মেহেদী হাসান
আপডেট
০৫-১১-২০১৭, ১৩:৩০

নিষ্ঠুরতা থামাতে দরকার কী?

social-responsibility
আর্থিক বিষয় নিয়ে মনোমালিন্য, পারিবারিক কলহ কিংবা পরকীয়ার মতো ঘটনায় সমাজে অপরাধ ক্রমেই বাড়ছে। শিশু ও নারীরা এর মূল শিকার হলেও কিছুক্ষেত্রে পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ছেন নারীরাও। আবার বাবা-মায়ের হাতে কিংবা তাদের মদদেও খুন হচ্ছে সন্তান। সামান্য কারণেও খুনোখুনির এমন ঘটনাগুলোকে সমাজের চরম বিশৃঙ্খলা ও মূল্যবোধের অবক্ষয় হিসেবে দেখছেন সমাজ বিজ্ঞানীরা। সুশাসন, আইনের শাসন, সমাজের কাঠামোগত পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে এই অবস্থার উত্তরণ ঘটানো সম্ভব বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। ১ নভেম্বর রাজধানীর উত্তর বাড্ডার ৩০৬ নম্বর নিজ বাসায় খুন হন জামিল শেখ নামে এক ব্যক্তি ও তার মেয়ে নূসরাত। জামিল শেখের স্ত্রী আরজিনা বেগমের মদদেই শাহীন নামের এক ব্যক্তি ওই হত্যাকাণ্ড ঘটান বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে। হত্যার অভিযোগে পুলিশের হাতে গ্রেফতারের পর অভিযুক্তরা জানান, প্রথমে পরিকল্পনা ছিল শুধুমাত্র জমিলকেই হত্যা করা। কিন্তু নূসরাত তার বাবাকে হত্যার ঘটনা দেখে ফেলায় তাকেও হত্যা করা হয়। এবং এই দুই হত্যায়ই নূসরাতের মা আরিজিনার সমর্থন ছিল।

অন্যদিকে আর্থিক বিষয় নিয়ে মনোমালিন্যের পর একই দিন রাজধানীর কাকরাইলে মা-ছেলেকে হত্যা করেন করিম নামের এক ব্যক্তি। আর্থিক বিষয়ে মনোমালিন্য ও পারিবারিক কলহের কারণেই তাদের হত্যা করা হয় বলে জানান র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান।

সম্প্রতি বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার মাসিক পর্যবেক্ষণ ও গবেষণায় দেখা যায়, গত অক্টোবর মাসে দেশে ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৭৪ জন নারী ও শিশু । এদের মধ্যে শিশু ২৮ জন। ২৭ জন নারী। ১৭ জন নারী গণ ধর্ষণের শিকার হন ও ২ জনকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়। এছাড়া গতমাসেই হত্যা করা হয় ৩০ শিশুকে। এদের মধ্যে মা-বাবার হাতে নিহত হয় পাঁচজন। সাভারে দেড় বছরের এক শিশুকে লাথি মেরে হত্যা করে পাষণ্ড পিতা। নরসিংদীতে ১৫ বছরের এক শিশুকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করে তার চাচী।

একই মাসে পারিবারিক কলহে নিহত হন ৪২ জন, যার মধ্যে ১২ জন পুরুষ ও নারী ৩০ জন। এদের মধ্যে স্বামীর হাতে নিহত হন ২৭ জন নারী। সামাজিক অসন্তোষের শিকার হয়ে এই অক্টোবরে নিহত হয়েছেন ১১ জন। আহত হয়েছেন ২৯৭ জন। গতমাসে সন্ত্রাসীদের হাতে খুন হয়েছেন ৮৬ জন।

সাধারণ মানুষের মধ্যে যে শুধু ‘মূল্যবোধের অবক্ষয়’ হয়েছে এমনটা নয়। দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরাও জড়িয়ে পড়ছেন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে। খোদ বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রক্টর লাথি দিয়ে সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. আ ক ম জামাল উদ্দিনকে লাথি দিয়ে মাটিতে ফেলে দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

সমাজের সকল শ্রেণির মধ্যেই করে অপরাধের মাত্রা বাড়ার কারণ হিসেবে পুলিশের সাবেক মহা-পরিদর্শক নুরুল হুদা সময় নিউজকে বলেন, মানুষের মধ্যে অর্থনৈতিক অসন্তুষ্টি অপরাধ বাড়ার অন্যতম প্রধান কারণ। তাদের মধ্যে আয়ের পরিমাণ কমে যাওয়ায় এবং দারিদ্র বেড়ে যাওয়ায় সমাজে ক্রমাগত অপরাধ বাড়ছে।

তিনি আরও বলেন, মানুষের মধ্যে বৈষম্য, পারিবারিক বিচ্ছিন্নতা ও সংস্কৃতির বিরূপ প্রভাবেও বাড়ছে অপরাধের মাত্রা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞাপন অনুষদের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মনিরুল ইসলাম খান এ বিষয়ে বলেন, সমাজে সব শ্রেণির মধ্যেই অপরাধের মাত্রা বাড়ছে। এর মধ্যে কিছু অপরাধ পরিকল্পিত এবং কিছু ঘটনা ঘটছে আকস্মিকভাবে। আকস্মিকভাবে যেসব ঘটনা ঘটছে সেক্ষেত্রে ওই ব্যক্তির আত্মনিয়ন্ত্রণের অভাব রয়েছে। অন্যদিকে পরিকল্পিত হত্যার পিছনে কিছু উদ্দেশ্য থাকছে। আর উদ্দেশ্য নিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটলে বুঝতে হবে আমরা ঠিক পথে নেই।

তিনি বলেন, একটা হত্যাকাণ্ডের অনেকগুলো দিক থাকে। মনস্তাত্ত্বিক, অর্থনৈতিক, সামাজিক ও সংস্কৃতির বিরূপ প্রভাবে হচ্ছে এসব অপরাধের পিছনের অন্যতম প্রধান কারণ। 

তবে মানুষের অপরাধ প্রবণতার ক্ষেত্রে সাংস্কৃতিক প্রভাব খুব একটা নেই বলে মনে করেন ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টসের গণমাধ্যম বিষয়ক অধ্যাপক ও কালচারাল স্টাডিজের গবেষক সুমন রহমান। তিনি সময় নিউজকে বলেন, সংস্কৃতির কিছুটা প্রভাব সমাজে থাকলেও সেটা মানুষকে যে অপরাধের দিকে ধাবিত করে এমনটা সরাসরি বলা যাবে না। বিশ্বের অনেক দেশেই উপন্যাস ও সিনেমায় সিরিয়াল কিলিং ও ক্রাইম থ্রিলার দেখানো হয়। এজন্য সেসব দেশে এমন অপরাধের মাত্রা বৃদ্ধি পায় না।

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড রিগ্যানের হত্যাচেষ্টার বিষয়টি উল্লেখ করে তিনি বলেন, রিগ্যানকে হত্যাচেষ্টাকারী ব্যক্তি নিজেই স্বীকারোক্তি দিয়েছেন যে তিনি ‘ট্যাক্সি ড্রাইভার’ দেখেই এভাবে হত্যাচেষ্টায় অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন। তবে এজন্য তো আর সংস্কৃতির চর্চা ও বিকাশকে থামিয়ে দেয়া যাবে না। আর শিল্প –সংস্কৃতি সবসময় সমাজের আদর্শের জায়গা নিয়েও বসে থাকবে না। তার কাজ শুধু সমাজের আদর্শিক জায়গাগুলোতে শিক্ষা দেওয়াই নয়। সংস্কৃতি তার নিজস্ব গতিতে এগুবে।

তবে সামাজিক শৃঙ্খলার অভাব, মানুষের অর্থ সম্পদ কমে যাওয়া, সম্পদের অপ্রাতিষ্ঠানিক মালিকানা, দরিদ্রতা, রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণেই সমাজে অপরাধ বাড়ছে বলে মনে করেন সুমন রহমান।

সমাজে ঘটমান এসব অপরাধের ফলাফল খুবই ভয়াবহ বলে মনে করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. শাহ এহসান হাবিব।

তিনি বলেন, গণমাধ্যমের বরাতে আমাদের শিশু-কিশোররা এসব অপরাধ সম্পর্কে জানছে। সমাজে এসব অপরাধ কর্মকাণ্ডের ফলে আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে। তারা এসব অপরাধ শিখছে এবং এতে ভবিষ্যতে তাদের অপরাধে জড়িয়ে যাবার আশংকা বাড়ছে।

‘অন্যদিকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর এসব অপরাধের প্রতি কম নজরদারি এবং বিচারহীনতার কারণেও অপরাধের মাত্রা আরও বাড়বে। এই কারণগুলো মানুষকে অপরাধ করতে উদ্ভুদ্ধ করবে। এসব ঘটনা ভবিষ্যতে অপরাধ বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখবে।’ বলেন ড. এহসান।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শান্তি ও সংঘর্ষ অধ্যয়ন বিভাগের সহকারি অধ্যাপক মুহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন সিদ্দিকী এ বিষয়ে সময় নিউজকে বলেন, পশ্চিমা বিশ্বে আমাদের চেয়ে অনেক বেশি হত্যার ঘটনা ঘটছে। তবে সেগুলোর মূল কারণ হচ্ছে পরিবারহীনতা। কিন্তু আমাদের দেশের মানুষ পরিবারের মধ্যে থেকেও অপরাধের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ছেন। এর অন্যতম মূল কারণ সুশাসন ও আইনের শাসনের অভাব।

তিনি বলেন, সমাজের শাসন ব্যবস্থা যতটা ভালো হবে সেই সমাজে ততটা শান্তি বিরাজ করবে। তাই আমাদের সমাজে এ দুটি বিষয় আগে নিশ্চিত করতে হবে। তাহলে নৈরাজ্য ও বিচারহীনতার কারণে ঘটা অপরাধগুলো বন্ধ হবে।

সাজ্জাদ হোসেন আরো বলেন, ‘অন্যদিকে লোভের কারণে যেসব অপরাধের ঘটনা ঘটছে সেগুলো কমাতে দরকার সামাজিক কাঠামোগত পরিবর্তন। সমাজ কাঠামোর প্রত্যেকটা স্তরে পরিবর্তন এনে এবং সেখানে প্রতিষ্ঠানিকভাবে মূল্যবোধের শিক্ষা দেয়া গেলে এই অপরাধগুলোও কমবে’।




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

...

সর্বশেষ সংবাদ

তাজমহলে ছবি উঠলেন ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী ভারতে হজযাত্রীদের জন্য বিশেষ প্রণোদনা সুবিধা বাতিল ইয়েমেনে গেলো দুই বছরের সহিংসতায় ৫ হাজার শিশু নিহত সিরিয়ায় বাহিনী গঠনের মার্কিন পরিকল্পনা রুখতে ন্যাটোর প্রতি তুরস্কের আহ্বান দাঁড়াতেই পারলো না ভারত ওয়াশিংটন ডিসিতে 'গ্লো শো' সাগরের তলদেশে বিশ্বের দীর্ঘতম গুহার সন্ধান কলম্বিয়ায় সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত নিহত ১০ নেতা হচ্ছেন শাকিব! রাজার রাজকীয় ব্যাটে জিম্বাবুয়ের লড়াকু টার্গেট মজুরিসহ ১১ দফা দাবিতে খুলনায় ৮ পাটকল শ্রমিকদের ট্রাক মিছিল শতবর্ষী গাছ কেটে ফেলার সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে যশোরে মানববন্ধন পাকিস্তানে আত্মঘাতী হামলা হারাম ঘোষণা বৃদ্ধাকে গণধর্ষণ করে খুন, বাড়ির কাছেই বাগানে মিলল নগ্ন দেহ নির্বাচন স্থগিত হওয়ায় ডিএনসিসির আ.লীগের প্রার্থী ঘোষণা স্থগিত নারায়ণগঞ্জে গণপিটুনিতে ২ ডাকাতের মৃত্যু দিল্লী ওপেনে রানার্স আপ গ্র্যান্ড মাস্টার জিয়াউর রহমান 'আন্তর্জাতিকভাবে উন্নয়নশীল দেশগুলোর সমকক্ষ হবে বাংলাদেশ' রাখাইনে বিক্ষোভকারী-পুলিশ সংঘর্ষে নিহত ৯ ২৮ বছর পর আবার ডাকসু নির্বাচন ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনের স্মৃতিচিহ্ন পরিদর্শন করলেন প্রণব মুখার্জি ভরাডুবির ভয়েই নির্বাচন স্থগিত করিয়েছে সরকার: মোশাররফ ডিএনসিসির নির্বাচনের তফসিল কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবেনা জানতে চেয়ে রুল পশুপাখির প্রতি সদয় হতে মাশরাফির অনুরোধ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আমরাই এগিয়ে: রুবেল মৃত্যুর পর লাশের শরীরের কি পরিণতি হয়? গরুর গাড়ির দৌড় প্রতিযোগিতা (ভিডিও) ইংল্যান্ডের কোচ হতে চান ফ্লিনটফ বলের আঘাতে দাঁত ভাঙলো কারস্টেনের রাতে মাঠে নামছেন নেইমার, মেসি নির্ভার টাইগারদের সামনে আত্মবিশ্বাসী ইংল্যান্ড কিংবদন্তীর বিদায় 'সরকার এবং নির্বাচন কমিশনের সমন্বয়হীনতার কারণেই ডিএনসিসির নির্বাচন স্থগিত হয়েছে' উত্তরা মেডিকেলে ৫৭ শিক্ষার্থীর একাডেমিক কার্যক্রম চলবে ত্রিদেশীয় সিরিজ: জিম্বাবুয়ের উড়ন্ত শুরু অনলাইন প্লাটফর্ম-আমার এমপি ডটকমের যাত্রা শুরু 'প্রকল্প বাস্তবায়নে বাংলাদেশের সক্ষমতা বেড়েছে' ভারতে হজ্ব যাত্রীদের জন্য বিশেষ প্রণোদনা সুবিধা বাতিল টস জিতে ফিল্ডিংয়ে শ্রীলঙ্কা পাঁচ হাজার সুবিধা বঞ্চিত নারীকে সেলাই প্রশিক্ষণ দিবে ব্রাক ও সিঙ্গার 'বছরজুড়ে সবজি চাষে, পুষ্টি স্বাস্থ্য ও অর্থ আসে' ৬ মাসের মধ্যে ডাকসু নির্বাচনের নির্দেশ মার্চে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে পৌঁছবে বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী ঢাকা উত্তর সিটির উপনির্বাচন স্থগিত অর্ডার না পেলে সুপার জাম্বো জেটের নির্মাণ বন্ধ বড় ধরনের বিপদ এড়ালেন শোয়েব মালিক! (ভিডিও) তাহলে কি বুবলীকেই বিয়ে করছেন শাকিব? বুধবারের রাশিফল (১৭ জানুয়ারি, ২০১৮) প্রিয়জনের আঘাত ব্যথিত কন্যা, মায়ের সঙ্গে বিবাদ ধনুর ময়মনসিংহে বেড়েছে মেয়েদের শিক্ষার হার ফিলিস্তিনিকে দেয়া যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তার অর্ধেকের বেশি প্রত্যাহার বাণিজ্য মেলায় বিদেশি পণ্যের প্যাভিলিয়নে দেশি পণ্যের সমারোহ ! স্বাধীন বাংলাদেশে ভাষার জাতীয়তাবোধ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে: প্রণব মুখার্জি 'বন্ধুর' হাতে 'বন্ধু' খুন, কেনো? নেত্রকোনার মহাসড়ক নির্মাণে ব্যাপক অনিয়ম, এলাকাবাসীর ভোগান্তি এটি আমাদের ব্যক্তিগত বৈঠক: আমীর খসরু ইয়েমেনের সংঘাতে প্রাণ হারিয়েছে ৫ হাজার শিশু ডিএনসিসির উপনির্বাচন স্থগিত চেয়ে রিটের আদেশ হবে আজ দেশের বিভিন্ন স্থানে কালীপূজা উৎসব শুরু মহানায়িকা সুচিত্রা সেনের চতুর্থ প্রয়াণ দিবস আজ সাউথ আফ্রিকায় নিহত বাংলাদেশির বাড়িতে শোকের মাতম ঢাবি-ঢামেক শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ, সাংবাদিকসহ আহত ১০ খালে বালির বস্তা-কাঠ ফেলে ঝুঁকিপূর্ণ পারাপার চট্টগ্রামে বর্ষা নয় শুষ্ক মৌসুমেই সড়কের বেহাল দশা ঘুরে দাঁড়িয়েছে চাঁদপুরের আলু চাষীরা বাণিজ্যমেলায় আলো ছড়াচ্ছে বঙ্গবন্ধু প্যাভিলিয়ন খেয়া নৌকায় ৫০ গ্রামের মানুষের ঝুঁকিপূর্ণ পারাপার অনস্ট্রিট পার্কিং থেকে বাড়তি টাকা আদায় উপযুক্ত নগরপিতাই নির্বাচন করবে উত্তরের নগরবাসীরা ফিজিশিয়ানের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ স্বর্ণ জয়ী অ্যাথলিটের জমে উঠেছে সেঞ্চুরিয়ান টেস্ট স্বাধীনতা কাপ ফুটবল ফরাশগঞ্জের জয়, সাইফ-চট্টগ্রাম আবাহনীর ড্র বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা-ভারত ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজ মার্চে সিনিয়র ক্রিকেটারদের প্রশংসায় হ্যালসল ওয়ানডে আয়োজনে সেঞ্চুরি করা বিশ্বের পাঁচটি স্টেডিয়াম! শেরে-ই-বাংলা স্টেডিয়ামের অনন্য কীর্তি! ওয়ানডে সেঞ্চুরির অপেক্ষায় শের-ই-বাংলা স্টেডিয়াম! মনোনয়ন পেয়ে যা বললেন আতিকুল ইসলাম চোখের পাপড়িতেও জমছে বরফ 'ওয়ান ইলেভেনের মত সরকার গঠনের ষড়যন্ত্র করছে' গোবিন্দগঞ্জের আদিবাসী পল্লীতে হামলার বিচারের দাবিতে অবস্থান কর্মসূচী চিকিৎসকের অভাবে ব্যাহত খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা উপজেলায় স্বাস্থ্য সেবা সিরাজগঞ্জে কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডারদের অবস্থান কর্মসূচি 'জঙ্গিদের উস্কানি দিচ্ছে পাকিস্তান' 'প্রকল্প বাস্তবায়নে সক্ষমতা বেড়েছে বাংলাদেশের' আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেলেন আতিকুল ইসলাম ফাস্ট বোলার আফ্রিদি, পাকিস্তানের মিচেল স্টার্ক ‘রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া দীর্ঘায়িত করা মিয়ানমারের অপকৌশল’ মোস্তাফিজকে নিয়ে স্বস্তি, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দলে পরিবর্তনের ইঙ্গিত 'মৃত্যুকে ভয় করি না, শামীম ওসমানই হামলার হুকুম দিয়েছেন' গণভবনে আতিকুল ইসলাম প্রখ্যাত কণ্ঠশিল্পী শাম্মী আখতার আর নেই চট্টগ্রামে বন্ধুদের ছুরিকাঘাতে স্কুলছাত্র নিহত নারায়ণগঞ্জে আইভীর ওপর 'হামলা', সংঘর্ষে রণক্ষেত্র; আহত ২০ (ভিডিও) চাঁদপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩ ঠাকুরগাঁওয়ে প্রতিবেশী হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন মার্চ থেকে চালু হবে হ্যালো সিএনজি অ্যাপ বাংলাদেশের অগ্রযাত্রাকে কোন বাধাই আটকাতে পারবে না: প্রণব মুখার্জি লেখার সময় কিভাবে কলম ধরেন? এতেই চেনা যাবে চরিত্র জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলা: খালেদা জিয়ার পক্ষে যুক্তিতর্ক শেষ ঢাকা উত্তরের উপনির্বাচন নিয়ে রিটের আদেশ আগামীকাল



Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে