মো: ইউসুফ আলী
আপডেট
১১-০৮-২০১৮, ০৬:১৯
বাংলার সময়

মানিকগঞ্জে পশুর পরিচর্যায় ব্যস্ত খামারীরা

manik-cattle
মানিকগঞ্জে গবাদি পশু পালন করে লাভবান হচ্ছেন অনেকে। আর কোরবানির ঈদ সামনে রেখে পশুর পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছেন তারা। তবে নদী তীরবর্তী হওয়ায় চোর-ডাকাতের আতংকে আছেন খামারিরা। তবে পুলিশ প্রশাসন বলছে, ঈদ উপলক্ষে এসব এলাকায় নেয়া হয়েছে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

 
পশু পালনের অনন্য উদাহরণ তৈরি করছেন, মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার 'পরিষ্কার বেগম'। শুধু খড় ভুষি নয়,পশুটিকে খাওয়ানো হচ্ছে আপেল-কমলাও। যা অবাক করে দিয়েছে স্থানীয়দের।

খামারী পরিষ্কার বেগম বলেন, ছোলা, ছিঁড়া, সর্দি কলা, আপেল কমলা, মালটা স্যালাইন ও ভুসি খাওয়াই। আমি যে জিনিসগুলো আমি খাই না, সেগুলো তাকে খাওয়ানো হয়।

ঈদ উপলক্ষে জেলার চরাঞ্চলের অনেকেই গবাদি পশুর পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছেন। আর প্রাণিসম্পদ বিভাগের কর্মকর্তারাও খামারীদের দিচ্ছেন নানা পরামর্শ।

মানিকগঞ্জের জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. ফরহাদুল আলম বলেন, স্টেরয়েড খাওয়ানোর পর গুরুগুলো অসুস্থ হয়ে যায়। সেইগুলোকে হাটে না। চঞ্চলকা কমে যায়। কি খাবার খেলে গুরু সুস্থ থাকবে, স্বাস্থ্যবান হবে সেই ব্যাপারে তাদের সহযোগিতা দিচ্ছি।

দৌলতপুর, ঘিওর হরিরামপুরের চরাঞ্চলগুলোতেও কোরবানির ঈদ উপলক্ষে গবাদি পশু হৃষ্টপুষ্ট করা হচ্ছে। তবে নদীবেষ্টিত হওয়ায় চোর ডাকাতের আতংকে আছেন খামারিরা।


কয়েকজন খামারি জানান, ভারতের গরু না আসলে আশা করি ভাল লাভবান হতে পারব।

তবে খামারিদের নিরাপত্তা বাড়াতে এরই মধ্যে টহল বাড়ানো হয়েছে বলে জানালেন জেলা পুলিশের এই শীর্ষ কর্মকর্তা।

মানিকগঞ্জের পুলিশ সুপার রিফাত রহমান শামীম বলেন, ঈদকে সামনে রেখে যারা গুরু লালন-পালন করতেছে, তাদের গবাধিপশুকে নিরাপত্তা দিতে আমরা টহল টিম গঠন করা হয়েছে। তারা সেই অনুযায়ী কাজ করবে।

জেলা প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী এ বছর কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে মানিকগঞ্জের প্রায় ৬ হাজার খামারি ৭৫ হাজার গবাদি পশু লালন পালন করছেন।




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে