বই মেলা: স্থান করে নিয়েছে খুদে লেখকরাও

Update: 2015-02-22 09:40:18, Published: 2015-02-22 09:40:18
বই মেলা: স্থান করে নিয়েছে খুদে লেখকরাও


মাসব্যাপী বইয়ের আসর একুশে বই মেলায় বর্ষীয়ান আর বিখ্যাত সাহিত্যিকদের পাশে স্থান করে নিয়েছেন খুদে লেখকেরা।

ছড়া, কবিতা, রূপকথা আর কিশোর উপন্যাস লিখে পাঠকের নজরে এসেছেন অনেকেই। ক্ষুদে লেখকদের সাহিত্য চর্চায় ধারাবাহিকতা যেন বজায় থাকে সেদিকে পরিবারের নজর দেয়ার পরামর্শ দিলেন প্রবীণ লেখকরা।

সাকোঁবাড়ি প্রকাশনা স্টলে দাঁড়িয়ে সাত বছর বয়সী অলীন প্রিয় লেখকের অটোগ্রাফ নিচ্ছে না, বরং আঁকাবাঁকা হাতের লেখায় নিজেই দিচ্ছে অটোগ্রাফ। এবারের বইমেলায় তার প্রথম প্রকাশনা 'অন্ধকারে ভূতের ছায়া' বইটি সাজানো হয়েছে সতেরো টি গল্প দিয়ে। সন্তানের লেখালেখিকে উৎসাহ দিতেই এতো অল্প বয়সে বই প্রকাশের কথা জানালেন অলীকের বাবা।

এদিকে, ১৪ বছর বয়সী মীমের এরই মধ্যে বের হয়েছে ছড়া, রূপকথা, কিশোর উপন্যাসের ১০টি বই। আর লেখালেখির সুবাদে ঝুলিতে এরই মধ্যে চলে এসেছে "মিনা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড, গোল্লাছুট গল্প লেখা পুরস্কার সহ বেশ কিছু পুরস্কার।

কার্টুন, গেমস আর ইন্টারনেটের যুগে নতুন প্রজন্মের পাঠ অভ্যাস হারিয়ে যাচ্ছে বলে যখন চিন্তিত সবাই, তখন একুশে বইমলো আমাদের মনে করিয়ে দেয় দিন দিন শুধু ক্ষুদে পাঠকের সংখ্যা বাড়েনি, সেই সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ক্ষুদে লেখকের সংখ্যাও।

ছোটবেলা থেকে শিশু-কিশোরদের লেখালেখিতে উৎসাহিত করার পাশাপাশি এর ধারাবাহিক চর্চার উপরও জোর দিলেন প্রবীণ লেখকেরা।

কথাসাহিত্যিক আনিসুল হক বলেন, 'ছোট থেকেই লিখতে হবে এবং পড়তেও হবে। বাচ্চারা যতোবেশি লিখবে আমরা ততোবেশি ভবিষ্যতে সমৃদ্ধ লেখক পাবো বলে আশা করতে পারি।'

ছোট থেকেই শিশুদের সাহিত্য অনুরাগী করে গড়ে তোলোর পাশাপাশি মননশীলতার বিকাশের জন্য বই পড়ার অভ্যাস জরুরী বলে মনে করেন অগ্রজেরা।

কারণ, তবেই তারা পাবে লেখার অণুপ্রেরণা। আর এই ক্ষুদে সাহিত্যিকদের মাঝেই হয়তো লুকিয়ে আছে আমাদের ভবিষ্যৎ শেক্সপিয়ার, রবীন্দ্রনাথ, ম্যাক্সিম গোর্কিরা।

Update: 2015-02-22 09:40:18, Published: 2015-02-22 09:40:18

আপনার মন্তব্য লিখুন

পাঠকের মন্তব্য ( )


More News
  


আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ



সরাসরি যোগাযোগ

৮৯, বীর উত্তম সি. আর. দত্ত রোড, ঢাকা ১২০৫, বাংলাদেশ।
ফ্যাক্স: +৮৮০২ ৯৬৭০০৫৭, ইমেইল: info@somoynews.tv
উপরে en.Somoynews.tv