আপডেট
১০-০১-২০১৭, ০৯:৩৫

রাশিয়ার সম্ভাব্য আগ্রাসন ঠেকাতে জার্মানিতে সমরাস্ত্র পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র

us-russ
রাশিয়ার সম্ভাব্য আগ্রাসন ঠেকানোর প্রস্তুতি হিসেবে জার্মানিতে বাড়তি সেনা ও সমরাস্ত্র পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের পর এটি সবচেয়ে বড় মার্কিন সমরাস্ত্র ও সেনা চালান।
জার্মানির উত্তরাঞ্চলের ব্রেমারহ্যাভেন বন্দরে শুক্রবার পুরো চালানের প্রথম অংশ আনা হয়। এর পর ধাপে ধাপে সেখানে আরও শত শত ট্যাংক, আর্মার্ড পাসোনেল ক্যারিয়ারসহ নানা ধরণের সামরিক সরঞ্জাম পাঠাবে যুক্তরাষ্ট্র।

সামরিক সরঞ্জাম ছাড়াও প্রায় ৪ হাজার মার্কিন সেনা ন্যাটো অঞ্চলের পূর্ব সীমান্তে মোতায়েনের জন্য পাঠানো হয়েছে।

ইউরোপে মার্কিন বিমানবাহিনীর প্রধান লে. জেনারেল টিম রে বলেন, 'এই প্রকল্পের জন্য আমরা বিগত দুই বছর ধরে তিন'শ মিলিয়ন ব্যয় করেছি।'

মার্কিন সামরিক বাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে সামনের দিনগুলোতে ৫০টি ব্ল্যাক হক, ২৪টি অ্যাপাচি ও ১০টি চিনুক হেলিকপ্টারসহ ১৮০০ বিমান সেনা ও এবং একটি পৃথক বিমান ব্যাটালিয়ন পাঠানো হবে।

অঞ্চলটিতে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক উপস্থিতি বৃদ্ধির বিষয়টি রাশিয়ার সাথে উত্তেজনা আরো বাড়িয়ে দেবে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।


এর মধ্যেই সদ্য পৌঁছানো সামরিক সরঞ্জাম ন্যাটোর পূর্বঞ্চলীয় দেশে পাঠানো শুরু হয়েছে। প্রথমে এসব জার্মানির ব্রেমারহেভেন রাজ্যের মধ্য দিয়ে জড়ো করা হবে পোল্যান্ডে।

তারপর পালাক্রমে মোতায়েন করা হবে সাতটি দেশে। আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই শেষ করা হবে সাজ-সরঞ্জাম স্থানান্তরের এই কাজ।

ইউরোপে মোতায়েন এই মার্কিন বাহিনীর সদর দপ্তর থাকবে জার্মানিতে। ইউরোপে রুশ হুমকি মোকাবেলায় মার্কিন প্রতিশ্রুতি রূপায়নের নতুন ধাপ হিসেবে দেখা হচ্ছে একে।

তবে ব্রাডেনবুর্গ রাজ্যের বামপন্থি সরকারের নেতারা বিষয়টি নিয়ে রাশিয়ার সাথে আলোচনা করার কথা বলেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের পাশাপাশি ন্যাটোভুক্ত অন্য দেশগুলো পুর্ব-ইউরোপে সেনা উপস্থিতি বাড়াচ্ছে। এসব ছোট দেশগুলো আশঙ্কা করছে রাশিয়া যেকোন সময় হানা দিতে পারে সেখানে।




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে