আপডেট
১৪-০৯-২০১৭, ১০:৩২

খুদে দাবাড়ু ফাহাদের স্বপ্ন ও প্রতিবন্ধকতা

gold-fahad
শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠেয় ওয়েস্ট এশিয়ান দাবা চ্যাম্পিয়নশিপে দুইটি স্বর্ণ জিতেছেন বাংলাদেশের খুদে দাবাড়ু ফাহাদ রহমান। এর আগে মালয়েশিয়ান দাবা ফেস্টিভালেও একটি স্বর্ণ জয় করেন তিনি। ছোট্ট ক্যারিয়ারে জিতেছেন বেশ কিছু আন্তর্জাতিক পদক। শ্রীলঙ্কার কীর্তিগাঁথা শোনা হলো তার কণ্ঠে। একইসঙ্গে ভবিষ্যৎ স্বপ্ন আর দাবায় নানান প্রতিবন্ধকতার কথাও জানালেন তিনি। ফাহাদ রহমানের বয়স ১৪। চেহারায় শৈশবের ছাপ স্পষ্ট অথচ কপালে ঠিকই চিন্তার ভাঁজ। এ বয়সেই তার শোকেসে শোভা পাচ্ছে ৮টি আন্তর্জাতিক স্বর্ণ ও ৬টি রৌপ্যপদক। সম্প্রতি শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত দাবা চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে দুটি স্বর্ণ জয় করে ফিরেছেন মঙ্গলবার। এর আগে মালয়েশিয়ায় হয়ে যাওয়া দাবা ফেস্টিভালেও স্বর্ণজয় করেন এই ফিদে মাস্টার। দেশে ফিরেও নেই একখণ্ড অবসর। হাতি-ঘোড়ার চাল অনুশীলনে ব্যস্ত এই ফিদে মাস্টার।

লঙ্কা জয় করলেও চোখে মুখে নেই উচ্ছ্বাসের ছাপ। ফাহাদের কাছে এ যেন আর দু'একটা টুর্নামেন্ট জয়ের মতই।

'শ্রীলঙ্কার খেলাটা বেশি এক্সাইটিং ছিলো। তিনটা গোল্ড আর দুইটা সিলভার পেয়েছি। আসলে পাঁচটি স্বর্ণই পেতাম কিন্তু টাইম প্রেসারে ভুল চাল দিয়ে ফেলেছি।' বলছিলেন ফাহাদ।

সামনেই ইতালিতে অনুষ্ঠেয় বিশ্ব জুনিয়র দাবা চ্যাম্পিয়নশিপসহ আছে বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট। সেখানেও সাফল্যের অদম্য ইচ্ছা এই ক্ষুদে দাবাড়ুর।

ফাহাদ রহমান বলেন, 'টুর্নামেন্ট ধরে ধরে ভালো করার ইচ্ছা তো আছেই। ভালো প্রস্তুতি নিয়েছি যাতে সামনের টুর্নামেন্টগুলোতে আরো ভালো করতে পারি। সমনে মালয়েশিয়াতে যে টুর্নামেন্ট খেলবো সেখানে সরাসরি আইএম'র সুযোগ আছে। আর আইএম এর পরে তো জিএম হওয়ার লক্ষ্য আছে।'

গল্পে গল্পে সাফল্যের পাশাপাশি উঠে এলো নানান প্রতিবন্ধকতার কথাও। পৃষ্ঠপোষকতার অভাবে নিয়মিত খেলা হয়না আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট। বছর তিনেক-চারেক আগে হারিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ান লিয়ং ওয়ান্ডার এবং ইরানী ফিরোজা আলীকে। তাদের একজন ইন্টারন্যাশনাল এবং অন্যজন গ্র্যান্ড মাস্টার। নিয়মিত টুর্নামেন্টের অভাবে রেটিংয়ে বেশ পিছিয়ে পড়েছেন ফাহাদ। পৃষ্ঠপোষকতার অভাবে হুমকির মুখে আসন্ন টুর্নামেন্টগুলোও।

'ফেডারেশন কয়েকটা টুর্নামেন্টের খরচ আমাকের দেবে কিন্তু আব্বুরটা দেবে না। কিন্তু আব্বু ছাড়াতো একটা টুর্নামেন্টও খেলতে যাওয়াটা অসম্ভব।' বলছিলেন ফাহাদ।

ফাহাদের বাবা মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম বলেন, 'একটা টুর্নামেন্টও ফাহাদের পক্ষে খেলা সম্ভব না কারণ, আমার কাছে একটা টাকাও নাই। রাষ্ট্র যদি খেলায় তাহলে খেলতে পারবে না হলে ফাহাদ কিন্তু আস্তে আস্তে স্লো হয়ে যাচ্ছে।'

সব প্রতিকূলতা কাটিয়ে দেশের গৌরব বয়ে আনবেন ফাহাদ রহমানদের মতো খুদে তারকারা। সেই প্রত্যাশাই সবার।




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে