আপডেট
০৬-১২-২০১৭, ১৬:৩৫
আন্তর্জাতিক সময়

অবশেষে উত্তর সফরে জাতিসংঘের বিশেষ দূত

nko
সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে উত্তর কোরিয়া সফরে গেছেন জাতিসংঘের রাজনীতি বিষয়ক বিশেষ দূত। গত ছয় বছরে দেশটিতে জাতিসংঘের কোন শীর্ষ কর্মকর্তার এটিই প্রথম সফর। কোরীয় উপদ্বীপে চলমান উত্তেজনা নিরসনে জাতিসংঘ দূতের এ সফর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে উল্লেখ করে একে স্বাগত জানিয়েছে চীন। এদিকে, উত্তর কোরিয়ার সাম্প্রতিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা এবং হুমকি নিয়ে আলোচনা করতে বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে বৈঠক করেছে ন্যাটো পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা।

জাতিসংঘের অব্যাহত নিষেধাজ্ঞা আর যুক্তরাষ্ট্রের হুমকি-ধামকি উপেক্ষা করেই গত সপ্তাহে, শক্তিশালী দূরপাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালায় উত্তর কোরিয়া। ক্ষেপণাস্ত্রটিকে এ যাবৎকালের সবচেয়ে শক্তিশালী আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র উল্লেখ করে এটি যুক্তরাষ্ট্রের যেকোন প্রান্তে আঘাত হানতে সক্ষম বলে দাবি করে পিয়ংইয়ং।

এ অবস্থায়, উত্তর কোরিয়ার অব্যাহত হুমকি মোকাবিলায় করণীয় ঠিক করতে মঙ্গলবার, বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে দু'দিনব্যাপী বৈঠকে বসেন ন্যাটোর সদস্যভূক্ত রাষ্ট্রগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রী। বৈঠকে, ন্যাটো প্রধান জেনস স্টোলটেনবার্গ বলেন, উত্তর কোরিয়ার সাম্প্রতিক ব্যালাস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা আন্তর্জাতিক আইন এবং জাতিসংঘ প্রস্তাবের স্পষ্ট লঙ্ঘন। একইসঙ্গে, একে আঞ্চলিক এবং বৈশ্বিক নিরাপত্তার জন্য মারাত্মক হুমকি বলেও অভিহিত করেন তিনি। এসময়, উত্তর কোরিয়াকে উস্কানিমূলক কমকাণ্ড পরিহার করে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সঙ্গে দ্রুত আলোচনায় বসার তাগিদ দেন এই ন্যাটো প্রধান। এছাড়াও, পিয়ংইয়ংয়ের পরমাণু কর্মসূচি বন্ধে দেশটির ওপর চাপ অব্যাহত রাখতেও বিশ্বনেতাদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

এ অবস্থার মধ্যেই, কোরীয় উপদ্বীপের চলমান উত্তেজনা নিরসনে আলোচনা করতে উত্তর কোরিয়া সফরে গেছেন জাতিসংঘের রাজনীতি বিষয়ক প্রধান জেফরি ফেল্টম্যান। মঙ্গলবার, তার নেতৃত্বে জাতিসংঘের একটি প্রতিনিধিদল পিয়ংইয়ং পৌঁছায়। এসময়, বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানান উত্তর কোরীয় শীর্ষ কর্মকর্তারা। পরমাণ কর্মসূচি নিয়ে আলোচনা করতে গত সেপ্টেম্বরে উত্তর কোরিয়া সফরে দেশটির পক্ষ থেকে জাতিসংঘের প্রতি আহ্বান জানানো হয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার পিয়ংইয়ং সফরে যান জাতিসংঘের এই শীর্ষ কর্মকর্তা। গত ছয় বছরে উত্তর কোরিয়ায় জাতিসংঘের কোন শীর্ষ কর্মকর্তার এটিই প্রথম সফর। তবে, কোরীয় উপদ্বীপের চলমান উত্তেজনা এবং পিয়ংইয়ংয়ের পারমাণবিক কর্মসূচি নিয়ে দেশটির শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে ফেল্টম্যানের আলোচনার কথা থাকলেও, উত্তর কোরীয় নেতা কিম জং উনের সঙ্গে কোন বৈঠকের কোন সূচী নেই তার।

কোরীয় উপদ্বীপের চলমান উত্তেজনা নিরসনে জাতিসংঘ দূতের এ পিয়ংইয়ং সফর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে উল্লেখ করে একে স্বাগত জানিয়েছে চীন। একইসঙ্গে, সফরে দেশটির শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে ফেল্টম্যানের গঠনমূলক আলোচনা হবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়। মঙ্গলবার, বেইজিংএএক নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র গেং শুয়াং।

তিনি বলেন, 'কোরীয় উপদ্বীপের উত্তেজনা নিরসনে জাতিসংঘ যে গঠনমূলক ভূমিকা পালন করছে তাতে চীন অন্যন্ত খুশি। জাতিসংঘের রাজনীতি বিষয়ক প্রধান কর্মকর্তা জেফরি ফেল্টম্যান পিয়ংইয়ং যাওয়ার আগে বেইজিংয়ে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। দুই নেতার ওই বৈঠকে উত্তর কোরিয়ার ইস্যুতে জাতিসংঘের অবস্থান এবং চলমান সংকট নিয়ে ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে।'


এদিকে, কোরীয় উপদ্বীপের চলমান উত্তেজনার মধ্যেই, দক্ষিণ কোরিয়ার আকাশসীমায় বিমান মহড়া চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। বুধবার, দক্ষিণ কোরীয় গণমাধ্যমের পক্ষ থেকে এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করা হয়। বি ওয়ান বি ল্যান্সার এবং এফ টুয়েন্টি টু মডেলের দুটি বোমারু বিমান দক্ষিণ কোরিয়ার আকাশে মহড়া চালিয়েছে বলে ওই খবরে জানানো হয়।




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে