নোংরা মওকা-মওকা এবং রুচিশীল জবাব

Update: 2015-03-17 18:38:11, Published: 2015-03-16 22:25:38
mouka
১৯ মার্চ মেলবোর্নে বাংলাদেশ-ভারত বিশ্বকাপ ক্রিকেটের কোয়ার্টার ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে। সারা বিশ্বের অসংখ্য ক্রিকেট ভক্ত খেলাটি উপভোগের জন্য উন্মুখ হয়ে আছে। একই ভাবে জয়ের প্রত্যয়ে মুখিয়ে আছে টাইগার টিম। ইন্ডিয়া টিমও তাদের জয়ের ধারা অব্যাহত রাখতে অবিচল।

খেলার মাঠে খেলোয়াড়দের উত্তেজনা এবং গ্যালারিতে দর্শক-সমর্থকদের আকণ্ঠ উন্মাদনা নতুন কিছু নয়। সম্ভব এটা দোষেরও নয়। তবে এ ক্ষেত্রে সর্বাগ্রে উচিৎ পক্ষ-বিপক্ষের পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ অক্ষুন্ন রাখা। উভয়পক্ষের কাছে এমন কিছু প্রত্যাশিত নয়, যাতে দীর্ঘ দিনের পারস্পরিক সম্প্রীতি বিঘ্নিত ঘটে।

তবে দুঃখজনক হলেও সত্য- সম্প্রতি 'মওকা মওকা' শিরোনামে প্রকাশিত একটি ভিডিও চিত্র প্রতিবেশী দুই রাষ্ট্রের মানুষকে মনোস্তাত্ত্বিক যুদ্ধে লিপ্ত করেছে। বন্ধুপ্রতীম প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারতের অতিউৎসাহী একটি মহল ইউটিউবে বিতর্কিত এই ভিডিওটি প্রকাশ করেছে। উদ্বেগের বিষয়- ঘটনাটির প্রেক্ষিতে সে দেশের রাষ্ট্রীয় কোনো বক্তব্য এখনো নজরে আসেনি।

ভিডিওটি প্রকাশের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিতর্কের ঝড় তুলেছে। বিশেষ করে বিষয়টি ঘিরে তরুণদের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের জন্ম দিয়েছে।  যদিও ক্ষোভ বা বিতর্ক সৃষ্টির যথেষ্ট কারণও রয়েছে।  কারণ এই বিতর্কিত ভিডিওটির মাধ্যমে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ইতিহাসকে উপস্থাপন করা হয়েছে বিকৃতভাবে। আর পাশাপাশি ভিডিওটিতে প্রতিপক্ষ খেলোয়াড় আর সমর্থকদের প্রতি বিন্দুমাত্র শ্রদ্ধাবোধ দেখানোর মতো সৌজন্য প্রদর্শনের যথেষ্ট অভাব রয়েছে।

'মওকা মওকা ভিডিওটি দেখার পর শুরুতেই প্রশ্ন জাগে, কেন ভারতের মতো দেশ থেকে এরকম একটি কাণ্ডজ্ঞানহীন বিতর্কিত প্রয়াস সহজে চালিয়ে দেয়া হলো? প্রতিপক্ষ দল বা দল সমর্থকদের কেনই বা এতো ছোট করে দেখা হচ্ছে? এটা কি নিছক বিচ্ছিন্ন একটি ঘটনা? নাকি অন্য কিছু?

এবার একটু পেছন ফিরে দেখা যাক। অনেকে মনে করছেন- ঘটনাটি মোটেও বিচ্ছিন্ন নয়। এমনটি ভাবার যেথেষ্ট কারণও তাদের রয়েছে।  এই ভারতই হচ্ছে ক্রিকেট বিশ্বের 'তিন মোড়ল' ধারণার প্রবক্তা এবং অন্যতম স্বঘোষিত মোড়ল। আর বিতর্কিত 'তিন মোড়ল' ধারণা প্রদানের মতো কাণ্ডজ্ঞানহীন একটি দেশের কাছ থেকে এরকম একটি ভিডিও প্রকাশ হতেই পারে।  আর তাদের কাছে প্রতিপক্ষের কোনো দল কখনোই এর চেয়ে বেশি কিছু আশা করতে পারে না। সন্দেহের অবকাশ নেই, ক্রিকেট বিশ্বে ভারত একটি অবিচ্ছেদ্য নাম। আর ভারতের সবচেয়ে নিকটতম প্রতিবেশী দল হিসেবে এ দেশের ক্রিকেটের উন্নয়নে তাদের সহযোগিতা সাধারণভাবেই বাংলাদেশের কাম্য। অথচ প্রত্যাশা আর বাস্তবতার মধ্যে দূরুত্ব যোজন যোজন। নীচু মনোভাবের পরিচয় দিয়ে ভারত সেই প্রত্যাশার নূন্যতম অংশও পূরণ করেনি আর বর্তমানে তা প্রত্যাশা করাও যথেষ্ট অমূলক।

