। প্রশাসনের এতে কোন ভ্রুক্ষেপও নেই। নির্যাতনকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া হলে, আজ আমার মেয়ে বেঁচে থাকতো।

আমরা চাই হত্যাকারীকে জীবিত উদ্ধার করা হোক। কাউকে ক্রসফায়ারে ফেলে বলবে এ-ই হত্যাকারী আমরা তা মানবো না। শিশুদের নিরাপত্তায় রাস্তায় রাস্তায় ভালো মানের ক্যামেরাও বসাতে হবে।

পরে পাঞ্জাব প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শাহবাজ শরীফ জয়নবের বাড়িতে তার বাবা মাকে সমবেদনা জানানোর পাশাপাশি দুস্কৃতিকারীদের ধরতে সবোর্চ্চ শক্তি প্রয়োগের আশ্বাস দেন। তদন্তে গাফিলতির জন্য পাঞ্জাব প্রদেশের বেশ কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তাকে ইতোমধ্যে বদলি করা হয়েছে। পুলিশ রাস্তার কয়েকটি সিসিটিভি ফুটেজ দেখে সন্দেহভাজন ব্যক্তির স্কেচ তৈরি করে ২৬ জনকে আটক করেছে। 




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে