আপডেট
০৯-০১-২০১৭, ১২:২৬

নির্বাচনে রুশ হ্যাকিং নিয়ে গোয়েন্দা প্রতিবেদন মেনে নিলেন ট্রাম্প

russ-usa-jpg-ed
মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে সাইবার হামলায় অভিযুক্ত রাশিয়ার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন রিপাবলিকান নেতারা। অন্যথায় যুক্তরাষ্ট্র আরও বড় হুমকির মুখে পড়তে পারে বলেও সতর্ক করেছেন রিপাবলিকান সিনেটর জন ম্যাককেইন ও লিন্ডসে গ্রাহাম।
এদিকে, রুশ হ্যাকিং-এর বিষয়ে গোয়েন্দাদের যৌথ প্রতিবেদন মেনে নিয়েছেন পরবর্তী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী চিফ অব স্টাফ রেইন্স প্রিবাসের এমন ঘোষণার পরপরই মস্কোকে শাস্তির মুখোমুখি করার দাবি উঠলো।

ট্রাম্পের দায়িত্ব গ্রহণের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে, ততই বাড়ছে তার ওপর অভ্যন্তরীণ ও বিদেশি চাপ। নির্বাচনে রুশ হ্যাকিং-এর অভিযোগ নিয়ে প্রথম থেকেই সমালোচনায় জর্জরিত ট্রাম্প এবার উভয় সঙ্কটের মুখোমুখি।

সাইবার হামলার জন্য রাশিয়াকে দায়ী করে যৌথ গোয়েন্দা প্রতিবেদন অস্বীকার করার অর্থ হবে গোয়েন্দা সম্প্রদায়কে অগ্রাহ্য করা। আবার গোয়েন্দা তথ্য স্বীকার করলে প্রশ্ন উঠবে নির্বাচনে তার জয়লাভ নিয়ে।

এমন পরিস্থিতির মধ্যেই মার্কিন নির্বাচনে রুশ সাইবার হামলার বিষয়ে গোয়েন্দা প্রতিবেদন মেনে নিলেন ট্রাম্প। রোববার ফক্স নিউজে এক সাক্ষাৎকারে, পরবর্তী মার্কিন প্রশাসনের চিফ অব স্টাফ ও রিপাবলিকান ন্যাশনাল কমিটির চেয়ারম্যান রেইন্স প্রিবাস এ তথ্য জানান।

যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী চিফ অব স্টাফ রেইন্স প্রিবাস বলেন, 'ট্রাম্প বুঝতে পেরেছেন যে, ডেমোক্র্যাট পার্টির বিরুদ্ধে সাইবার হামলার পেছনে মস্কোর হাত ছিলো। এ বিষয়ে পরবর্তীতে কী ব্যবস্থা নেয়া যায়, সে জন্য তিনি একটি সুপারিশ দেয়ার জন্য গোয়েন্দাদের নির্দেশ দিয়েছেন।'


গত শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ, এফবিআই এবং এনএসএ'র যৌথ তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়, রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিনের নির্দেশেই প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্পকে সহযোগিতা করার জন্য সাইবার হামলা চালানো হয়। হ্যাকিং ছাড়াও, উইকিলিকসকে ব্যবহার করে ডেমোক্র্যাট দলের গোপন তথ্য প্রচার ও রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম ও সামাজিক মাধ্যমে ট্রাম্পের পক্ষে প্রচারণা চালানোর প্রমাণ পাওয়ার কথা বলা হয় প্রতিবেদনে।

এ অবস্থায় রোববার রিপাবলিকান দলের দু'জন জ্যেষ্ঠ সিনেটর জন ম্যাককেইন ও লিন্ডসে গ্রাহাম এনবিসি নিউজে এক যৌথ সাক্ষাৎকারে মস্কোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ট্রাম্পের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

রিপাবলিকার সিনেটর লিন্ডসে গ্রাহাম বলেন, 'রাশিয়া যুক্তরাষ্ট্রে অবৈধ হস্তক্ষেপের মাধ্যমে যে অপরাধ করেছে, ট্রাম্পের উচিত তার পাল্টা ব্যবস্থা নেয়া। এবছর রাশিয়া যা করেছে, আগামীতে ইরান কিংবা চীনের মতো মার্কিন বিরোধী দেশগুলো করতে পারে। এখন ডেমোক্র্যাটরা ভুক্তভোগী, আগামী নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টি যে, একই ধরনের সাইবার হামলার শিকার হবে না, তার নিশ্চয়তা কী।'

রিপাবলিকান সিনেটর জন ম্যাককেইন বলেন, 'আমাদের গোয়েন্দা সংস্থাগুলো যে প্রতিবেদন দিয়েছে, আমি বিশ্বাস অবশ্যই তার সত্যতা রয়েছে। এবং সবার উচিত এর ওপর আস্থা রেখে পরবর্তী করণীয় ঠিক করা।'

বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, তিনি রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিনকে কখনও খাটো করে দেখেননি। তবে রুশ হ্যাকিং-এর কারণে মার্কিন সমাজে এতটা প্রভাব পড়বে, তা তিনি বুঝতে পারেননি।

এদিকে, ট্রাম্পের অন্তর্বর্তী প্রশাসনের সঙ্গে নিউইয়র্কে বৈঠক করেছেন ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বোরিস জনসন। প্রথম বারের মতো বাইরের কোনো দেশের প্রতিনিধির সঙ্গে পরবর্তী প্রশাসনের এ বৈঠক ইতিবাচক ও খোলামেলা আলোচনা হয়েছে বলে জানায় কর্তৃপক্ষ।




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে