শ্রীনিবাসনের সমালোচনায় ক্রিকেট সংশ্লিষ্টরা

Update: 2015-03-31 00:42:41, Published: 2015-03-31 00:42:41
kamal-reax-e


গঠনতন্ত্র ভেঙ্গে বিশ্বকাপের ফাইনালে আইসিসি'র সভাপতি মুস্তফা কামালের বদলে, চেয়ারম্যান শ্রীনিবাসন চ্যাম্পিয়ন দলের কাছে ট্রফি বিতরণে দেশ বিদেশের গণমাধ্যমগুলোতে সমালোচনার ঝড় বইছে। আর আইপিএল-এ ফিক্সিং বিতর্কে জড়িত এন শ্রীনিবাসনের এমন আচরণে নিন্দা জানিয়েছেন দেশের ক্রিকেট সংশ্লিষ্টরা।

আইসিসি'র গঠনতন্ত্রে বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন দলের হাতে শিরোপা তুলে দেবেন সভাপতি। এমনটাই ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থার আইনে থাকলেও, মেলবোর্নে সেই সংবিধান ভেঙ্গে চ্যাম্পিয়ন দলের হাতে শিরোপা তুলে দেন সংস্থাটির চেয়ারম্যান এন শ্রীনিবাসন। যার জন্য মাঠেই তাকে শুনতে হয় দুয়োধ্বনি।

এরপর দেশীয় ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে বিষয়টি নিয়ে খবর প্রচারিত হয়। ভারতীয় একটি পত্রিকা দাবি করেছে ট্রফি কে দিবে তা নিয়ে ফাইনালের আগের দিন এক রকম বাক-বিতণ্ডাও হয় আইসিসি'র এই দুই শীর্ষ কর্তার। তবে, আইসিসি'র এমন আচরণে সংস্থাটির তীব্র নিন্দা জানান ক্রিকেট বিশ্লেষকরা।

বিসিবির সাবেক পরিচালক খন্দকার জামিল উদ্দিন বলেন, 'আইসিসির ইতিহাসে এটি একটি কালো অধ্যায় হিসেবে বিবেচিত হবে। এই ধরণের ন্যক্কারজনক কাজ এখন পর্যন্ত কোনো স্পোর্টসে ঘটেছে বলে আমার জানা নেই।'

আইসিসির গ্রহণযোগ্যতা কমেছে উল্লেখ করে বিসিবির আরেক সাবেক পরিচালক গাজী আশরাফ হোসেন লিপু বলেন, 'এসোসিয়েট মেম্বার যারা আছেন তারা হয়তো যথেষ্ট পেশিবলে শক্ত নয়। তারা কেউই এই ধরণের কর্মকাণ্ড সমর্থন করে বলে আমার মনে হয়না।'

আইসিসি'র চেয়ারম্যান শ্রীনিবাসন ভারতের ক্রিকেট বোর্ড থেকে এক রকম বিতাড়িত হয়েছেন। শুধু তাই না, স্পট ফিক্সিংয়েও জড়িত আছে তার নাম। আর এমন বিতর্কিত ব্যক্তির হাত থেকে মাইকেল ক্লার্ক বিশ্বকাপ ট্রফি নেয়ায়, ক্রিকেটেরই মর্যাদা হানি হয়েছে বলে মনে করেন ক্রিকেট সংগঠকরা। একই সঙ্গে আইসিসি থেকে এমন দুর্নীতিগ্রস্থ ব্যক্তিদের সরানোরও দাবি করেন তারা।

এই বিষয়ে গাজী আশরাফ হোসেন লিপু বলেন, এন্টি করাপশন একটি ইউনিট আছে। তার প্রথম নজরদারি করা উচিত যে, এমন কোনো ব্যক্তি কি আছেন আইসিসিতে যিনি ইতিমধ্যেই দুর্নীতির সঙ্গে অভিযুক্ত। যদি সেটি তাদের নজরে এসে থাকে তবে তাদের ঘর থেকেই শুদ্ধি অভিযান পরিচালনা করা উচিত।'

আর খন্দকার জামিল উদ্দিন বলেন, 'ক্রিকেটের সৌন্দর্য ঠিক রাখতে হলে আইসিসি থেকে এই ধরণের করাপটেড ব্যক্তিকে বহিষ্কার করতে হবে। খেলার মাঠে খেলা না হয়ে টেবিলে খেলা হলে আপনি কোনো ভালো কিছু অনুপ্রেরণা লাভ করবেন না।'  

ক্রিকেটকে কলঙ্কমুক্ত এবং ভদ্রলোকের এই খেলাটির স্পিরিট ধরে রাখতে আইসিসি'র আরও নিরপেক্ষ ও স্বচ্ছ হওয়া উচিত বলেও মন্তব্য করেন এই ক্রিকেট সংগঠকরা।

Update: 2015-03-31 00:42:41, Published: 2015-03-31 00:42:41

আপনার মন্তব্য লিখুন

পাঠকের মন্তব্য ( )


More News
  


আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ



সরাসরি যোগাযোগ

৮৯, বীর উত্তম সি. আর. দত্ত রোড, ঢাকা ১২০৫, বাংলাদেশ।
ফ্যাক্স: +৮৮০২ ৯৬৭০০৫৭, ইমেইল: info@somoynews.tv
উপরে en.Somoynews.tv