সোহাগ অালী
আপডেট
১২-০৭-২০১৮, ২৩:৩১

অন্ধ হয়েও ঢাবির শিক্ষার্থী তৃষ্ণা

ondho-trisna-somoy
অদম্য ইচ্ছাশক্তির বলে কোনো বাধাই দমিয়ে রাখতে পারেনি ঝিনাইদহের দৃষ্টি প্রতিবন্ধী সাদিয়া আফরিন তৃষ্ণাকে। জীবন সংগ্রামের কয়েক ধাপ পেরিয়ে তিনি এখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। উচ্চ শিক্ষিত হয়ে সমাজের জন্য নিজেকে মেলে ধরতে চান এই সংগ্রামী। এজন্য সরকার ও সমাজের বিত্তবানদের সহায়তা চেয়েছেন দরিদ্র বাবা-মা। তৃষ্ণার স্বপ্ন পূরণে সব ধরণের সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন জেলা প্রশাসক।
সাদিয়া আফরিন তৃষ্ণা। ঝিনাইদহের শৈলকূপা উপজেলার ব্রাহিমপুরের নাইট গার্ড মিজানুর রহমানের সন্তান। ২০০৭ সালে মাধ্যমিক পরীক্ষা দেয়ার আগে চোখে ঝাপসা দেখা শুরু করেন। এরপর কয়েক ধাপে চিকিৎসা করেও তার দৃষ্টিশক্তি ফেরানো সম্ভব হয়নি।

তবে, অদম্য ইচ্ছাশক্তি থাকায় মনোবল হারাননি তিনি। ধাপে ধাপে মেধার স্বাক্ষর রেখে, তৃষ্ণা এখন দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। জীবন সংগ্রামে সফল হয়ে দেশ ও সমাজের জন্য নিজেকে উৎসর্গ করার প্রবল ইচ্ছা তার। কিন্তু বাধা একটাই, দারিদ্র্যতা।

তৃষ্ণা বলেন, 'ক্লাসে শিক্ষকদের লেকচার শুনে সেটি রেকর্ড করা অনেক সমস্যা। কেউ যদি আমাকে একটা চোখ দান করতো অনেক ভালো হতো।'

তৃষ্ণার স্বাভাবিক জীবন দেখতে চান পরিবারের সদস্যরা। এজন্য, সমাজের বিত্তবানদের সহায়তা চেয়েছেন তারা।

তৃষ্ণার বোন বলেন, 'স্বাভাবিক থাকলে বড় আপার সংসার হতো।'


তৃষ্ণার বাবা বলেন, 'প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে দরখাস্ত দিয়েছিলাম চিকিৎসার জন্য।'

এ অবস্থায় তৃষ্ণার স্বপ্ন পূরণে সব ধরণের সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন ঝিনাইদহ জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ।

বাবা-মায়ের ৩ সন্তানের মধ্যে সবার বড় তৃষ্ণা।




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে