SOMOY

মেহেদী হাসান
আপডেট
০৫-১১-২০১৭, ১৩:৩০

নিষ্ঠুরতা থামাতে দরকার কী?

social-responsibility
আর্থিক বিষয় নিয়ে মনোমালিন্য, পারিবারিক কলহ কিংবা পরকীয়ার মতো ঘটনায় সমাজে অপরাধ ক্রমেই বাড়ছে। শিশু ও নারীরা এর মূল শিকার হলেও কিছুক্ষেত্রে পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ছেন নারীরাও। আবার বাবা-মায়ের হাতে কিংবা তাদের মদদেও খুন হচ্ছে সন্তান। সামান্য কারণেও খুনোখুনির এমন ঘটনাগুলোকে সমাজের চরম বিশৃঙ্খলা ও মূল্যবোধের অবক্ষয় হিসেবে দেখছেন সমাজ বিজ্ঞানীরা। সুশাসন, আইনের শাসন, সমাজের কাঠামোগত পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে এই অবস্থার উত্তরণ ঘটানো সম্ভব বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

১ নভেম্বর রাজধানীর উত্তর বাড্ডার ৩০৬ নম্বর নিজ বাসায় খুন হন জামিল শেখ নামে এক ব্যক্তি ও তার মেয়ে নূসরাত। জামিল শেখের স্ত্রী আরজিনা বেগমের মদদেই শাহীন নামের এক ব্যক্তি ওই হত্যাকাণ্ড ঘটান বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে। হত্যার অভিযোগে পুলিশের হাতে গ্রেফতারের পর অভিযুক্তরা জানান, প্রথমে পরিকল্পনা ছিল শুধুমাত্র জমিলকেই হত্যা করা। কিন্তু নূসরাত তার বাবাকে হত্যার ঘটনা দেখে ফেলায় তাকেও হত্যা করা হয়। এবং এই দুই হত্যায়ই নূসরাতের মা আরিজিনার সমর্থন ছিল।

অন্যদিকে আর্থিক বিষয় নিয়ে মনোমালিন্যের পর একই দিন রাজধানীর কাকরাইলে মা-ছেলেকে হত্যা করেন করিম নামের এক ব্যক্তি। আর্থিক বিষয়ে মনোমালিন্য ও পারিবারিক কলহের কারণেই তাদের হত্যা করা হয় বলে জানান র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান।

সম্প্রতি বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার মাসিক পর্যবেক্ষণ ও গবেষণায় দেখা যায়, গত অক্টোবর মাসে দেশে ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৭৪ জন নারী ও শিশু । এদের মধ্যে শিশু ২৮ জন। ২৭ জন নারী। ১৭ জন নারী গণ ধর্ষণের শিকার হন ও ২ জনকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়। এছাড়া গতমাসেই হত্যা করা হয় ৩০ শিশুকে। এদের মধ্যে মা-বাবার হাতে নিহত হয় পাঁচজন। সাভারে দেড় বছরের এক শিশুকে লাথি মেরে হত্যা করে পাষণ্ড পিতা। নরসিংদীতে ১৫ বছরের এক শিশুকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করে তার চাচী।

একই মাসে পারিবারিক কলহে নিহত হন ৪২ জন, যার মধ্যে ১২ জন পুরুষ ও নারী ৩০ জন। এদের মধ্যে স্বামীর হাতে নিহত হন ২৭ জন নারী। সামাজিক অসন্তোষের শিকার হয়ে এই অক্টোবরে নিহত হয়েছেন ১১ জন। আহত হয়েছেন ২৯৭ জন। গতমাসে সন্ত্রাসীদের হাতে খুন হয়েছেন ৮৬ জন।

সাধারণ মানুষের মধ্যে যে শুধু ‘মূল্যবোধের অবক্ষয়’ হয়েছে এমনটা নয়। দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরাও জড়িয়ে পড়ছেন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে। খোদ বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রক্টর লাথি দিয়ে সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. আ ক ম জামাল উদ্দিনকে লাথি দিয়ে মাটিতে ফেলে দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

সমাজের সকল শ্রেণির মধ্যেই করে অপরাধের মাত্রা বাড়ার কারণ হিসেবে পুলিশের সাবেক মহা-পরিদর্শক নুরুল হুদা সময় নিউজকে বলেন, মানুষের মধ্যে অর্থনৈতিক অসন্তুষ্টি অপরাধ বাড়ার অন্যতম প্রধান কারণ। তাদের মধ্যে আয়ের পরিমাণ কমে যাওয়ায় এবং দারিদ্র বেড়ে যাওয়ায় সমাজে ক্রমাগত অপরাধ বাড়ছে।

তিনি আরও বলেন, মানুষের মধ্যে বৈষম্য, পারিবারিক বিচ্ছিন্নতা ও সংস্কৃতির বিরূপ প্রভাবেও বাড়ছে অপরাধের মাত্রা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞাপন অনুষদের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মনিরুল ইসলাম খান এ বিষয়ে বলেন, সমাজে সব শ্রেণির মধ্যেই অপরাধের মাত্রা বাড়ছে। এর মধ্যে কিছু অপরাধ পরিকল্পিত এবং কিছু ঘটনা ঘটছে আকস্মিকভাবে। আকস্মিকভাবে যেসব ঘটনা ঘটছে সেক্ষেত্রে ওই ব্যক্তির আত্মনিয়ন্ত্রণের অভাব রয়েছে। অন্যদিকে পরিকল্পিত হত্যার পিছনে কিছু উদ্দেশ্য থাকছে। আর উদ্দেশ্য নিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটলে বুঝতে হবে আমরা ঠিক পথে নেই।

তিনি বলেন, একটা হত্যাকাণ্ডের অনেকগুলো দিক থাকে। মনস্তাত্ত্বিক, অর্থনৈতিক, সামাজিক ও সংস্কৃতির বিরূপ প্রভাবে হচ্ছে এসব অপরাধের পিছনের অন্যতম প্রধান কারণ। 

তবে মানুষের অপরাধ প্রবণতার ক্ষেত্রে সাংস্কৃতিক প্রভাব খুব একটা নেই বলে মনে করেন ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টসের গণমাধ্যম বিষয়ক অধ্যাপক ও কালচারাল স্টাডিজের গবেষক সুমন রহমান। তিনি সময় নিউজকে বলেন, সংস্কৃতির কিছুটা প্রভাব সমাজে থাকলেও সেটা মানুষকে যে অপরাধের দিকে ধাবিত করে এমনটা সরাসরি বলা যাবে না। বিশ্বের অনেক দেশেই উপন্যাস ও সিনেমায় সিরিয়াল কিলিং ও ক্রাইম থ্রিলার দেখানো হয়। এজন্য সেসব দেশে এমন অপরাধের মাত্রা বৃদ্ধি পায় না।

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড রিগ্যানের হত্যাচেষ্টার বিষয়টি উল্লেখ করে তিনি বলেন, রিগ্যানকে হত্যাচেষ্টাকারী ব্যক্তি নিজেই স্বীকারোক্তি দিয়েছেন যে তিনি ‘ট্যাক্সি ড্রাইভার’ দেখেই এভাবে হত্যাচেষ্টায় অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন। তবে এজন্য তো আর সংস্কৃতির চর্চা ও বিকাশকে থামিয়ে দেয়া যাবে না। আর শিল্প –সংস্কৃতি সবসময় সমাজের আদর্শের জায়গা নিয়েও বসে থাকবে না। তার কাজ শুধু সমাজের আদর্শিক জায়গাগুলোতে শিক্ষা দেওয়াই নয়। সংস্কৃতি তার নিজস্ব গতিতে এগুবে।

তবে সামাজিক শৃঙ্খলার অভাব, মানুষের অর্থ সম্পদ কমে যাওয়া, সম্পদের অপ্রাতিষ্ঠানিক মালিকানা, দরিদ্রতা, রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণেই সমাজে অপরাধ বাড়ছে বলে মনে করেন সুমন রহমান।

সমাজে ঘটমান এসব অপরাধের ফলাফল খুবই ভয়াবহ বলে মনে করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. শাহ এহসান হাবিব।

তিনি বলেন, গণমাধ্যমের বরাতে আমাদের শিশু-কিশোররা এসব অপরাধ সম্পর্কে জানছে। সমাজে এসব অপরাধ কর্মকাণ্ডের ফলে আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে। তারা এসব অপরাধ শিখছে এবং এতে ভবিষ্যতে তাদের অপরাধে জড়িয়ে যাবার আশংকা বাড়ছে।

‘অন্যদিকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর এসব অপরাধের প্রতি কম নজরদারি এবং বিচারহীনতার কারণেও অপরাধের মাত্রা আরও বাড়বে। এই কারণগুলো মানুষকে অপরাধ করতে উদ্ভুদ্ধ করবে। এসব ঘটনা ভবিষ্যতে অপরাধ বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখবে।’ বলেন ড. এহসান।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শান্তি ও সংঘর্ষ অধ্যয়ন বিভাগের সহকারি অধ্যাপক মুহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন সিদ্দিকী এ বিষয়ে সময় নিউজকে বলেন, পশ্চিমা বিশ্বে আমাদের চেয়ে অনেক বেশি হত্যার ঘটনা ঘটছে। তবে সেগুলোর মূল কারণ হচ্ছে পরিবারহীনতা। কিন্তু আমাদের দেশের মানুষ পরিবারের মধ্যে থেকেও অপরাধের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ছেন। এর অন্যতম মূল কারণ সুশাসন ও আইনের শাসনের অভাব।

তিনি বলেন, সমাজের শাসন ব্যবস্থা যতটা ভালো হবে সেই সমাজে ততটা শান্তি বিরাজ করবে। তাই আমাদের সমাজে এ দুটি বিষয় আগে নিশ্চিত করতে হবে। তাহলে নৈরাজ্য ও বিচারহীনতার কারণে ঘটা অপরাধগুলো বন্ধ হবে।

সাজ্জাদ হোসেন আরো বলেন, ‘অন্যদিকে লোভের কারণে যেসব অপরাধের ঘটনা ঘটছে সেগুলো কমাতে দরকার সামাজিক কাঠামোগত পরিবর্তন। সমাজ কাঠামোর প্রত্যেকটা স্তরে পরিবর্তন এনে এবং সেখানে প্রতিষ্ঠানিকভাবে মূল্যবোধের শিক্ষা দেয়া গেলে এই অপরাধগুলোও কমবে’।

DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

...

সর্বশেষ সংবাদ

অপহৃত ছাত্রীকে পাওয়া গেছে: রাবি উপ-উপাচার্য জয়ের ভাগ্য হয়নি ওর দাদা-দাদির বাসায় থাকার: অপু চুল পড়া কমাতে পেয়ারা পাতার জাদুকরী ব্যবহার টঙ্গীতে জোড় ইজতেমার দ্বিতীয় দিন আজ ৪৪ নাবিকসহ আর্জেন্টিনার সাবমেরিন নিখোঁজ বিশ্বসেরা ১০ পোশাক কারখানার মধ্যে ৭টিই বাংলাদেশের ডিএসই'র শেষ কার্যদিবসে লেনদেন কমে ২'শ ৪৬ কোটি ৫০ লাখ টাকা আবারো বাড়লো পেঁয়াজের দাম বৃহত্তম বিমান চুক্তিতে এগিয়ে এয়ারবাস শেষ হচ্ছে লেদার ট্রেড শো'র প্রদর্শনী মুগাবেকে পদত্যাগের আহবান জানালো তার নিজ দল! দায়সারা সংস্কারে আরো বেশি ভোগান্তি নগরবাসীর আজকের রাশিফল (১৮-১১-২০১৭) প্রেমের ব্যাপারে চাপে থাকবে তুলা, তবে বিদেশ যাত্রার যোগে রয়েছে কর্কট সস্ত্রীক সৌদি ছেড়েছেন হারিরি প্যারাডাইস কেলেঙ্কারির তালিকায় বিএনপি নেতার পরিবারের নাম ভারত-চীন সীমান্তে ৬.৩ মাত্রার ভূকম্পন ৭ মার্চের ভাষণের স্বীকৃতি উদযাপনে সোহরাওয়ার্দীতে নাগরিক কমিটির সমাবেশ আজ রোহিঙ্গাদের ফেরত না নিতে মিয়ানমারের টালবাহানা ফোনে আড়িপাতার অভিযোগে তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে বিজেপি নেতার মামলা মানিকগঞ্জ স্বর্ণ ডাকাতি ডাকাতির আগে পুলিশের চাঁদাবাজি, আশঙ্কায় স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের টয়লেট-নলকূপ যেনো বিষফোঁড়া মাদারীপুরে সড়কের বেহাল দশায় জর্জরিত এলাকাবাসী জমজমাট ভোট যুদ্ধের অপেক্ষায় নারায়ণগঞ্জবাসী যুক্তরাজ্যে বিমান-হেলিকপ্টারের সংঘর্ষে নিহত ৫ মৌলভীবাজারের মনু নদী ভাঙ্গন, আতঙ্কে এলাকাবাসী ঝালকাঠিতে সুপারির বাম্পার ফলন চমেকে ওষুধ প্রতিনিধিদের দৌরাত্মে অতিষ্ঠ রোগীরা সংসদীয় আসনে ছিটমহল যুক্ত, নদী ভাঙন এলাকা বাদ যুক্তরাষ্ট্রে বহুতল ভবনে ভয়াবহ আগুন বিরতির পর ফের মাঠে নামছে বার্সেলোনা মাঠে নামছে ইংলিশ লিগের জায়ান্টরা 'আশা করছি ম্যাককালামের সঙ্গে ভালোই জমবে' উড়ন্ত ঢাকার সামনে উজ্জীবিত রাজশাহী ইয়াবা উদ্ধারের ঘটনায় দুই পুলিশ কর্মকর্তা কারাগারে দেশি ক্রিকেটারদের নিয়ে হবে আলাদা টি-টোয়েন্টি লিগ বাজির 'থাবায়' বিপিএল যুক্তরাজ্যে বিমান-হেলিকপ্টার সংঘর্ষে নিহত ৪ টেবিল টপার চট্ট. আবাহনীর সামনে কোচহীন মোহামেডান আগামী মাসেই আসছে বিদেশি আর্চারি কোচ 'রোহিঙ্গা ইস্যুতে জাতিসংঘে প্রস্তাব পাশ সরকারের কূটনৈতিক সফলতা' সাফের জন্য 'তরুণ' জাতীয় দল গড়বে বাফুফে শ্রীলঙ্কায় ভারত-বাংলাদেশের ত্রিদেশীয় সিরিজের সূচি চূড়ান্ত বিয়ে করলেন সেরেনা কেমন হতে পারে আর্জেন্টিনা, ব্রাজিলের গ্রুপ মাহমুদুল্লাহ'র অধিনায়কোচিত ব্যাটিংয়ে খুলনার জয় যুক্তরাজ্যে উড়ন্ত অবস্থায় হেলিকপ্টার-বিমান সংঘর্ষ 'তালাবন্দী' জয়কে উদ্ধারে অপুর বাসায় শাকিব! লজ্জার রেকর্ডে কপিল দেবের পাশে কোহলি এনামুল-সৌম্যর ব্যাটে চিটাগংয়ের চ্যালেঞ্জিং টার্গেট টেলিভিশন প্রোডিউসার অ্যাসোসিয়েশনের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত কেরানীগঞ্জের সব খাল উদ্ধারে পরিকল্পনা নিয়েছি: নসরুল হামিদ ২য় শ্রেণির শিক্ষার্থীকে 'ধর্ষণ', গৃহশিক্ষক আটক চিটাগংয়ের বিপক্ষে টস জিতে বোলিংয়ে খুলনা হলের সামনে থেকে ছাত্রী অপহরণ, বিক্ষোভে উত্তাল রাবি বিপিএলের গ্যালারি থেকে ৭৭ 'জুয়াড়ি' আটক রাজশাহীর কাছে ৭ উইকেটের হার সিলেট সিক্সার্সের পদ্মা সেতুতে বিশ্বের সর্বোচ্চ শক্তির হ্যামার রাসায়নিক হামলা তদন্তে ভেটো দিয়েছে রাশিয়া বঙ্গবন্ধু বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষায় ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস, দণ্ডিত ৭ হিন্দুবাড়িতে আগুন দেয়ার প্রতিবাদে বিভিন্নস্থানে মানববন্ধন নারায়ণগঞ্জে আমীরসহ ১৩ জামায়াত নেতা আটক ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে চোরাই সেগুন কাঠসহ কার্ভাডভ্যান জব্দ ঝিনাইদহে ডাকাতের হামলায় দুই গৃহকর্তা আহত রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব দিতে জাতিসংঘে প্রস্তাব পাস দৌলতদিয়া যৌনপল্লীর দু:খগাথা (ভিডিও) সিনাই উপত্যকায় সন্দেহভাজন ৩ জঙ্গি নিহত নওয়াজ শরিফের আবেদন খারিজ আফগানিস্তানে আরো ৩ হাজার সৈন্য পাঠাবে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের অধীনেই আসছে নির্বাচন হবে: আইনমন্ত্রী শনিবার মুক্তি পাচ্ছে ‘জাস্টিস লিগ’ আফগানিস্থানে আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহত ৭ জেদ্দায় আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা 'ফুডেক্স' অনুষ্ঠিত মার্কিনিদের ইউরোপ ভ্রমণে সতর্ক করলো যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বের ২০টি দেশে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র বন্ধের সিদ্ধান্ত ঘুমের ওষুধ খাইয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা কলেজ ছাত্রকে রাখাইনে সহিংসতা বন্ধের দাবিতে ভারতে বিক্ষোভ সমাবেশ কোনো অবস্থাতেই ক্ষমতা ছাড়বেন না মুগাবে কিউবায় বে কারাগারে চরম মানবিক বিপর্যয়ে বন্দিরা যুক্তরাষ্ট্রে সিনেট সদস্য আল ফ্রাঙ্কের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ লক্ষীপুরে ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ ঢাকা লিট ফেস্টের দ্বিতীয় দিন আজ বন্দি হওয়া রাজপুত্রদের অর্থের বিনিময়ে মুক্তি দেয়ার প্রস্তাব চট্টগ্রামে সেনাবাহিনীর এপিসির সঙ্গে সিএনজির সংঘর্ষে নিহত ২ সৌদির ওপর থেকে অবরোধ প্রত্যাহারের আহ্বান অ্যান্তোনিও গুতেরেসের ভৈরবে দু'পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৩০ ইরানি হস্তক্ষেপকে অবিলম্বে বন্ধের আহ্বান সৌদি আরবের আর্জেন্টিনায় বিভিন্ন কারখানায় শ্রমিক ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদে বিক্ষোভ জন্মদিন যেভাবে কাটলো ঐশ্বরিয়ার কন্যা আরাধ্যর সেনাবাহিনী ছাড়া নির্বাচনে যাওয়া বিপদজনক: আমীর খসরু রোহিঙ্গা ইস্যু এখন বিশ্বব্যাপী সমস্যা : পররাষ্ট্র সচিব সন্ধ্যায় দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি খুলনা-চিটাগাং সহায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে : মির্জা ফখরুল নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন হলে মানুষ মনে রাখবে আ.লীগকে শেখ জামালের দায়িত্বে কোচ মাহবুব হোসেন রক্সি আজ রাতে ডর্টমুন্ডের প্রতিপক্ষ স্টুটগার্ট ইনজুরিতে পড়ে চার সপ্তাহ মাঠের বাইরে মাসচেরানো ‘বাংলাদেশ ভারতের বন্ধু মুখে মুখেই’ সেমিফাইনালে রজার ফেদেরার টস হেরে ব্যাটিংয়ে নাসিরের সিক্সার্স ফুটবল দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত আর্জেন্টাইনের আত্মহত্যা


Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh.
Fax: +8802 9670057, Phone: +88029670058,
Email: somoydigital@somoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে