আপডেট
১৬-০২-২০১৭, ১৬:২৩

সিরীয় সরকারের সঙ্গে সরাসরি আলোচনায় বসতে চায় এইচএনসি

syr-16feb
জেনেভায় আগামী সপ্তাহে অনুষ্ঠেয় সিরিয়া শান্তি সম্মেলনের পরবর্তী পর্বে সরকারি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে সরাসরি আলোচনায় বসার আগ্রহ প্রকাশ করেছে প্রধান বিরোধীপক্ষ উচ্চ মধ্যস্থতাকারী কমিটি- এইচ.এন.সি। আলোপ্পো পুনরুদ্ধার অভিযানের সময় সরকারি বাহিনী রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করেছে-- মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচের এ অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলে অভিহিত করেছে দামেস্ক।
এর মধ্যে প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদ আবারও বলেছেন, সিরিয়ার ভবিষ্যৎ সিরিয়ার জনগণই নির্ধারণ করবে।

বিদ্রোহীদের কাছ থেকে আলেপ্পো পুনর্দখলের পর থেকেই সিরিয়ার বিভিন্ন প্রান্তে আইএসসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে সিরীয় বাহিনী। বুধবারও, দক্ষিণাঞ্চলীয় দেরা প্রদেশে জঙ্গিগোষ্ঠী নুসরা ফ্রন্টের বিরুদ্ধে অভিযান চালায় সিরীয় সেনারা। অনলাইনে প্রকাশিত এক ভিডিওতে, জঙ্গিদের অবস্থান লক্ষ্য করে তাদের ট্যাংক থেকে গোলাবর্ষণ করতে দেখা যায়। এর পাশাপাশি বিদ্রোহীদের অবস্থান লক্ষ্য করে অন্তত ৩০ দফা বিমান হামলা চালায় রুশ বাহিনী। এসব অভিযানে হতাহতের সংখ্যা সম্পর্কে কিছু জানা যায়নি।

এ অবস্থায় আগামী ২৩শে ফেব্রুয়ারি সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় শুরু হতে যাচ্ছে সিরিয়া শান্তি আলোচনার পরবর্তী পর্যায়। এ-বৈঠক নিয়ে এর আগে নানা রকম হতাশা ব্যঞ্জক কথা শোনা গেলেও বুধবার ইতিবাচক বক্তব্য এসেছে আসাদ সরকারের প্রধান বিরোধীপক্ষ এইচএনসির তরফ থেকে। সরকারি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে সরাসরি বৈঠকে বসতে আপত্তি নেই বলে জানিয়েছে তারা। তবে তারা এ-ও জানিয়ে দিয়েছে যে, দেশের ভবিষ্যৎ রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের প্রক্রিয়ায় অন্তর্বর্তী সরকারে প্রেসিডেন্ট আসাদের কোন ভূমিকা তারা মেনে নেবে না।

এইচএনসি মুখপাত্র সালেম আল মুসলিত বলেন, 'আমাদের হাতে সময় খুব অল্প। প্রায় প্রতিদিনই সাধারণ সিরীয়দের চরম মূল্য দিতে হচ্ছে। তাই আমরা একটি সুনির্দিষ্ট এজেন্ডা নিয়ে সরকারের সঙ্গে সরাসরি আলোচনায় বসতে চাই। সরাসরি আলোচনাই প্রমাণ করবে কারা সংকটের শান্তিপূর্ণ সমাধান চায় আর কারা চায় না।'

তবে প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদ বলেছেন, তিনি প্রেসিডেন্ট থাকবেন কিনা তা সিরিয়ার জনগণই নির্ধারণ করবে। এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার এখতিয়ার একমাত্র জনগণের উল্লেখ করে জনগণই দেশের একমাত্র মালিক বলেও মন্তব্য করেন তিনি।


এদিকে, বিদ্রোহীদের কাছ থেকে আলেপ্পো পুনর্দখলে সরকারি বাহিনীর অভিযানে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে বলে সম্প্রতি আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা - হিউম্যান রাইটস ওয়াচ যে অভিযোগ করে তা প্রত্যাখ্যান করেছে দামেস্ক। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে খবরটিকে পুরোপুরি মিথ্যা ও ভিত্তিহীন বলে মন্তব্য করা হয়।




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে