আন্তর্জাতিক সময় ডেস্ক
আপডেট
১৩-০২-২০১৮, ১৭:৩৬

পুতিন-আব্বাস বৈঠক, যুক্তরাষ্ট্রকে আর মধ্যস্থতাকারী মানবে না ফিলিস্তিন

pal
পশ্চিম তীরের অধিকৃত এলাকায় স্থাপন করা ইহুদি বসতি এলাকাগুলোকে স্থায়ীভাবে ইসরাইলের অংশ হিসেবে ঘোষণা করার বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনা চলছে বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বিনইয়ামিন নেতানিয়াহু। যদিও যুক্তরাষ্ট্র জানিয়েছে নেতানিয়াহুর এ-বক্তব্যে কোন সত্যতা নোই। এদিকে ইসরাইলের সঙ্গে শান্তি আলোচনার জন্য ফিলিস্তিনিরা কোনভাবেই যুক্তরাষ্ট্রকে মধ্যস্থতাকারী হিসেবে মেনে নেবে না বলে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে জানিয়েছেন ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস।

জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ঘোষণার পর চরম উত্তেজনার মধ্যেই রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে দেখা করলেন ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস। ট্রাম্পের এ সিদ্ধান্তকে ফিলিস্তিনিদের ওপর চপেটাঘাত বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এসময় পুতিন বলেন, সম্প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে তার ফোনালাপ হয়। সেখানে তাদের মধ্যে ইসরাইল-ফিলিস্তিন ইস্যুতে আলোচনা হয়েছে বলে উল্লেখ করেন তিনি। আব্বাস জানান, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে দেশটির সম্পর্কসহ ফিলিস্তিনের উদ্বেগজনক সব ইস্যু নিয়ে তিনি আলোচনায় আগ্রহী।

আব্বাস বলেন, 'যুক্তরাষ্ট্রের কারণে যে পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে, সেজন্য শান্তি আলোচনায় মধ্যস্থতাকারী হিসেবে কোনভাবেই দেশটিকে আমরা মেনে নেব না। যদি আন্তর্জাতিক সম্মেলন হয়, সেখানে এককভাবে যুক্তরাষ্ট্র প্রধান মধ্যস্থতাকারী হিসেবে থাকবে না, মধ্যস্থতাকারী দলের অংশ হিসেবে থাকতে পারে তারা।'

একইদিন ইসরাইলি আইন প্রণেতাদের সঙ্গে এক বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু জানান অবরুদ্ধ পশ্চিম তীরের ইহুদি বসতিকে ইসরাইলের অংশ হিসেবে স্থায়ীভাবে ঘোষণা করার বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনা চলছে। তবে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে নেতানিয়াহুর এ দাবি অস্বীকার করে বলা হয় এ দাবি পুরোপুরি অসত্য। হোয়াইট হাউস জানায় এমন কোন আলোচনা হচ্ছে না বরং এখনও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের লক্ষ্য শান্তিপূর্ণ উপায়ে আলোচনার মাধ্যমে ইসরাইল-ফিলিস্তিনের মধ্যে সমস্যার সমাধান করা।

তবে সত্য মিথ্যা যাই হোক, নেতানিয়াহুর পরিকল্পনার নিন্দা জানিয়ে প্যালেস্টাইন লিবারেশন অর্গানাইজেশনের নির্বাহী কমিটির এক সদস্য ওয়াসেল আবু ইউসুফ অভিযোগ করেন, যুক্তরাষ্ট্রও ইসরাইলের সঙ্গে মিলে ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে।

তিনি বলেন, 'অধিকৃত এলাকায় ইহুদি বসতি স্থাপন আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী অবৈধ। অথচ তাই তারা করে চলেছে। আসলে তাদের উদ্দেশ্য অবরুদ্ধ এলাকাগুলো থেকে ফিলিস্তিনিদের তাড়ানো। আর এতে যুক্তরাষ্ট্র ইসরাইলের অংশীদার হয়ে উঠেছে। এসব বন্ধ করতে হবে, ইসরাইলকে তার পরিকল্পনায় সফল হতে দেয়া যাবে না।'

এদিকে, ইসরাইলি সেনাকে ঘুষি মারার দায়ে আদালতে বন্দি, ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী কিশোরী আহেদ তামিমির শুনানি মঙ্গলবার। তবে তার ন্যায় বিচারের ব্যাপারে হতাশা জানিয়েছে পরিবার। তারা মনে করেন ইসরাইলের আদালত তামিমিকে অযথাই কঠোর সাজা দেবে। অবরুদ্ধ পশ্চিম তীরে তাদের বাড়িতে ইসরাইলি সেনারা জোর করে প্রবেশ করতে চাইলে এক সেনাকে ঘুষি মারে তামিমি।




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে