আপডেট
১৬-০৫-২০১৮, ০৫:১৯

গাজীপুর সিটি নির্বাচনে নতুন চ্যালেঞ্জের মুখে প্রার্থীরা

gcc-new
নানা শঙ্কা কাটিয়ে শেষ পর্যন্ত ফের গাজীপুর সিটি নির্বাচনে তারিখ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। মাঝখানে প্রায় দেড় মাস থাকলেও প্রার্থীরা নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে পারবেন মাত্র শেষ সাত দিন। তাই মাঝের এই র্দীঘ সময় ভোটারদের ধরে রাখতে নতুন চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে হচ্ছে প্রার্থীদের। আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মেয়র প্রার্থীরা বলেছেন, ব্যয় বাড়লেও ইফতারসহ বিভিন্ন কৌশলে তারা ভোটারদের ধরে রাখার চেষ্টা করবেন।  


খুলনার মতো ভোট উৎসবের কথা ছিলো গাজীপুরেও। পোস্টারে পোস্টারে ছেয়েছিলো নগরীর অলিগলি। তবে সীমানা জটিলতায় ভোট পিছিয়ে যাওয়ায় সেসব পোস্টারও এখন জবুস্থবু। তবে নতুন তারিখ নির্ধারণ হওয়ায় ফের আশাবাদী হয়ে উঠেছেন নানা সমস্যার মধ্যে বাস করা ভোটাররা।

ভোটাররা বলেন, 'সব ভোটারদের মধ্যে আনন্দ বিরাজ করছে ভোট দিতে পারবে বলে। এমন একটা মেয়র নির্বাচিত হোক যিনি রাস্তাঘাট উন্নয়ন করবে।'

নির্বাচনের বাকি আছে এখনো প্রায় দেড় মাস। এর মধ্যে আছে পবিত্র রমজানও। এই দীর্ঘ সময় কিভাবে রাজনীতির মাঠ ও ভোটারদের ধরে রাখবেন, তা নিয়ে বেশ চিন্তিত প্রার্থীরা। দু'দলেরই মেয়র প্রার্থী বলছেন, আচরণ বিধি মেনে কৌশলে তারা প্রচারণা শুরুর আগ পর্যন্ত মাঠে সক্রিয় থাকবেন।

আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম বলেন, 'প্রতিটি পাড়া-মহল্লায় আমি ইফতারির আয়োজন করি। সামনে যেহুত নির্বাচন তাই আগেও মতো নিয়ম চলমান থাকবে। তবে আরো ব্যাপকভাবে এই কার্যক্রম চালাবো।'

বিএনপির মেয়র প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার বলেন, 'বাংলাদেশের একটি সংস্কৃতি রমজানে মানুষকে ইফতারি খাওয়ানো। আমি এই এলাকার নাগরিক। আমি সবাইকে দাওয়াত দিতে পারি। আমরা উপস্থিতি সেখানে কোনো অপরাধ নয়। আমি এলাকাতে চলাফেরা করবো, যাবো এটাই তো কৌশল।'


নতুন তারিখ ঘোষণার কারণে নির্বাচনী খরচ বেড়ে গেলেও তা নিয়ে আপাতত ভাবতে চান না প্রধান দুই মেয়র প্রার্থী। নির্বাচনে জয় নিয়েই এখন তাদের সব ভাবনা।




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে