মুক্তিযুদ্ধের বইয়ের প্রতি বাড়ছে তরুণ প্রজন্মের আগ্রহ

Update: 2016-02-23 08:00:10, Published: 2016-02-23 08:00:10
war-book


১৯৯২ সালের ২৬ মার্চ। গণআদালতে একাত্তরের যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের রায় কার্যকরের জন্য অভূতপূর্ব আলোড়ন গড়ে তুলেছিলেন শহীদ জননী জাহানারা ইমাম। যে আন্দোলন তরুণ প্রজন্মের মাঝে মুক্তিযুদ্ধের অহংকারকে নতুন করে জাগ্রত করে। এরপর থেকেই মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক বইয়ের প্রতি লেখক আর প্রকাশকদের আগ্রহ বাড়ায় এবারো বইমেলায়ও এসেছে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক বই।

গল্পটা ২৬শে মার্চ ১৯৯২ এর। আজকের গণজাগরণের মত সেদিনও হয়েছিলো এক গণআন্দোলন। সমবেত লক্ষ লক্ষ মানুষের পক্ষ থেকে গণআদালতের রায় কার্যকরের জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানান শহীদ জননী জাহানারা ইমাম। সেই থেকে মুক্তিযুদ্ধের প্রতি তরুণ প্রজন্মের যেমন সৃষ্টি হয়েছিলো আগ্রহ তেমনি মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক বইয়ের প্রতি লেখক, প্রকাশক আর পাঠকদেরও তৈরি হয়েছে আকর্ষণ।

একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির জরিপ অনুযায়ী ১৯৭১ থেকে ৯১ সাল পর্যন্ত বিশ বছরে মুক্তিযুদ্ধের উপর "স্বাধীনতা যুদ্ধের ১৫ খণ্ড দলিলপত্র" সহ গল্প, উপন্যাস, প্রবন্ধ কিংবা গবেষণাভিত্তিক বই বের হয়েছিলো মাত্র সাড়ে তিনশর মত। ১৯৭৫ এর পর থেকে স্বাধীনতাবিরোধী পাকিস্তানপন্থীদের ক্ষমতায় থাকার কারণেই বই এর সংখ্যা এতো কম ছিলো বলে মনে করছেন গবেষকরা।

গবেষক শাহরিয়ার কবির বলেন, 'পাঠ্যপুস্তকে এবং গণমাধ্যমে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী বলা যাবে না, শুধু হানাদার বলতে হবে। ভারতীয় মিত্রবাহিনী বলা যাবে না, শুধু মিত্রবাহিনী বলতে হবে। এগুলো পাঠ্যপুস্তক থেকে মুছে ফেলা হয়েছিল।'

তবে পরবর্তী ২০ বছরে অর্থাৎ ১৯৯২ থেকে ২০০২ সাল পর্যন্ত এর সংখ্যা ছাড়িয়েছে সাড়ে ৩ হাজারেরও বেশি। এতো বছর পর কোন আবেগে মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে লিখছেন কিংবা বই কিনছেন এমন প্রশ্ন ছিলো লেখক আর পাঠকদের প্রতি। তারা বলছেন হাজার বছরের সবচেয়ে বড় এ অর্জনকে ধরে রেখেই এগিয়ে যাবে আজকের বাংলাদেশ।

বাঙ্গালি জাতির সবচেয়ে বড় অর্জন, মুক্তিযুদ্ধ। যে অহংকারকে ধরে রেখে বইমেলায় আসছেন তরুণ প্রজন্ম। সংগ্রহ করছেন মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক বই। আর এক্ষেত্রে তথ্য আর বস্তুনিষ্ঠটার উপর সমন্বয় রেখে বই লেখার উপর গুরুত্বারোপের কথা বললেন গবেষকরা।




Update: 2016-02-23 08:00:10, Published: 2016-02-23 08:00:10

আপনার মন্তব্য লিখুন

পাঠকের মন্তব্য ( )


More News
  


আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ



সরাসরি যোগাযোগ

৮৯, বীর উত্তম সি. আর. দত্ত রোড, ঢাকা ১২০৫, বাংলাদেশ।
ফ্যাক্স: +৮৮০২ ৯৬৭০০৫৭, ইমেইল: info@somoynews.tv
উপরে en.Somoynews.tv