আপডেট
০৬-১২-২০১৭, ১৬:৪৮

পিতৃহত্যার বদলা নেয়ার ঘোষণা আলি সালেহের

dfhgh-ooo
হাউথি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে পিতৃহত্যার বদলা নেবার ঘোষণা দিয়েছেন ইয়েমেনের সাবেক প্রেসিডেন্ট আলি আব্দুল্লাহ সালেহ-এর ছেলে আহমেদ আলি সালেহ। তিনি হাউথি বিরোধী সব পক্ষকে একজোট হয়ে কাজ করার আহবান জানান। মঙ্গলবার সৌদি মালিকানাধীন গণমাধ্যমে তার এ প্রতিশোধের ডাক প্রকাশ করা হয়। গেলো চারদিনে ইয়েমেনে সালেহ সমর্থক ও হাউথি বিদ্রোহীদের সংঘর্ষে অন্তত ২৩৪ জন নিহত হয়েছে। এদিকে সালেহ-এর মৃত্যুতে ইয়েমেনে শান্তির জন্য সৌদি আরবকে নিয়ে আলোচনার আর কোন সম্ভাবনা রইলো না বলে মনে করেন সৌদি রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। ইয়েমেনের সাবেক প্রেসিডেন্ট আলী আব্দুল্লাহ সালেহকে হত্যার পর হাউথি বিদ্রোহীরা রাজধানী সানার নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে। মঙ্গলবার তারা আনন্দ র‌্যালি বের করে । হাউথি নেতা মালিকের মত তারাও সালেহকে বিশ্বাসঘাতক আখ্যা দিয়ে বলে, ইয়েমেনের জনগণের প্রতিরোধকে দুর্বল করার জন্য সালেহ সৌদি জোটের সাথে হাত মেলানোয় তাকে হত্যার মাধ্যমে শাস্তি দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার ইয়েমেনের আল ইয়োম টিভি চ্যানেলের সদর দপ্তরে গ্রেনেড হামলা চালায় হাউথি বিদ্রোহীরা। ভবন দখল করে নিয়ে অর্ধশত সংবাদকর্মী ও কলাকুশলীকে জিম্মি করেছে তারা। গণমাধ্যমকর্মীরা এ ঘটনার নিন্দা জানানোর পাশাপাশি তাদের অবিলম্বে মুক্তির দাবি জানায়।

ইয়েমেনে গেলো তিন বছর ধরে চলা গৃহযুদ্ধে হাউথি বিদ্রোহীদের সমর্থন দিয়ে আসছিলেন সালেহ ও তাঁর সমর্থকেরা। গেলো শনিবার সালেহ আনুষ্ঠানিকভাবে হাউথিদের সঙ্গে সম্পর্কোচ্ছেদ করে সৌদি জোটের সঙ্গে আলোচনার প্রস্তাব দিলে দুপক্ষের সম্পর্কে অবনতি শুরু হয়। সোমবার সাবেক প্রেসিডেন্ট সালেহকে নির্মমভাবে হত্যা করে হাউথিরা। একই সঙ্গে হত্যা করা হয় তার ভাইপো তারেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ সালেহকেও। বোমায় উড়িয়ে দেয়া হয় সালেহ-এর বাসভবন। গেলো ৪ দিনে হাউথি বিদ্রোহী ও সালেহ সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে প্রায় আড়াইশো মানুষ প্রাণ হারিয়েছে, আহত হয়েছে ৪ শতাধিক।

এদিকে সালেহর সৌদি আরবে নির্বাসিত ছেলে আহমেদ আলী সালেহ তার পিতার হত্যার প্রতিশোধ নেবার ঘোষণা দিয়েছেন।। হাউথিদের বিনাশ করতে যুদ্ধে নেতৃত্ব দেবার ঘোষণা দিয়ে ইয়েমেন থেকে হাউথিদের বিতাড়িত করতে সালেহ সমর্থক সব জোটকে ঐক্যবদ্ধ হবার আহবান জানান তিনি।

সালেহ এর মৃত্যুতে সৌদি জোটের সঙ্গে ইয়েমেনের শান্তি আলোচনার সম্ভাবনা শেষ হয়ে গেছে বলে জানান করেছেন সৌদি আরবের রাজনৈতিক বিশ্লেষক আব্দুল আজিজ আল ইউসুফ।

রাজনৈতিক বিশ্লেষক আব্দুল আজিজ আল ইউসুফ জানান, 'আমরা ইয়েমেনের সাবেক প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বৈঠকের মাধ্যমে শান্তি আলোচনা করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু হাউথিরা তাকে হত্যা করায় এ সম্ভাবনা একেবারেই শেষ হয়ে গেছে। হাউথিদের সঙ্গে সৌদি জোটের যুদ্ধ বন্ধের আর কোন উপায় নেই।'

এরই মধ্যে হাউথিদের বিরুদ্ধে জনগণকে সোচ্চার হওয়ার আহবান জানিয়েছেন দেশটির নির্বাসিত প্রেসিডেন্ট আব্দ রাব্বু মনসুর হাদি। ইয়েমেনের গৃহযুদ্ধে এখন স্পষ্ট দুটি পক্ষ দৃশ্যমান হওয়ায় এবং উভয় পক্ষই যার যার অবস্থানে অনড় থাকায় দেশটিতে প্রাণহানির সংখ্যা ব্যাপকভাবে বাড়বে বলে আশঙ্কা করছেন বিশ্লেষকেরা। হাদিকে সমর্থন দেয়া সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট বাহিনী ইয়েমেনের গৃহযুদ্ধে হস্তক্ষেপের পর ৮ হাজারেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে ৫০ হাজারেরও বেশি। জোট বাহিনীর হামলা ও অবরোধের কারণে নিদারুণ মানবিক সংকটে পড়েছে ২ কোটি ৭০ লাখ মানুষ যাদের বেশির ভাগই শিশু।

কেএস




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে