আপডেট
২০-০৩-২০১৭, ১১:০৯

শততম টেস্টে জয়ের প্রশংসা বিশ্ব গণমাধ্যমেও

world-reax
উচ্ছ্বাস ছিলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতেও। ফেইসবুক, টুইটার কিংবা ইন্সটাগ্রামে নিজেদের অনুভূতি টাইগার সমর্থক'রা প্রকাশ করেছেন। সে সঙ্গে বাংলাদেশের শততম টেস্টে জয়ের প্রশংসা ছিলো বিশ্ব গণমাধ্যমেও। বাংলাদেশিদের বিশ্বাস, স্বপ্ন, সাধ, আবেগ ভালোবাসার আরেক নাম। এই একটি খেলাই জাতি, ধর্ম, বর্ণ, দলমত নির্বিশেষে সবাইকে দাঁড় করিয়ে দেয় এক কাতারে। বাইশ গজে খেলে তামিম-সাকিব'রা আর বাইরে পুরো ১৬ কোটি বাংলাদেশি।

মুলতান, ফতুল্লা, কিংবা ওয়েলিংটন। বারবারই তীরে এসে তরী ডোবানোয় এদেশের কোটি ভক্ত সমর্থকদের হৃদয়ে হয়েছে রক্তক্ষরণ। তাইতো ৪র্থ দিন শেষে ক্রিজে জমে যাওয়া লাকমাল-পেরেরা জুটিতে নির্ঘুম রাতা-ই পার করেছিলো খেলা পাগল বাংলাদেশি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলোতে ছিলো তার রেশ।

তবে বদলে যাওয়া টাইগার'রা ঐতিহাসিক টেস্টেই যে ইতিহাস রচনা করবে, সে আঁচ হয়তো আগেই পেয়েছিলো তারা। তাইতো ফ্রেমে বাধাই করে রাখার মতো এই জয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও ছিলো শুধু টাইগার বন্দনা। ফেইসবুক, টুইটার সহ বিভিন্ন সোশ্যাল সাইটে - স্ট্যাটাস, ফটো আপলোড কিংবা ভিডিও শেয়ারিংয়ে ঐতিহাসিক জয়কে স্বরণ করেছে যে যার মতো করেই।

মুশফিকদের এই জয়ে প্রশংসায় পঞ্চমুখ ছিলো বিশ্ব গণমাধ্যম গুলোও। প্রতিবেশী দেশ ভারতের প্রায় সব পত্রিকায়ই বড় করে দেখানো হয়ে বাংলাদেশের জয়কে। টাইম'স অফ ইন্ডিয়া লিখেছে শততম টেস্টে, লঙ্কানদের বিপক্ষে প্রথম জয় বাংলাদেশের। এসবিএসের টাইটেল ছিলো 'ঐতিহাসিক টেস্টে ইতিহাসের সাক্ষী বাংলাদেশ'।

গলের শোধ কলম্বোয়, শততম টেস্ট বাংলাদেশের, এই শিরোনাম করেছে কলকাতার আনন্দ বাজার পত্রিকাটি। পাকিস্তানের এক্সপ্রেস ট্রিবিউন, ডন সব খানেই ছিলো বাংলাদেশের বন্দনা। এছাড়া বিবিসি, গার্ডিয়ানেও আলাদা গুরুত্ব দেয়া হয়েছে বাংলাদেশের জয়কে।

এদিকে টাইগারদের এই জয়ে টুইটারে অভিনন্দন বার্তা জানিয়েছেন লঙ্কান গ্রেট মাহেলা,সাঙ্গা কিংবা রাসেল আরনল্ডের মতো তারাকা'রা। সে সঙ্গে ওয়ানডে সিরিজেও এক জমজমাট লড়াইয়ের প্রত্যাশা করেছেন তারা।




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে