আপডেট
১৫-১১-২০১৭, ১৩:৪৭

ইতালির বিদায় 'জাতীয় লজ্জা'

untitled-1-jpg-ed
৬০ বছর পর বিশ্বকাপ বাছাই পর্ব থেকে বাদ পড়াকে জাতীয় লজ্জা হিসেবে দেখছেন ইতালিয়ানরা। রাগে ক্ষোভে ফুটবলারদের অন্য পেশা খুঁজে নেয়ার পরামর্শ দিয়েছে জনগণ। বিশ্বকাপ খেলতে না পারায় ইতালিয়ান ফুটবলের শেষও দেখে ফেলেছেন অনেকে। সবার মাঝে চাপা ক্ষোভ আর দু;খের যেন শেষ নেই।
সূর্য উঠেছে আট-দশটা দিনের মতই। সকাল সকাল কর্মস্থলে ছুটেছেন মানুষ। রাস্তার পাশে হকাররা ব্যস্ত কাজ কর্মে। কিন্তু কারো মনেই শান্তি নেই, মুখে বিষন্নতার ছাপ। এমন হওয়ারইতো কথা। ইতালি বিশ্বকাপ খেলবেনা এটাতো গোটা দুনিয়াই মেনে নিতে পারছেনা। স্বদেশে সে প্রতিক্রিয়া যে আরো বেশি হয়নি সেটাও অবাক করেছে।

ভক্তরা বলেন, 'খুব বাজে খেলেছে ফুটবলাররা। তারা ইতালিয়ানদের মত খেলেনি। এটা জাতীয় লজ্জা। তারা জানেনা কিভাবে খেলতে হয়। চাপে পড়লে কিভাবে খেলতে হয় সেটাও তারা জানেনা।'

আজ্জুরিদের বাছাই পর্ব থেকে বাদ। কিংবদন্তি বুফনের চোখের জলে বিদায়। এমন কবে হয়েছিল? কয়েক প্রজন্ম অন্তত সেটি বলতেই পারবেনা। ৬০ বছর আগে একবারই বাছাই পর্ব উতরাতে পারেনি ইতালি।

আরো একজন বলেন, 'আমি ওটা দেখিনি। দু:খিত। ইতালি বিশ্বকাপে খেলতে পারছে না। দু:খিত ফুটবলারদের জন্য। যারা সমর্থকদের কিছু দিতে পারেনি।'

ইতালির বিদায় গণমাধ্যমের কাছে লজ্জা। ঘুম থেকে ওঠে পত্রিকার পাতায় সেটিই দেখতে হলে জনগণকে। ফুটবলারদের খোঁচা দিতেও ছাড়েনি গণমাধ্যম। কারো কাছে, ন্যাশনাল শেইম, কারো কাছে দ্যা এনড। কেউ আবার একটু বাড়িয়ে ফুটবলারদের অন্য পেশা খোঁজার পরামর্শ দিয়েছেন।


পিএস/




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে