আপডেট
০৭-০১-২০১৫, ০৮:৫১

বলিউডের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাওয়া ১০ নায়িকা

বলিউডের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাওয়া ১০ নায়িকা
বিশ্ববাজারে এখন বলিউডি সিনেমার জনপ্রিয়তা হলিউডের চাইতে কোন অংশেই কম নয়। দিন দিন আন্তর্জাতিক বাজারে বাড়ছে হিন্দি সিনেমার দখল।
নাচে গানে ভরপুর হিন্দি সিনেমার গ্ল্যামারাস নায়িকারা হলেও নায়কদের তুলনায় তাদের আয়ের অঙ্কটা বেশ নিচের দিকেই। যদিও আজকাল নিজেদের জোরেই সিনেমার নাম হিটের খাতায় লেখাতে পারেন বেশ কিছু নায়িকা। দেখে নেয়া যাক বলিউডের শীর্ষ দশ অভিনেত্রী কত আয় করে থাকেন।

দিপিকা পাড়ুকোন: গত এক বছরের হিসেব দেখলে চোখ বন্ধ করেই বলে দেয়া যাবে, ‘বক্স অফিস কুইন’ হলেন দিপিকাপাড়ুকোন। ফিল্মি জগতে দিপিকার আগমন নতুন নয়, কিন্তু ‘ককটেইল’ মুক্তি পাবার আগ পর্যন্ত যেন আড়ালেইছিলেন তিনি।

এরপর শুধুমাত্র ২০১৩ সালে দিপিকা উপহার দিয়েছেন চার চারটি হিট সিনেমা আর প্রত্যেকটিই আয় করেছে ১০০ কোটির উপরে । ‘রেইস টু’ দিয়ে শুরু, বক্স অফিস সাফল্যের এই ঊর্ধ্বগতি অক্ষুন্ন ছিল ‘রামলীলা’ পযর্ন্ত। এরই মাঝে মুক্তি পেয়েছে দীপিকা অভিনীত ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’, যা নাম লিখিয়েছে সর্বকালের সেরা ব্যবসাসফল সিনেমার রেকর্ডের খাতায়।

বক্স অফিসের এই রানি এখন সিনেমাপ্রতি পাচ্ছেন ৮ থেকে ৯ কোটি রুপি।

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া: কেবল ভারতেই নয় আন্তর্জাতিক বিনোদন অঙ্গনেও পরিচিত নাম প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। ‘ডন টু’ থেকেশুরু করে ‘অগ্নিপথ’, গত দুই বছরে পিসির ঝুলিতে সাফল্যের সংখ্যাই জমেছে বেশি। ‘বারফি!’তে অভিনয়করেও পেয়েছেন ব্যাপক প্রশংসা।


অভিনয়ের পাশাপাশি সংগীত ক্যারিয়ার নিয়েও ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন পিগি চপস। পারিশ্রমিক হিসেবে তিনিপাচ্ছেন ৭ থেকে ৯ কোটি রুপি।

ক্যাটরিনা কাইফ: ব্রিটিশ-ভারতীয় এই সুন্দরীর অভিনয় গুণ নিয়ে সংশয় থাকতেই পারে, কিন্তু জনপ্রিয়তার কোনো কমতি নেই ক্যাটরিনার। ২০১২ সালে ক্যাটরিনা অভিনীত ‘এক থা টাইগার’ এবং ‘যাব তাক হ্যায় জান’ দুটি সিনেমাইসাফল্যের মুখ দেখেছে। এরই ফাঁকে ‘চিকনি চামেলি’ গানের মাধ্যমে দর্শকের মনে পাকা আসন গড়েছেন তিনি।

এরপর ২০১৩ সালের পুরোটা সময় অপেক্ষা করতে হয়েছে ক্যাট ভক্তদের। অবশেষে ‘ধুম থ্রি’র মাধ্যমেবাজিমাত করেছেন এই অভিনেত্রী।

তবে ক্যাটের মূল আয়টা কিন্তু হয় বিজ্ঞাপন থেকেই। এক সময়ের মডেল ক্যাট এখনও বিজ্ঞাপন জগতের প্রিয় মুখ। এছাড়া প্রতি সিনেমায় তিনি নিচ্ছেন ৪ থেকে ৬ কোটি রুপির মত।

কারিনা কাপুর খান: ২০১২ সালে ‘এক ম্যায় অউর এক তু’র পর এখনও সাফল্যের মুখ দেখেনি কারিনার কোন সিনেমা। বহুলপ্রতীক্ষিত সিনেমা ‘হিরোইন’ও মুখ থুবড়ে পড়েছে বক্স অফিসে। দুই বছরে শুধুমাত্র আইটেম গান দিয়েই ভক্তদেরমন ভুলিয়েছেন বেবো।

লাগাতার ফ্লপ সিনেমা উপহার দিয়েও নিজের সুপারস্টার স্ট্যাটাস বজায় রেখেছেন কারিনা। এখনও প্রতিসিনেমার জন্য পারিশ্রমিক বাবদ নিচ্ছেন ৮ থেকে ৯ কোটি রুপি।

