আপডেট
১৭-০২-২০১৭, ০৮:৫২

অযত্ন অবহেলায় গুরুত্ব হারাচ্ছে প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন রানী ময়নামতি

com-dig
প্রায় দুই দশক পর কুমিল্লার প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন রানী ময়নামতির পুনঃখনন কাজ শুরু হয়েছে। স্থানীয়দের অভিযোগ, দীর্ঘদিন অযত্ন আর অবহেলায় পড়ে থাকায় গুরুত্ব হারাচ্ছে পর্যটন শিল্পের সম্ভাবনাময় এই স্থানটি।
তবে, প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের দাবি, বরাদ্দ কম থাকায় সঠিকভাবে খনন কাজ করা সম্ভব হচ্ছে না। অবশ্য, জেলা প্রশাসক আগামীতে পর্যাপ্ত অর্থ বরাদ্দ দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন।

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলায় সপ্তম ও অষ্টম শতাব্দীর প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন রানী ময়নামতির প্রাসাদ। স্থানীয়রা ডাকেন রানীর বাংলো নামে।

১৯৮৮ সালে প্রথমবারের মতো এখানে খনন কাজ শুরু হয়। এরপর কয়েক দফা থেমে থেমে খননের কাজ চললেও প্রায় দু'দশক তা বন্ধ থাকে। ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেটে ফের চলছে এখানকার খনন কাজ। শেষ হবে চলতি বছরের মার্চে। তবে স্থানীয়দের অভিযোগ, দীর্ঘদিন অযত্ন আর অবহেলার কারণে সৌন্দর্য হারাতে বসেছে ঐতিহাসিক এই স্থানটি।

কুমিল্লা ময়নামতি জাদুঘর সহকারী কাষ্টডিয়ান হাসিবুর রহমান জানান, অর্থ সংকটের কারণে প্রতিবারই অল্প দিন চলে খননের কাজ।

তবে, আগামী অর্থবছরের বাজেটে রানী ময়নামতির খনন কাজ ও সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য পর্যাপ্ত অর্থ বরাদ্দের আশ্বাস দিলেন কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মো. জাহাংগীর আলম।


প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের তথ্য মতে, কুমিল্লার লালমাই থেকে ময়নামতি পর্যন্ত ১১ মাইল পাহাড়ি এলাকায় এ পর্যন্ত প্রায় ৫৫টি প্রত্নতত্ত্ব নিদর্শনের সন্ধান মিলেছে। এর মধ্যে মাত্র ২৩টি খনন যোগ্য।




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে