• সদ্যপ্রাপ্ত৪ দিনের জার্মান সফর শেষে দেশে ফিরলেন প্রধানমন্ত্রী

নির্বাচন ঠেকানোর নামে মানুষ হত্যাকারীদের বিচার গণআদালতে: প্রধানমন্ত্রী

Update: 2017-01-10 19:51:06, Published: 2017-01-10 19:51:08
pm-sova-copy


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সব শ্রেণি পেশার মানুষকে এক হয়েই দেশ থেকে জঙ্গিবাদ নির্মূল করতে হবে। ধর্মের অপব্যাখ্যা দিয়ে চালানো উগ্রবাদ কোনোভাবেই সহ্য করা হবে না। বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের জনসভায় প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, যারা নির্বাচন ঠেকানোর নামে একসময় মানুষ হত্যা করেছিল তাদের গণআদালতে বিচার করা হবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনসভার আয়োজন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের।

যে উদ্যান থেকে ৭১'এ জাতির পিতা স্বাধীনতার ডাক দিয়েছিলেন, স্বদেশের মাটিতে ফিরে যে উদ্যানে প্রথম পা রেখেছিলেন স্বাধীন বাংলার রূপকার বঙ্গবন্ধু, সেই উদ্যানেই জনসভায় বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা। লাখো কর্মী-সমর্থকের উদ্দেশে ভাষণে দলীয় সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন- জাতির পিতাকে হত্যার পরই কলুষিত হয় দেশের রাজনীতি, শুরু হয় ষড়যন্ত্র। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, '৭৫ এ হত্যাকাণ্ডের পর বাংলাদেশে ঘটেছিলো ষড়যন্ত্রের রাজনীতি। বঙ্গবন্ধু যদি বেচে থাকতেন তাহলে আমি দ্যার্থহীন ভাবে বলতে পারি বাংলাদেশ ২৫ থাকে ৩০ বছর আগে উন্নত দেশ হিসেবে গড়ে উঠতো।'

এ সময় বিএনপিকে উদ্দেশ করে শেখ হাসিনা বলেন, যারা ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য দেশের মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করেছে, তাদের বিচার হবে গণআদালতে। তিনি আরো বলেন, 'যে মানুষ হত্যা করে,যারা যুদ্ধাপরাধীদের মন্ত্রী বানায়, যাদের ফাঁসি হয়,অথচ তারা ছিলো তার মন্ত্রী। তাদের হাতে এদেশের গণতন্ত্র ও তাদের মুখে গণতন্ত্র সুরক্ষার কথা মানায় না। জঙ্গিদেরকে তারা উসকে দিচ্ছে।বাংলার জনগণই একদিন তাদের বিচার করবে।গণআদালতে এদের বিচার হবে।'

বেগম খালেদা জিয়া এতিমদের টাকা আত্মসাৎ করার অপরাধেই বিচারের সম্মুখীন হতে ভীত বলেও মন্তব্য করেন শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, 'খালেদা জিয়াকে একটা কথা জিজ্ঞাসা করি। এতিমের তাকা চুরি করে খেয়েছেন। এতিমের নামে টাকা এসেছে। মামলায় হাজিরা দিতে যান। একদিন যান তো দশদিন যান না পালিয়ে বেড়ান ব্যাপারটা কি। এতেইতো ধরা পরে যায় যে চোরের মন পুলিশ পুলিশ।'

দেশের সর্বস্তরের মানুষকে সাথে নিয়ে সরকার সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ প্রতিহত করছে জানিয়ে আওয়ামী লীগ প্রধান বলেন- ধর্মের অপব্যাখ্যায় উগ্রবাদ মেনে নেবে না জাতি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, 'এই বাংলাদেশে কখনো সন্ত্রাসের স্থান হবেনা। তার জন্যে আমরা এদেশের সকল শ্রেণী পেশার মানুষ মসজিদের ইমাম সহ শিক্ষক অভিভাবক সকলের কাছে আহবান জানায়, সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।'

আগামীতে বঙ্গবন্ধুর দেখানো পথেই ক্ষুধা-দারিদ্রমুক্ত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তোলার দৃঢ় অঙ্গীকারও ব্যক্ত করেন আওয়ামী লীগ প্রধান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।




Update: 2017-01-10 19:51:06, Published: 2017-01-10 19:51:08

আপনার মন্তব্য লিখুন

পাঠকের মন্তব্য ( )


More News
  


আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ



সরাসরি যোগাযোগ

৮৯, বীর উত্তম সি. আর. দত্ত রোড, ঢাকা ১২০৫, বাংলাদেশ।
ফ্যাক্স: +৮৮০২ ৯৬৭০০৫৭, ইমেইল: info@somoynews.tv
উপরে en.Somoynews.tv