• সদ্যপ্রাপ্তমৌলভীবাজারের বড়হাট ও ফতেহপুরে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে দুইটি বাড়ি ঘিরে রেখেছে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট। ফতেহপুর এলাকার আশেপাশে গুলির শব্দ

শেষ সময়ে বই বিক্রিতে প্রকাশকরা খুশি

Update: 2015-02-24 21:55:04, Published: 2015-02-24 21:40:00
boook
একুশে বইমেলার ২৪তম দিন আজ। মঙ্গলবার মেলায় ৮৩টি নতুন বই প্রকাশিত হয়েছে। এছাড়াও নজরুল মঞ্চে মোড়ক উন্মোচন হয়েছে ৫টি নতুন বইয়ের। বিকেল থেকে মেলায় দর্শনার্থীরা প্রবেশ করতে শুরু করেন। অন্য দিনের তুলনায় আজও মেলায় যথেষ্ঠ পাঠক-সমাগম ঘটে।

সন্ধ্যার সাথে সাথে বাড়তে থাকে ভিড়ও। শেষ দিকে দর্শনার্থীর তুলনায় ক্রেতা সংখ্যাও বেশ বৃদ্ধি পাচ্ছে। জোটবদ্ধভাবে পাঠকরা আসছেন বইয়ের টানে। আশানুরূপ বই বিক্রি করতে পেরে প্রকাশকরাও খুশি।

মেলার সিদ্দিকীয়া প্রকাশনীর সত্তাধিকারী মালেক মাহমুদ বলেন, 'অন্যদিনের তুলনায় বেশ বই বিক্রি হচ্ছে। শিশুদের বইয়ের কাটতি তুলনামূলক বেশি। এছাড়া ধর্মীয় গ্রন্থেরও বিক্রি বেড়েছে।'

মেলায় আসা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ইয়াসিন আরাফাত জানান, 'অন্যকিছুর মতো বইকেনা তার শখ। ক্ল্যাসিক্যাল লেখকদের বই তার বেশি পছন্দ। বাংলা একাডেমির স্টল থেকে তিনি কাজী নজরুল ইসলামের কবিতার বই কিনেছেন। এছাড়াও হুমায়ুন আহমেদের উপন্যাস কিনেছেন তিনি।

প্রতিদিনের মতো বিকেল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূল মঞ্চে আলোচন সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনার বিষয়- বাংলা একাডেমি প্রকাশিত ৬৪ জেলাভিত্তিক বাংলাদেশের লোকজ সংস্কৃতি গ্রন্থমালা। অনুষ্ঠানে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অধ্যাপক মাহবুবুল হক। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন- অধ্যাপক গোলাম কিবরিয়া ভূঁইয়া, ড. মুহম্মদ শহীদ উজ জামান, অধ্যাপক মির্জা তাসলিমা সুলতানা এবং অধ্যাপক মাহবুবা নাসরীন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. রণজিৎ কুমার বিশ্বাস এনডিসি।

প্রাবন্ধিক বলেন, বাংলা একাডেমি বাংলাদেশের ৬৪টি জেলার লোকজ সংস্কৃতির উপাদান সমৃদ্ধ যে গ্রন্থমালা প্রকাশ করে চলেছে তা আমাদের ফোকলোরচর্চার ইতিহাসে এক ঐতিহাসিক মাইলফলক।

সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে আবৃত্তি পরিবেশন করেন আবৃত্তিশিল্পী হাসান আরিফ এবং ড. মো. শাহাদাৎ হোসেন। এছাড়া শামীমা জেসমিনের পরিচালনায় সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন’ এবং ফয়জুল আলম পাপ্পু’র পরিচালনায় ‘প্রকাশ সাহিত্য সাংস্কৃতিক সংগঠন-এর শিল্পীদের পরিবেশনা। সংগীত পরিবেশন করেন কণ্ঠশিল্পী সরদার মো. রহমাতুল্লা, বীনা মজুমদার, সমির বাউল, সাধনা মিত্র প্রমুখ।

সব মিলিয়ে গ্রন্থমেলার শেষ দিকে বইয়ের ক্রেতা যেমন বেড়েছে তেমনি বাড়ছে দর্শনার্থীর উপস্থিতিও। তবে প্রথম দিকে কিছুটা লোকসমাগম কম থাকায় প্রকাশনীর মালিকরা কিছুটা ক্ষতির মুখে পড়েছেন বলে জানান তারা।

Update: 2015-02-24 21:55:04, Published: 2015-02-24 21:40:00

আপনার মন্তব্য লিখুন

পাঠকের মন্তব্য ( )


More News
  


আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ



Contact Address

89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh.
Fax: +8802 9670057, Email: info@somoynews.tv
উপরে en.Somoynews.tv