আনুশকা শর্মা: শুরুটা ইয়াশ রাজ ফিল্মসের ব্যানারে হলেও এখন পর্যন্ত বলিউডে নিজের পাকাপোক্ত আসন করে নিতে পারছেননা আনুশকা শর্মা। ২০১৩ সালে মুক্তি পায় তার একটি মাত্র সিনেমা, ‘মাটরু কি বিজলি কা মান্ডোলা’, যা ভালোব্যবসা করতে পারেনি।

নিজেস্ব ভঙ্গি এবং সাবলীলতার জন্য বিজ্ঞাপন জগতে আনুশকার রয়েছে আলাদা চাহিদা। বরাবরই প্রথম সারির পণ্যের বিজ্ঞাপনে দেখা যায় তাকে। আর সিনেমার ক্ষেত্রে এখন তার বাজার দর ৫ থেকে ৬ কোটি রুপি।

বিপাশা বাসু: কয়েক বছর ধরে একাধারে বেশ কয়েকটি ভৌতিক সিনেমায় কাজ করেছেন বাঙালি এই সুন্দরী। তবে ‘রাজ’ সিনেমার মত সফল হতে পারেননি এর কোনটিই। কয়েকটি সিনেমায় অতিথি চরিত্রে অভিনয় করলেও পর্দায়প্রায় দেখাই যায়নি বিপাশাকে। বরং নিজের ব্যক্তিগত জীবনের কারণেই মাঝেমধ্যে সংবাদে এসেছেন তিনি।

তবে সিনেপাড়ায় তার কদর এখনও আছে বেশ, ২০১৩ সাল পর্যন্ত প্রতি সিনেমায় পাচ্ছেন ৪ থেকে ৫ কোটিরুপি।

সোনাকশি সিনহা: সোনাকশিকে বলা হয় ‘একশো কোটির নায়িকা’। ‘দাবাং’ দিয়ে শুরু, এরপর একের পর এক হিট সিনেমা উপহার দিয়েছেন শত্রুঘ্ন সিনহার কন্যা। তবে ‘লুটেরা’ আর ‘বুলেট রাজা’ বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়ায় কিছুটা থমকে গিয়েছিল তার এগিয়ে যাওয়া। বছর শেষের ‘আর…রাজকুমার’ এর মাধ্যমে কোনোভাবে রক্ষা পেয়েছেন সোনা।

প্রথমসারির অভিনেত্রীদের মধ্যে সোনাকশির সিনেমাপ্রতি আয় এখন ৩ থেকে ৫ কোটি রুপি। পাশাপাশিবিজ্ঞাপনের কাজ তো চলছেই।

কাঙ্গানা রানাওয়াত: ‘কুইন’এর খ্যাতির পর কাঙ্গানা রানাউত সত্যিকার অর্থেই তারা হয়ে উঠেছেন।

‘কৃশ থ্রি’, ‘শুটআউট অ্যাটওয়াডালা’ এবং ‘রিভলভার রানি’র জন্যও প্রশংসিত হয়েছেন।

সমালোচকদের সমর্থন এবং বক্স অফিস সাফল্য—দুইয়ে দুইয়ে চার মেলানোর পর এবার দর বেড়েছেকাঙ্গানার। আপাতত তিনি সিনেমাপ্রতি হাঁকছেন ৩ থেকে ৫ কোটি রুপি।

বিদ্যা বালান: ‘ডার্টি পিকচার’ এর পর দর্শক এবং সমালোচকদের প্রশংসা বিদ্যা বালানকে পৌঁছে দিয়েছে নতুন এক অবস্থানে। তবে সাম্প্রতিক সময়ে মুক্তি পাওয়া তার কমেডি ঘরানার সিনেমা ‘ঘনচক্কর’ এবং ‘শাদি কে সাইডইফেক্টস’কে তেমন ভালভাবে গ্রহণ করেনি দর্শক।

‘ইয়াশ রাজ ফিল্মস’ কিংবা ‘ধর্মা প্রোডাকশনস’ এর মত বড় ব্যানারের সিনেমায় এখনও দেখা যায়নি বিদ্যাকে। তবে গুণী এই অভিনেত্রীকে সম্মানী হিসেবে দেয়া হচ্ছে ৩ থেকে ৪ কোটিরূপি।

৩-৪ কোটির এই সীমার মধ্যে আরও আছেন অভিনেত্রী জ্যাকুলিন ফারনান্ডেজ এবং আসিন। ‘রেডি’, ‘খিলাড়ি ৭৮৬’ এবং ‘হাউজফুল টু’ এর সাফল্যের পর জনপ্রিয়তাও বেড়েছেআসিনের। অপরদিকে ২০১৩ সালের ব্যবসাসফল সিনেমা ‘রেইস টু’র পর এবার সালমান খানের সঙ্গে ‘কিক’ এ অভিনয় করছেন জ্যাকুলিন।

সোনাম কাপুর: ‘রানঝানা’ এবং ‘ভাগ মিলখা ভাগ’ এর মাধ্যমে দীর্ঘদিন পর সাফল্যের মুখ দেখেছেন অনিল কাপুরের কন্যা। মডেল হিসেবে তার কদর সবসময়ই।

বলিউডের এই ‘স্টাইল ডিভা’র ফিল্মি আয় বর্তমানে ২ থেকে আড়াই কোটি রুপি।




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে