আপডেট
০৯-১২-২০১৫, ০০:১৮

জয় রথ থামল কুমিল্লার

rangpur-win-final
জয় রথ থামল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের। টানা তিন ম্যাচ জয়ের পর রংপুর রাইডার্সের কাছে হারলো ২১ রানে। জহুরুল ইসলামের ব্যাটিং নৈপুণ্যে রংপুরের ১৫৩ রান তাড়া করতে নেমে ১৩২ রানে গুটিয়ে যায় কুমিল্লা।
এই হারে তারতম্য ঘটেছে পয়েন্ট টেবিলেও। কুমিল্লাকে পেছনে ফেলে এখন বিপিএলের শীর্ষদল সাকিবের রংপুর রাইডার্স। এ ম্যাচেও টানা দ্বিতীয় বারের মতো সেরা ক্রিকেটার হন জহুরুল হক অমি।

যে পিচে ৫৮, ৫৯ রানের মতো লো স্কোরিং ম্যাচ হয়। সেখানে ১৫৩ রানকে অনেক কিছুই বলতে হবে। আর যাই হোক অন্তত বহু ম্যাচ পর একটা হাই স্কোরিং ম্যাচ দেখল ঘরোয়া ক্রিকেটের জমকালো আসর। প্লে অফ নিশ্চিত করা দুই দল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস ও রংপুর রাইডার্স। এদিনও টস জিতলেন মাশরাফি। নিলেন বোলিংয়ের সিদ্ধান্তই।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই বিপর্যয়ে রংপুর রাইডার্স। ৫ রান করে আবু হায়দার রনির শিকার বিবর্ণ সৌম্য সরকার। আরেক ওপেনার লেন্ডল সিমন্স প্যাভিলিয়নে ফেরেন ১৩ রান করে। ২০ রান করে প্রতিরোধ গড়লেও কামরুল ইসলামের শিকার হন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

রংপুরের ব্যাটিং বিপর্যয়ে জ্বলে ওঠে জহুরুল ইসলামের ব্যাট। ৬২ রানের দায়িত্বশীল এক ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন জহুরুল। আর শেষদিকে ড্যারেন স্যামির ২৪ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৫৩ রানের লড়াকু সংগ্রহ গড়ে রংপুর।

১৫৪ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে দারুণ শুরু করে কুমিল্লা। ২৪ বলে ৩৮ রানের ইনিংস খেলে দলীয় ৪৮ রানে আউট হন ইমরুল কায়েস। ইমরুলের বিদায়ের পর মাঝপথে ভেঙে পড়ে কুমিল্লার ব্যাটিং। খুব দ্রুতই সাজঘরে ফেরেন মাহমুদুল হাসান, শেহজাদ, জাইদি ও শুভাগত। এমনকি প্রথমবারের মতো কুমিল্লার জার্সি গায়ে খেলতে নামা ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার আন্দ্রে রাসেলও ব্যর্থ ব্যাট হাতে।


এক পাশ সামলে রাখা শোয়েব মালিক ১৫ রানে ফিরে গেলে ক্ষীণ হয়ে আসে কুমিল্লার জয়ের আশা। শেষদিকে ৬ বলে ১৮ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলা আবু হায়দার রনি পেরে ওঠেননি আস্কিং রান রেটের কাছে। শেষ পর্যন্ত ১৩২ রানে গুটিয়ে যায় কুমিল্লা আর আগের লেগে হারের প্রতিশোধ নেয় রংপুর।




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TV DMCA.com Protection Status
উপরে