SOMOYNEWS.TV

'সিরীয়ায় মার্কিন আগ্রাসনে আইএস লাভবান হয়েছে'

Update: 2017-04-20 16:49:06, Published: 2017-04-20 16:49:10
syria-20april-jpg-ed
সিরীয় বিমানঘাঁটিতে মার্কিন হামলা, ওই এলাকায় আইএসের অবস্থানকে আরও শক্ত করার সুযোগ করে দিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন রুশ প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভ। বৃহস্পতিবার দেশটির পার্লামেন্টে দেয়া ভাষণে তিনি বলেন, আসাদ সরকার রাজনৈতিক বৈধতা নিয়েই ক্ষমতায় রয়েছে। এদিকে, বিদ্রোহীদের সরিয়ে মধ্যাঞ্চলীয় জাবাদানি, মাদায়া ও বুকেইন শহরের পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে সরকারি বাহিনী।

১০ হাজার টন ত্রাণ সাহায্য নিয়ে বুধবার রাশিয়ার একটি জাহাজ সিরিয়ার পশ্চিমাঞ্চলীয় তারতাউস বন্দরে পৌঁছায়।

রাশিয়ার পক্ষ থেকে সিরীয়দের জন্য এ যাবৎকালের সবচেয়ে বেশি সাহায্য নিয়ে ভূমধ্যসাগরের উপকূলীয় বন্দরটিতে পৌঁছানোর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ত্রাণসামগ্রী জাহাজ থেকে নামিয়ে বিভিন্ন শহরে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়। এ ত্রাণসামগ্রীর মধ্যে ময়দা, চিনি ও প্যাকেটজাত খাদ্যদ্রব্য রয়েছে বলে জানা গেছে।

এদিকে, চলতি মাসের শুরুতে সিরিয়ার হোমসের কাছে শায়রাত বিমানঘাঁটিতে মার্কিন হামলার কড়া সমালোচনা করে রুশ প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভ বলেছেন- এ হামলা আইএসের জঙ্গিবাদী কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার সুযোগ করে দিয়েছে। এ হামলাকে মার্কিনআগ্রাসন হিসেবেও উল্লেখ করেন তিনি।

রাশিয়া প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভ বলেন, 'আমরা জানি না- সিরিয়ায় পরবর্তীতে কী ঘটতে যাচ্ছে। তবে, দেশটিতে মার্কিন আগ্রাসনের ফলে আইএস লাভবান হয়েছে। সরকারি বাহিনীর অভিযান দুর্বল হয়ে পড়ায় জঙ্গিরা কার্যক্রম প্রসারের সুযোগ পেয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র পছন্দ করুক বা না করুক, সিরিয়ায় রাজনৈতিক বৈধতা নিয়েই আসাদ সরকার টিকে আছে।'

এদিকে, গত শনিবার আলেপ্পোয় গাড়িবহরে বিস্ফোরণের আগে বিদ্রোহী ও সন্ত্রাসী গোষ্ঠিগুলো উদ্বাস্তু মানুষের মাঝে খাবার বিতরণ করে তাদের সেখানে অবস্থান করতে প্ররোচনা দিয়েছিলো বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। ওই বিস্ফোরণে শতাধিক মানুষ নিহত হয়।

যখন উদ্বাস্তু মানুষেরা বাস বদল করে অন্য বাসে উঠার অপেক্ষা করছিলো, তখন হঠাৎই একটি গাড়িতে করে কিছু খাদ্যসামগ্রী এনে কয়েকজন শিশুদের মাঝে বিতরণ করে। আরও দেয়া হবে বলে তাদের সেখানে অপেক্ষা করতে বলে তারা। এর কিছুক্ষণ পরই বিস্ফোরণ ঘটে।

এদিকে, বিদ্রোহীদের এক সময়ের শক্ত ঘাঁটি মধ্যাঞ্চলীয় জাবাদানি, মাদায়া ও বুকেইন শহরের পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে সরকারি বাহিনী। বুধবার সরকারের পক্ষ থেকে শহরগুলোকে পুরোপুরি বিদ্রোহীমুক্ত বলে ঘোষণা করা হয়। সরকারি শাসন প্রতিষ্ঠা পাওয়ায় এসব শহরে জনজীবন স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে।ৱ

এদিকে, চলতি মাসের শুরুতে বিদ্রোহী-নিয়ন্ত্রিত ইদলিবে রাসায়নিক হামলার ব্যাপারে অকাট্য প্রমাণ পাওয়ার কথা জানিয়েছে- রাসায়নিক অস্ত্র নিষিদ্ধকরণ সংস্থা- ও.পি.সি.ডব্লিউ। এ হামলার জন্য সরকারি বাহিনীকে দায়ী করা হলেও বরাবরই তা অস্বীকার করে আসছে আসাদ সরকার।

Update: 2017-04-20 16:49:06, Published: 2017-04-20 16:49:10

More News
loading...

সর্বশেষ সংবাদ



Contact Address

Lavel-9, Nasir Trade Centre,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205.
Fax: +8802 9670057, Email: info@somoynews.tv
উপরে