মসুলে ইরাকি বাহিনী ও আইএস-এর ব্যাপক সংঘর্ষ

Update: 2017-01-12 16:19:56, Published: 2017-01-12 16:19:58
iraq-situa
ইরাকের মসুল আইএসমুক্ত করার অভিযানে শহরটির উত্তর-পূর্বাঞ্চলে নিজেদের সাফল্য ধারা অব্যাহত রেখেছে সামরিক বাহিনী। তবে জঙ্গিদের আত্মঘাতী গাড়ি বোমা হামলা ও ড্রোন ব্যবহার করে সেনাদের ওপর আক্রমণের কারণে কিছুটা বেগ পোহাতে হচ্ছে বলে জানান সেনা কর্মকর্তারা। এর মধ্যেই দক্ষিণ মসুলে ইরাকি বাহিনীর সঙ্গে আইএস-এর ব্যাপক সংঘর্ষের খবর পাওয়া গেছে।

মসুলের দক্ষিণাঞ্চলীয় সোমার শহরে বুধবার আইএস-এর কঠিন প্রতিরোধের মুখে পড়ে ইরাকি সেনাবাহিনী। দু'পক্ষের মধ্যে বেশকিছুক্ষণ ধরে চলা এ সংঘর্ষে কয়েকজন জঙ্গি নিহত হলেও; নিরাপত্তা বাহিনীর কারও প্রাণহানির খবর পাওয়া যায়নি।

ইরাকি সেনা কর্মকর্তা আব্বাস আমির বলেন, 'এই শহরটিতে আমাদের অনেক শত্রু ছিলো। কিন্তু আমাদের সেনারাও বেশ দক্ষতার সঙ্গে অভিযান পরিচালনা করছে। সেইসঙ্গে মার্কিন জোটও আমাদের সহযোগিতা করছে। শহরটিতে এসব অভিযানে ৪০ থেকে ৫০ আইএস নিহত হয়েছে।'

দক্ষিণ অঞ্চলে দু'পক্ষের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘাতের মধ্যেই গুরুত্বপূর্ণ শহরটির উত্তর-পূর্বাঞ্চলে নিজেদের অগ্রগতি ধরে রেখেছে ইরাকি নিরাপত্তা বাহিনী। গত কয়েকদিনে আরও কিছু এলাকা আইএসমুক্ত করার কথা জানায় তারা। এর মধ্য দিয়ে দজলা নদীর তীরবর্তী এলাকার নিয়ন্ত্রণে আরও একধাপ এগিয়ে গেলো ইরাকি বাহিনী।

সেনা কমান্ডার আব্দেল ওয়াহাব আল-সাদি বলেন, 'প্রথম পর্যায়ের অভিযান শেষে এখন পুরো শহরের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ নিতে দ্বিতীয় পর্যায়ের অভিযান চলছে। তবে কিছু কিছু জায়গায় এখনো আইএস-এর অস্তিত্ব রয়ে গেছে। তাদেরকে নির্মূলের সর্বোচ্চ চেষ্টা চলছে।'

দু'পক্ষের চলমান এই সংঘাতের ফলে দিন দিন বাড়ছে শহর ছেড়ে অন্যত্র পালিয়ে যাওয়া শরণার্থীর সংখ্যা। আবার আইএস-এর নৃশংস কর্মকাণ্ডের শিকার হয়ে বসতি ছাড়ার কথা জানালেন অনেকে।

স্থানীয় বাসিন্দা আবু উইসাম বলেন, 'একদিন আইএস জঙ্গিরা আমার বাড়িতে এসে সবার সামনে আমার স্ত্রীকে হত্যা করে। আমার ১১ সন্তানের মধ্যে একজনকে ধরে নিয়ে যায়। কয়েকদিন পর আমার ওই ছেলে এবং ভাইপোকে ওরা গলা কেটে হত্যা করে। ভয়ে আমি বাকি সন্তানদের নিয়ে পালিয়ে আসি। কোথায় আমার ইসলাম, আমাদের রক্ষা করার মতো কেউই নাই।'

গত অক্টোবরের মাঝামাঝি মসুল পুনরুদ্ধারের অভিযান শুরুর পর এ পর্যন্ত প্রায় ১ লাখ ৩৫ হাজার মানুষ শহরটি ছেড়ে পালিয়েছে। এছাড়া, দু'পক্ষের চলমান সংঘাতের কারণে বহু বেসামরিক নাগরিক এখনো আটকে আছে বলে জানায় গণমাধ্যম।

Update: 2017-01-12 16:19:56, Published: 2017-01-12 16:19:58

আপনার মন্তব্য লিখুন

পাঠকের মন্তব্য ( )


More News
  


আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ



সরাসরি যোগাযোগ

৮৯, বীর উত্তম সি. আর. দত্ত রোড, ঢাকা ১২০৫, বাংলাদেশ।
ফ্যাক্স: +৮৮০২ ৯৬৭০০৫৭, ইমেইল: info@somoynews.tv
উপরে en.Somoynews.tv