বাংলাদেশকে ছোট করে দেখার নজির যেমন আরো রয়েছে, তেমনি রয়েছে টাইগারদের প্রতিশোধ নেয়ার দৃষ্টান্তও। টেস্ট, ওয়ান ডে স্ট্যাটাস নিয়ে প্রশ্ন তোলা অনেক বড় বড় দেশের অনেক নামী দামী বিজ্ঞজনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে টাইগার টিম ইতোমধ্যে জিম্বাবুয়ে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ আর নিউজিল্যাণ্ডকে বাংলা ওয়াশের স্বাদ আস্বাদনে বাধ্য করেছে।

আর এবার নিজের অজান্তেই বাংলাদেশ ক্রিকেট বিশ্বের স্বঘোষিত তিন মোড়লের দাম্ভিকতায় এমনই এক আঘাত করেছে যা এখন হাড়ে হাড়ে উপলব্ধি করছে ইংল্যান্ড।  তারা বাংলাদেশের কাছে পরাজিত হয়ে গ্রুপ পর্ব থেকে বাদ পড়েছে।  আর নিকট অতীতটাতো ভারতের খুব ভালোই মনে থাকা উচিত।

কারণ বাংলাদেশই ভারতকে ২০০৭ বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বে পরাজিত করেই থামেনি, তাদের এশিয়া কাপ থেকে ২০১২ সালে বিদায় জানিয়ে এখন অপেক্ষা করছে ২০১৫ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচের। আর বাংলাদেশের এই সফলতাই যে ভারতীয় ক্রিকেটে ভীতির অন্যতম কারণ, ‘মওকা মওকা’ ভিডিও-ই হচ্ছে তার নির্লজ্জ বহিঃপ্রকাশ।

এক্ষেত্রে বাংলাদেশ দলকে মাঠেই এর সমোচিত জবাব দিতে প্রস্তুত থাকতে হবে।  সর্বোচ্চ সামর্থ্য প্রয়োগ করে ভারতের বিপক্ষে জয় নিশ্চিত করাই হবে ‘মওকা' প্রস্তুতকারী নির্লজ্জদের উপযুক্ত জবাব।   টাইগারদের কাছে এটিই এখন দেশ-প্রবাসের কোটি বাঙালির একমাত্র প্রত্যাশা।

একই সাথে আমাদেরও প্রত্যাশা- ১৯ মার্চ মেলবোর্নে বাংলাদেশ প্রথম বারের মতো কোয়ার্টার ফাইনালে বাংলাদেশের কাছে ভারত পরাজিত হোক।  ক্রিকেট-বিশ্বের তিন মোড়লের অন্যতম এই মোড়লকে হারিয়ে দৃষ্টান্ত তৈরি হোক- ক্রিকেট শুধু মোড়লদের জন্য নয়, ক্রিকেট সবার।  আমাদের আরো প্রত্যাশা- ‘মওকা মওকা’ আর দাম্ভিকতা দিয়ে নয়, পারস্পরিক সম্প্রীতি এবং শ্রদ্ধাবোধের মধ্যদিয়ে এগিয়ে যাক পরবর্তী প্রজন্মের বিশ্ব ক্রিকেট। এক্ষেত্রে বাংলাদেশ হোক সার্বজনীন ক্রিকেট বিশ্বের অন্যতম পথিকৃৎ। এভাবেই রচিত হোক নোংরা মওকা-মওকা'র রুচিশীল জবাব।

 

মো. মোক্তার হোসেন

কবি ও ব্লগার

Update: 2015-03-17 18:38:11, Published: 2015-03-16 22:25:38

আপনার মন্তব্য লিখুন

পাঠকের মন্তব্য ( )


More News
  


আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ



সরাসরি যোগাযোগ

৮৯, বীর উত্তম সি. আর. দত্ত রোড, ঢাকা ১২০৫, বাংলাদেশ।
ফ্যাক্স: +৮৮০২ ৯৬৭০০৫৭, ইমেইল: info@somoynews.tv
উপরে en.Somoynews.tv