আপডেট
২৩-১২-২০১৬, ০১:২২

যুক্তরাষ্ট্রে প্রবাসী মুসলিমদের সতর্ক থাকার পরামর্শ

usa-trump-1
জার্মানি ও সুইজারল্যান্ডে সন্ত্রাসী হামলার প্রতিক্রিয়ায় নব-নির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে মুসলমানদের প্রবেশ এবং নিবন্ধন বাধ্যতামূলক করার সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হবে। ফ্লোরিডায় তার সামরিক উপদেষ্টাদের সঙ্গে বৈঠকের পর গণমাধ্যমে এ কথা বলেন তিনি। তার এ-বক্তব্যের পর উৎকণ্ঠায় প্রবাসী বাঙালিদের অনেকেই দেশে ফেরার কথা ভাবছেন।
নির্বাচনী প্রচারণা চালানোয় ডোনাল্ড ট্রাম্প একাধিকবার বলেছেন, নির্বাচিত হলে যুক্তরাষ্ট্রকে ইসলামি উগ্রবাদীদের সন্ত্রাসী কার্যক্রম থেকে মুক্ত করতে মুসলমানদের প্রবেশের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করবেন তিনি। পরে মুসলমানদের আলাদা করে নিবন্ধনের কথাও বলেন তিনি। এসব বক্তব্যের কারণে দেশে বিদেশে ব্যাপক সমালোচিত হন ট্রাম্প। বার্লিন ও সুইজারল্যান্ডে সোম ও মঙ্গলবারের হামলার পর তিনি বললেন, এসব হামলা প্রমাণ করে মুসলমানদের সম্পর্কে তার সিদ্ধান্ত ঠিক।

ট্রাম্পের এমন বক্তব্যে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী কাগজ পত্রহীন অভিবাসীদের মধ্যে আতঙ্ক ও হতাশা দেখা দিয়েছে। অনেকেই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব দেশে ফিরে আসার কথা ভাবতে শুরু করেছেন। বলে জানান অপরাধ বিষয়ক এবং ইমিগ্রেশন ও ডিপোর্টেশন ডিফেন্স এটর্নী নাজমুল আলম।

যুক্তরাষ্ট্রের যে কোন জনগোষ্ঠীকে নিবন্ধনের আওতায় আনার ক্ষমতা দিয়ে ১৯৫০-এর দশকে একটি আইন পাশ করে কংগ্রেস। সেই আইন বলে ২০০১ সালের টুইন টাওয়ার হামলার পর বিভিন্ন দেশের নাগরিকদের নিবন্ধনের আওতায় আনা হয়। সেসময় প্রায় দু'লাখ বিদেশীর নাম নিবন্ধন করা হয়। তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক বাংলাদেশীসহ প্রায় ১৪ হাজার জনকে বহিষ্কার করা হয়। গ্রেপ্তার করে কারাগারে নেওয়া হয় ১ হাজারের বেশী অভিবাসীকে।




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে