আপডেট
১৫-১১-২০১৭, ১০:৫৩
মহানগর সময়

গৃহ-করের উত্তাপের রেশ শহর ছাড়িয়ে এখন বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে

house-tax-jpg-ed
চট্টগ্রামে গৃহ-করের উত্তাপের রেশ এখন শহর ছাড়িয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে। বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক আমির উদ্দীনকে হুমকির প্রতিবাদ ও অপসারণের দাবিতে পাল্টাপাল্টি অবস্থান নিয়েছে বর্তমান মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের অনুসারী ও সাবেক মেয়র মহিউদ্দীন চৌধুরীর অনুসারী ছাত্রলীগ।

এদিকে, গৃহ কর নিয়ে উদ্দেশ্যমূলকভাবে অপপ্রচার চালোনো হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন বর্তমান মেয়র। অন্যদিকে,কোন হুমকিতে ভীত না হয়ে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা কর সুরক্ষা পরিষদের।

হোল্ডিং মালিকদের তাদের আয়ের বিপরীতে ১৭ শতাংশ হারে পৌরকর দিতে হয়। এক্ষেত্রে সিটি কর্পোরেশন পঞ্চবার্ষিকী কর পুনমূল্যায়ন ও সম্পন্ন করে। এবার প্রথমবারের মত বর্গফুট ভিত্তিক মূল্যায়নের বদলে ভাড়ার ওপর নির্ধারণ করায় ১৫ থেকে ২০ গুণ কর বৃদ্ধি পেয়েছে।

এতে কর কমানোর দাবিতে আন্দোলনে মাঠে নামে কর সুরক্ষা পরিষদ নামে একটি সংগঠন। যার নেতৃত্ব দিচ্ছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইন্সটিটিউটের শিক্ষক আমির উদ্দীন।

বিশ্ববিদ্যালয়ে আমির উদ্দীনকে যেমন অস্ত্র ঠেকিয়ে হত্যার হুমকির অভিযোগ পাত্তয়া যায় তেমনি তাকে অপসারণের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের ভাঙচুর চালিয়েছে ছাত্রলীগের একটি অংশ। তার নিয়োগ প্রশ্নে বৈধতা তুলেও অপসারণের দাবিতে আন্দোলনে নামে বর্তমান মেয়রের অনুসারী ছাত্রলীগ।

এ বিষয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ স্থগিত কমিটি সভাপতি আলমগীর টিপু বলেন, 'বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক হওয়ার পরবর্তী ৩ বছরের মধ্যে যে সব ডিগ্রী নেওয়ার কথা সেগুলো উনি নেয়নি। যেহেতু ডিগ্রীগুলো নেয়নি তাই বলা হচ্ছে তাঁর ডিগ্রীগুলো অবৈধ।'


এদিকে, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আমির উদ্দীনের পক্ষ নিয়ে পাল্টা কর্মসূচি ঘোষণা করেছে সাবেক মেয়র মহিউদ্দীন চৌধুরীর অনুসারী ছাত্রলীগ।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ স্থগিত কমিটি সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বি সুজন বলেন, 'তার উপর যেহেতু গৃহ কর চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে, তাই কর সুরক্ষা পরিষদে আন্দোলন করে যাচ্ছে। এই নগরের যৌক্তিক বিষয়কে বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়ে গিয়ে সেখানকার পড়া-লেখার পরিবেশ বিনষ্ট করছে।'

মেয়র বলছেন, উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবেই সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করতেই  তার বিরুদ্ধে আন্দোলন করছে কর সুরক্ষা পরিষদ। অন্যদিকে যৌক্তিক ভাবে এ আন্দোলন করা হচ্ছে বলে দাবি কর দাতা সুরক্ষা পরিষদের  সাধারণ সম্পাদকের।

কর দাতা সুরক্ষা পরিষদ সাধারণ সম্পাদক আমির উদ্দীন বলেন, 'বিষয়টা অযৌক্তিক বলেই আমরা আন্দোলনে নেমেছি।'

এ অবস্থায় করের বিষয় নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে সংঘাতময় পরিস্থিতির সৃষ্টি হলে কঠোর হস্তে দমন করা হবে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দীন চৌধুরী।

শিক্ষকের অভিযোগ ও ছাত্রলীগের দাবির প্রেক্ষিতে আলাদা দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

পিএস/




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে