আপডেট
১২-০৮-২০১৭, ০৯:০৬

ডাকাতের উপদ্রব আতঙ্কে রাত কাটে চরাঞ্চলের মানুষের

untitled-1-jpg-ed
বন্যা আর প্রাকৃতিক দুর্যোগে নাজেহাল চরাঞ্চলের মানুষের সম্বল গবাদি পশু নিয়ে দুঃশ্চিন্তায় রয়েছেন। শুধু পশু লুট নয় অস্ত্রের মুখে নারীদের ওপর পাশবিক নির্যাতনও চালায় ডাকাতরা। তাই বাধ্য হয়ে গাইবান্ধার চরবাসী নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছেন। রাতের বেলা পুলিশি টহল চালু থাকলেও চরে অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্পের দাবি জনপ্রতিনিধিদের।
নৌকার আওয়াজ শুনলেই হৈ হুল্লোড় করে ওঠেন ফুলছড়ি উপজেলার উত্তর খাটিয়ামারী চরের মানুষ। মধ্যরাতে মানুষ যখন ঘুমে বিভোর। তখন লাঠি আর বাঁশি নিয়ে রাত জেগে থাকতে হয় চরাঞ্চলের শিশু ও নারী-পুরুষদের। তাদের অভিযোগ, সশস্ত্র ডাকাতের হামলা থেকে রক্ষা পায়না চরবাসীর আজীবনের সঞ্চয়। গবাদি পশুর পাশাপাশি লুট করে নেয় মা-বোনদের সম্ভ্রমও। বাধ্য হয়ে জীবন-জীবিকা রক্ষায় তাদের এই প্রতিরোধ।

এক চরবাসী বলেন, ডাকাতরা প্রায় দিনই আসে। এই জন্যই আমরা দলবেঁধে এই নদীর কিনারায় থাকি।'

আরেকজন বলেন, 'তারা হাত-পা বেধে, গুলি করে মা বোনদের স্বর্ণ নিয়ে যায়।'

এক নারী বলেন, 'পুরুষগুলো নদীপাড়ে এসে পাহারা দেয়। আমরা সন্তানদের নিয়ে ঘরে থাকি। ভয়ে আমরা ঘুমাতে পারি না।'

পুলিশ বলছে, বিস্তীর্ণ চরাঞ্চলে ডাকাতি ঠেকাতে জনগণকে সাথে নিয়ে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়েছেন তারা। রাতভর ব্রহ্মপুত্র নদে জোরদার করা হয়েছে পুলিশি টহল।


ফুলছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আশরাফুজ্জামান বলেন, 'ডাকাত নিয়ন্ত্রণের জন্য মাইকিং করছি এবং স্থানীয় চৌকিদার এবং পুলিশের সহায়তায় টহল দিচ্ছি।'

জনপ্রতিনিধিরা বলছেন, কেবল টহল নয়, চরগুলোতে অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প স্থাপন করা হলে ডাকাতদের অত্যাচার থেকে রেহাই মিলবে। আর জেলার পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ বললেন, ডাকাতি প্রতিরোধে পুলিশ ও নৌপুলিশের সমন্বয়ের চেষ্টা চলছে।

ফজলুপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন জালাল বলেন, 'একটা স্থায়ী ক্যাম্প হলে তো আর চুরি ডাকাতি হবে না। আমাদের একটা ফাঁড়ি জরুরি ভিত্তিতে দরকার।'

পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ বলেন, 'সমন্বয় করেই নৌ-পুলিশকে ডেভেলপ করা হচ্ছে।'

গাইবান্ধা সদর, সাঘাটা, ফুলছড়ি ও সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় ১শ’ ৬৫টি চর ও দ্বীপচর রয়েছে।

রাত নয়টার পর থেকেই এই ব্রহ্মপুত্র নদে শুরু হয় ডাকাতদের আনাগোনা। রাত গভীর হওয়ার সাথে সাথে চরাঞ্চলে ঘুমিয়ে পড়া নিরীহ মানুষ গুলোর উপর হামলে পড়ে তাদের সর্বস্ব লুটে নেয় সংঘবদ্ধ ডাকাত চক্র। অভিযোগ আছে ডাকাতির পর পার্শ্ববর্তী জেলা বগুড়া, জামালপুর এবং কুড়িগ্রামে গিয়ে আশ্রয় নেয় তারা।




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে