আন্তর্জাতিক সময় ডেস্ক
আপডেট
১৬-০৫-২০১৮, ১৭:৪৪
আন্তর্জাতিক সময়

কর্ণাটকে সরকার গঠন করবে কারা?

modi-vote
ভারতের কর্ণাটক রাজ্যে সরকার গঠনের জটিলতা নিরসনে এখন রাজ্যপালের সিদ্ধান্তের ওপর নির্ভর করছে দলগুলো। এককভাবে কোনো দল সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পাওয়ায় ফলাফল ঘোষণার একদিন পরও সরকার গঠন করা সম্ভব হয়নি। কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন বিজেপি বলছে, তাদের আসন সংখ্যা অন্য দলগুলোর চেয়ে বেশি হওয়ায় তারাই সরকার গঠনে এগিয়ে। অন্যদিকে, স্থানীয় দল জেডিএস-কে নিয়ে জোট বেঁধে আসন সংখ্যা বাড়িয়ে সরকার গঠনের পালে হাওয়া লাগিয়েছে কংগ্রেস। প্রস্তাব মেনে না নিলে আইনি লড়াইয়ের হুঁশিয়ারিও দিয়েছে কেন্দ্রের প্রধান এই বিরোধীদল।

 

মঙ্গলবার ভারতের দক্ষিণ-পশ্চিমের রাজ্য কর্ণাটক বিধানসভার আনুষ্ঠানিক ফল ঘোষণার পর রাস্তায় নেমে বাদ্যের তালে তালে নাচতে দেখা যায় বিজেপি নেতাকর্মী ও সমর্থকদের।

এক বিজেপি সমর্থক বলেন, ‘কর্ণাটক নির্বাচনের মধ্য দিয়ে নির্বাচনী মাঠে চূড়ান্ত হয়ে গেলো- ভারতে কোন দলের জনপ্রিয়তা এখন সব থেকে বেশি। আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, আগামী ২০১৯ সালের নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দ্বিতীয়বার সরকার গঠন করবেন।’

আরেক সমর্থক বলেন, ‘ভারতের অধিকাংশ রাজ্যই এখন বিজেপির দখলে। প্রতিটি রাজ্যের মানুষই তাদের উন্নয়নের জন্য মোদি সরকারকেই বেছে নিচ্ছে।’

বিজেপি যখন ১০৪ আসন পেয়ে জয়োউল্লাস করছে, তখন সরকার গঠনের জন্য আঞ্চলিক ‘জনতা দল সেকুলার’কে (জেডিএস) পাশে নিয়ে এক পথে চলছে কংগ্রেস। দু'দল মিলিয়ে তাদের সংগ্রহ ১১৬টি আসন। রাজ্যে সরকার গঠন করতে ১১২ আসন পেলেই চলে। ফলে জেডিএস-কংগ্রেস জোটের আসন বেশি ৪টি। কিন্তু তুলনামূলক কম আসন পেয়ে কী করে জেডিএস দল এই জোটের নেতৃত্ব দেবে তা নিয়েই বিজেপির যত প্রশ্ন। ফল ঘোষণার পর কংগ্রেসের সঙ্গে জেডিএস'র জোট গঠনের প্রধান শর্তই হচ্ছে, রাজ্যে মূল ভূমিকায় থাকতে চায় আঞ্চলিক এই দলটি।


বর্তমানে তিন থেকে চারজন স্বতন্ত্র প্রার্থী নিয়ে কর্ণাটকের রাজনীতি ঘুরপাক খাচ্ছে। কংগ্রেস জোট অভিযোগ করেছে, বিজেপি অর্থের বিনিময়ে রাজনীতিতে কেনা বেচ শুরু করেছে।

বিশ্লেষকরা বলছেন, কর্ণাটকে শেষ পর্যন্ত বিজেপি সরকার গঠন না করলেও এ রাজ্যেও তারাই জনপ্রিয়তায় এগিয়ে থাকা প্রধান দল। যা ‘অপরাজেয়’ মোদি রাজনীতির নতুন চমক। এতে অন্যান্য সব দলই দুর্বল হয়ে পড়েছে। ৩১ রাজ্যের মধ্যে ২০টি রাজ্যই এখন গেরুয়াদের দখলে। শতাংশের হিসেবে ৬৭ দশমিক ৭৪ শতাংশ দেশ গেরুয়া পতাকার তলে। দিল্লি আর কেন্দ্র শাসিত পুদুচেরি ধরে ৩১ রাজ্য সরকারের মধ্যে মাত্র ১১টিতে এখন বিজেপি ক্ষমতায় নেই। আগামীতে সেগুলো জয়েরও ছক কষছেন মোদি। যার রেশ ২০১৯ সালের জাতীয় নির্বাচনেও দেখা যাবে বলে মত বিশ্লেষকদের। 




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে