আপডেট
০৫-০৮-২০১৮, ০৩:২০
মহানগর সময়

'র‍্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে যা বললেন নওশাবা'(ভিডিও)

noshaba-rab
নিরাপদ সড়কের দাবিতে চলমান আন্দোলনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটানোই অভিনেত্রী কাজী নওশাবা আহমেদের উদ্দেশ্য ছিল বলে জানিয়েছে র‌্যাব। র‌্যাবের কাছে স্বীকারোক্তিতে নওশাবা জানান, ফেসবুক লাইভে আসার সময় তিনি ঘটনাস্থলে ছিলেন না। ঝিগাতলা নিয়ে কথা বললেও, সেসময় তিনি উত্তরায় ছিলেন বলে স্বীকার করেছেন।

র‍্যাবের মুখপাত্র মুফতি মাহমুদ খান বলেন, 'এমন ভাবে বিষয়টি উপস্থাপন করা হয়েছে যেসব শিক্ষার্থী মাঠে ছিলেন তারা শুনে মনে করেছেন আসলে এটাই হয়েছে। নওশাবা তার ফেইসবুক লাইভে বলছেন ঘটনা ঘটেছে জিগাতলায়। অথচ তিনি তখন ছিলেন উত্তরাতে একটা শুটিং স্পটে। আপনারা যদি দেখেন ভিডিওটা এমন ভাবে করা হচ্ছিল মনে হচ্ছে যে তার চোখের সামনেই এমনটা হচ্ছে। তিনি নিচের দিকে তাকাচ্ছিলেন। তার অভিব্যক্তির কারণে বিষয়টি দ্রুত ভাইরাল হয়ে যায়। তিনি স্বীকার করেছেন একজনের অনুরোধে তিনি এমনটা করেছেন।'

র‍্যাবের মুখপাত্র মুফতি মাহমুদ খান বলেন,'আমরা এটা জানার পর তাৎক্ষণিক ভাবে কাজ শুরু করি। আমাদের সব আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ঢাকাসহ সারা দেশে কাজ করছে। এই রকম কোথাও কোন ঘটনা ঘটেনি নিশ্চিত হয়েই যারা এরকম অপচেষ্টার মধ্যে জড়িত তাদের আইনের আওতায় আনার চেষ্টা করি। সেই প্রেক্ষিতেই যে ফেইসবুক আইডি থেকে এটা লাইভ হয়েছে সেটা ছিলো নওশাবা আহমেদ। '

তিনি আরও বলেন, 'নওশাবা তার ফেইসবুক লাইভে বলছেন ঘটনা ঘটেছে জিগাতলায়। অথচ তিনি তখন ছিলেন উত্তরাতে একটা শুটিং স্পটে। আপনারা যদি দেখেন ভিডিওটা এমন ভাবে করা হচ্ছিল মনে হচ্ছে যে তার চোখের সামনেই এমনটা হচ্ছে। তিনি নিচের দিকে তাকাচ্ছিলেন। তার অভিব্যক্তির কারণে বিষয়টি দ্রুত ভাইরাল হয়ে যায়।'

মুফতি মাহমুদ খান বলেন,' তাকে রাত ১০টার দিকে কার্যালয়ে নিয়ে আসা হয়। সে স্বীকার করেছে ঘটনার সময় সে ওইখানে ছিলো না। একজনের অনুরোধে সে অভিনয় করে এই লাইভ স্ট্রিম করেছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে সে জানায়য় রুদ্র নামে একটি ছেলে দুপুরের দিকে অনুরোধ করে যে বিভিন্ন কর্মসূচী চলছে। সেই সময় যদি কোন একটি ঘটনাকে এমন ভাবা বলা হয় তাহলে সাধারণ ছাত্র-ছাত্রী যারা মাঠে আছে তারা আরোও সহিংস হয়ে উঠতে পারে।যার ফলে একটা অসৎ উদ্দেশ্য নিয়ে তাকে অনুরোধ করা হয়। '
তিনি আরও বলেন, 'সেই প্রেক্ষিতে ওই রুদ্র নামের ছেলেটি যেভাবে বলে দিয়েছিলো নওশাবা তাই করেছে। এক্ষেত্রে নওশাবাকে তারা বেছে নেই কারণ, নওশাবা অভিনয়ের সঙ্গে জড়িত। তিনি যদি এমন অভিব্যক্তি দেখায় তাহলে বিষয় আসলেই হয়েছে বলে মনে হবে। রুদ্র নামের ছেলেটির সঙ্গে তার পরিচয় হয় ৩ তারিখে শাহবাগে। নওশাবা আহমেদ নিজেও যেহেতু এই কর্মসূচীর সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করে সেহেতু শাহবাগে সে নিজেও গিয়েছিলো। রুদ্র একটি স্কুলের অধ্যয়নরত। পরে তার সঙ্গে নওশাবার যোগাযোগ ছিলো সব সময়।'

 মুফতি মাহমুদ খান বলেন,' এবং তারই প্রেক্ষিতে যে ঘটনা একদম ঘটেনি সেই ঘটনাটি সুন্দরভাবে অভিনয় করে উপস্থাপন করেছিলেন নওশাবা। এই বিষয়ে আমরা আরও তদন্ত করবো। যেটুকু জেনেছি মূল বিষয়টি তা উপস্থাপন করা হলো। আরও কারা কারা জড়িত তা নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তবে এইটুকু বলতে চাই যারাই এইধরনের অপপ্রচার চালাবে তাদেরকেই আইনের আওতায় আনা হবে। এছাড়া সাধারণ শিক্ষার্থীরা যারা এই আন্দোলনে আছেন তাদের অনুরোধ করবো এই সব প্রোপাগান্ডায় কান না দেয়ার জন্যে।'





DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে