নাগরিক আইনের দ্বৈত নাগরিকত্বের ধারা নিয়ে প্রবাসীদের মধ্যে শঙ্কা

Update: 2017-01-08 07:51:12, Published: 2017-01-08 07:51:13
citizen-act


বাংলাদেশ নাগরিকত্ব আইন ২০১৬ মন্ত্রিপরিষদে অনুমোদনের পর প্রবাসীদের মধ্যে প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। এমনিতে যুক্তরাজ্যের ভিসা প্রাপ্তিতে অনিশ্চয়তা, প্রবাসীদের দেশে বিনিয়োগে নানা ভোগান্তি, জমিজমা নিয়ে জটিলতার কারণে বর্তমান প্রজন্ম দেশে আসা প্রায় ছেড়েই দিয়েছে।

তার ওপর বিলে দ্বৈত নাগরিকত্বে নতুন আইন সংযোজনের ফলে দেশে আসর একেবারে ছেড়ে দেয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

ইতোমধ্যে সম্পত্তি বিক্রি করে প্রবাসীরা এদেশের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করা শুরু করেছে। তাতে নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে  রেমিটেন্সেও।

বাংলাদেশ নাগরিকত্ব আইন-২০১৬ কার্যকর করতে যাচ্ছে সরকার। গত বছরের পহেলা ফেব্রুয়ারি মন্ত্রী পরিষদে এই আইনটি অনুমোদিত হয়েছে। প্রস্তাবিত আইনে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব এবং দ্বৈত নাগরিকত্ব নিয়ন্ত্রণের জন্য প্রথমবারের মতো প্রণীত হতে যাচ্ছে পূর্ণাঙ্গ আইন।

প্রস্তাবিত এই বিলের ৬টি অধ্যায়ে ২৮টি ধারার মধ্যে ৬ ও ৭ নম্বর ধারায় প্রবাসীদের নাগরিকত্বে সীমাবদ্ধতা এবং দ্বৈত নাগরিকত্বের ক্ষেত্রে কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে।

এই আইন কার্যকর হলে কোনো প্রবাসী দেশের কোনো নির্বাচনে দাঁড়াতে পারবেন না। প্রবাসী কারো সন্তান হলে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব নিতে হবে।

অ্যাডভোকেট এমাদ উল্লাহ শহিদুল ইসলাম বলেন, ছেলেমেয়েরা জন্মের পর একটা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে নাগরিকত্ব নিতে ব্যর্থ হয় অথবা না পায় তবে এই সম্পত্তির কি হবে। এটা হাত ছাড়া হবে এই অনিশ্চয়তার মধ্যে তারা এটা নিয়ে আশংকা করছেন।

এই আতঙ্কে অনেক প্রবাসী ইতোমধ্যে সম্পত্তি বিক্রি করা শুরু করেছেন।    

যুক্তরাজ্যের কাউন্সিলর মোহাম্মদ সুলতান বলেন, 'সিলেট শহরে বাসাবাড়ি আছে,দোকানপাট আছে আমিও আতঙ্কের মধ্যে আছি।ভবিষ্যতে আমার ছেলেমেয়েরা না আসতে পারলে এটা দিয়ে কি করবো।'

বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে বৈদেশিক মুদ্রা পাঠানোর ক্ষেত্রেও।
 
পূবালী ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপক বলেন, এই অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে সিটিজেন অ্যাক্ট চালু হয় । এক্ষেত্রে প্রবাসীরা একে কোন ভাবেই গ্রহণ করবেনা। তারা রেমিটেন্সের হার আরো কমিয়ে দিতে পারে।

এমন পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের জন্য প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা করেছেন প্রবাসীরা।

তারা বলেন, ইতোমধ্যে প্রবাসীদের মধ্যে আন্দোলন শুরু হয়ে গেছে। এটা থেকে বেরিয়ে আসার একটি মাত্র পথ রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী ও তার সংসদ যদি একমাত্র চায় তাহলে জটিলতা থেকে প্রবাসীরা মুক্তি পাবে।

বর্তমানে নাগরিকত্ব বিষয়ক বিধি-বিধান ‘দি সিটিজেনশীপ অ্যাক্ট-১৯৫১’ এবং ‘দি বাংলাদেশ সিটিজেনশীপ টেম্পোরারি প্রভিসন্স অর্ডার-১৯৭২-কে একীভূত করে বাংলাদেশ নাগরিকত্ব আইন ২০১৬ প্রণয়ন করা হয়েছে।




Update: 2017-01-08 07:51:12, Published: 2017-01-08 07:51:13

আপনার মন্তব্য লিখুন

পাঠকের মন্তব্য ( )


More News
  


আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ


সর্বাধিক পঠিত (সাম্প্রতিক)


সরাসরি যোগাযোগ

৮৯, বীর উত্তম সি. আর. দত্ত রোড, ঢাকা ১২০৫, বাংলাদেশ।
ফ্যাক্স: +৮৮০২ ৯৬৭০০৫৭, ইমেইল: info@somoynews.tv
উপরে en.Somoynews.tv