'বাজেটে অর্থের সংস্থান নয়, প্রকল্প বাস্তবায়নই মূল চ্যালেঞ্জ'

Update: 2016-06-02 08:49:06, Published: 2016-06-02 08:49:07
untitled-2


অর্থনৈতিক অগ্রগতির সঙ্গে সঙ্গতি রেখে বাড়ছে বাজেটের আকার। দুই অংকের অর্থনীতি অর্জনে এই আকার বৃদ্ধি খুবই স্বাভাবিক বলে মত অর্থনীতিবিদদের। তাদের মতে, অর্থের সংস্থান নয়, বরং প্রকল্প বাস্তবায়নই মূল চ্যালেঞ্জ।

তাই বরাদ্দের আগে পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নের সমন্বয় করার পরামর্শ তাদের। সেই সঙ্গে রাজস্ব আদায় লক্ষ্যমাত্রা অর্জন ও বিনিয়োগ পরিবেশ নিশ্চিত করা সরকারের জন্য গুরুত্বপূর্ণ বলেও মনে করেন তারা।

উচ্চ অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি যখন একান্ত চাওয়া তখন জাতীয় বাজেটের আকার বাড়বে এটাই স্বাভাবিক। সেই লক্ষ্য ও ধারাবাহিকতায় এবারও বাড়ছে বাজেটের আকার।

বিভিন্ন সূত্রের খবর, অর্থ মন্ত্রণালয় ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেট চূড়ান্ত করেছে ৩ লাখ ৪৪ হাজার ৬ কোটি টাকা। যা চলতি অর্থবছরের বাজেটের চেয়ে প্রায় ৪৫ হাজার কোটি টাকা বেশি।

অর্থনীতিবিদরা বলছেন, বাজেটের আকার কতটা বড় বা ছোট তা গুরুত্বপূর্ণ নয়, সমস্যা নয় অর্থের যোগানও। তার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ বাস্তবায়ন। পরিসংখ্যান বলছে, ২০১৪ সালে নেয়া প্রকল্পগুলো সময় মতো শেষ হয়েছে মাত্র ১৪ শতাংশ। বাকি ৮৬ শতাংশ প্রকল্পের কাজ সময় মতো যেমন শেষ হয়নি তেমনি বরাদ্দকৃত অর্থও পরে বাড়াতে হয়েছে।

এমনকি চলতি অর্থবছরের প্রথম ৯ মাসে বাস্তবায়ন হয়েছে সংশোধিত বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির মাত্র ৪১ শতাংশ। তাই তাদের মতে শুধু অর্থ বরাদ্দ বাড়ানো নয়, এবারের বাজেটের মূল চ্যালেঞ্জ অর্থ খরচের সক্ষমতা।

সিপিডি অর্থনীতিবিদ তৌফিকুল ইসলাম বলেন, 'একটু উচ্চাভিলাষী হলে সমস্যা নেই। তবে ব্যয়ের কাঠামোটাও সামঞ্জস্য করা উচিত যাতে প্রশাসনিক সক্ষমতা অনুযায়ী ব্যায় করা যায়।'

বিআইডিএস অর্থনীতিবিদ ড. জুলফিকার আলী বলেন, 'এখানে মূল চ্যালেঞ্জ হচ্ছে যথাযথ মান বজায়  রেখে তা বাস্তবায়ন করা।'


এদিকে চলতি অর্থ-বছরের রাজস্ব আদায় খুব সন্তোষজনক নয়। মোট লক্ষ্যমাত্রা ২ লাখ ৮ হাজার কোটি টাকার বিপরীতে অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে আদায় হয়েছে ৩৭ শতাংশ।

অথচ আসছে বাজেটে রাজস্ব আদায় লক্ষ্যমাত্রা বাড়িয়ে ধরা হয়েছে ২ লাখ ৪২ হাজার ৭৫২ কোটি টাকা। তাই নজর দিতে হবে আয়ের দিকেও।

অর্থনীতিবিদ সিপিডি তৌফিকুল ইসলাম বলেন, 'কর কাঠামোতে বড় ধরণের পরিবর্তন আনা না গেলে এ ধরণের উচ্চাভিলাষী বাজেট বাস্তবায়ন করা কঠিন হবে।'

বিআইডিএস অর্থনীতিবিদ ড. জুলফিকার আলী বলেন, 'আমাদের বড় চ্যালেঞ্জ হবে ট্যাক্স কিভাবে বাড়ানো যায় সেটি।'

সেই সঙ্গে অর্থ পাচার দুর্নীতি ও রাজনৈতিক অনিশ্চয়তা নিয়ন্ত্রণে রেখে বিনিয়োগ পরিস্থিতির উন্নতিও চ্যালেঞ্জ বলেও মনে করছেন তারা।

Update: 2016-06-02 08:49:06, Published: 2016-06-02 08:49:07

আপনার মন্তব্য লিখুন

পাঠকের মন্তব্য ( )


More News
  


আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ



সরাসরি যোগাযোগ

৮৯, বীর উত্তম সি. আর. দত্ত রোড, ঢাকা ১২০৫, বাংলাদেশ।
ফ্যাক্স: +৮৮০২ ৯৬৭০০৫৭, ইমেইল: info@somoynews.tv
উপরে en.Somoynews.tv