আপডেট
২৯-০৩-২০১৫, ০১:২২

বিশ্বকাপ ফাইনাল: অজিদের চোখে ৫ম শিরোপার বর্ণিল স্বপ্ন

aus-world-cup
শিরোপা জয়ের বিচারে বিশ্বকাপ ইতিহাসের এখন পর্যন্ত সেরা দল অস্ট্রেলিয়া। ১১টি বিশ্বকাপের ছয়টিতেই ফাইনালে খেলা অজিরা এখন পর্যন্ত জিতেছে চারটি বিশ্বকাপ শিরোপা।
বিশ্বকাপ ইতিহাসটা অস্ট্রেলিয়ানদের জন্য বেশ বর্ণিলই। যদিও প্রথমবার ১৯৭৫'র বিশ্বকাপে অংশ নিয়ে খালি হাতেই ফিরতে হয়েছিল ইয়ান চ্যাপেলদের।

তারপরও ছয়টি বিশ্বকাপ ফাইনালে অংশ নিয়ে চারটিই নিজেদের করে নিয়ে এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে অজিরা। যার পেছনে চির অম্লান হয়ে আছেন স্যার অ্যালেন বোর্ডার, স্টিভ ওয়াহ আর রিকি পন্টিংয়ের মত গ্রেটরা।

শুরুটা ১৯৮৭'র বিশ্বকাপ দিয়ে। গ্রাহাম গুচ আর রবিনসনের ইংল্যান্ডের কাছে খানিকটা নড়বড়েই ছিল স্যার অ্যালেন বোর্ডারের অস্ট্রেলিয়া। তবে ইডেন গার্ডেনের সেই ফাইনালে ক্রিকেট বিশ্বকে চমকে দিয়ে ডেভিড বুন আর তরুণ ওয়াহরা সেদিন ইতিহাসের শেষ সাদা-কালো ট্রফিটাই শুধু জেতেনি, শুরু করেছিল গ্রেট ক্রিকেটারদের বিদায়ের নতুন এক অধ্যায়।

এর পরই রঙ্গিন বিশ্বকাপ দেখে ক্রিকেট দুনিয়া। কিন্তু সে ট্রফি স্পর্শ করতে ক্যাঙ্গারুদের অপেক্ষা করতে হয় বিশ্ব ক্রিকেটের তিনটি আসর। ওয়াহ ব্রাদার, শেন ওয়ার্ন আর মাইকেল বেভানদের মত গ্রেট ক্রিকেটাররা দলে থাকা সত্বেও, ৯৬'র সেই বিশ্বকাপে লঙ্কানদের কাছে হেরে খালি হাতেই ফিরতে হয়েছিলো অজিদের।

এর পরই মূলত শুরু হয় অস্ট্রেলিয়ানদের গৌরব গাথা অধ্যায়। ৮৭'র বিশ্বকাপে শিরোপা উপহার দিয়ে গ্রেটদের বিদায়ের যে নজির স্থাপন করেছিল অজিরা, তা অব্যাহত থাকে ৯৯'র বিশ্বকাপেও। লর্ডসের সেই ফাইনালে সাইদ আনোয়ার এবং ওয়াসিম আকরামদের নিয়ে গড়া পাকিস্তানের অন্যতম সেরা এই দলটিকে ৮ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে দ্বিতীয়বারের মত শিরোপা জয়ের উল্লাসে মাতে বিদায় নেয়া ওয়াহ ব্রাদারের অস্ট্রেলিয়া।


গিলক্রিস্ট, হেইডেন আর ম্যাকগ্রাদের নিয়ে গড়া ২০০৩ বিশ্বকাপের এই দলটিকে বলা হয়ে থাকে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার অন্যতম সেরা দল। যার প্রতিদান দিতে এবারও খুব বেশি একটা কাঠ খড় পোড়াতে হয়নি সায়মন্ডস, ব্রেটলিদের। জোহানেসবার্গের ওয়ান্ডারার্স স্টেডিয়ামে সৌরভ গাঙ্গুলির টিম ইন্ডিয়াকে খুব সহজেই হারিয়ে তৃতীয় বারের মত বিশ্ব সেরার মুকুট পড়ে রিকি পন্টিংয়ের অস্ট্রেলিয়া।

লঙ্কানদের বিপক্ষে ২০০৭ বিশ্বকাপের ফাইনালটা অজিদের জন্য ছিল প্রতিশোধের। যে কাজটি মোটামুটি এক হাতেই সেরেছিলেন অ্যাডাম গিলক্রিস্ট। ফাইনালে ১২৯ বলে গিলির করা ১৪৯ রানের ইনিংসটিতে শুধু হতাশাই ছিল মুরালিধরন আর মালিঙ্গাদের।

গ্রেটদের বিদায়ে বিশ্বকাপ উপহারের যে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে অস্ট্রেলিয়া, সেটি যদি অব্যাহত থাকে, তাহলে বলা যেতেই পারে রঙ্গিন জার্সি তুলে রাখার উপলক্ষটা অজি অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্কের জন্য বর্ণিলই হতে যাচ্ছে।




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে