ছবির মতো পরিকল্পিত শহর চীনের শেনজেন

Update: 2016-06-06 08:31:12, Published: 2016-06-06 08:31:12
shenzhen-city


আকাশ ছোঁয়ার প্রতিযোগিতায় সবকিছুই পরিকল্পিত, সাজানো, গোছানো ছবির মতো একটি শহর। চীনের প্রথম বিশেষায়িত অর্থনৈতিক অঞ্চল শেনজেন মাত্র ৩৬ বছরেই পরিণত হয়েছে বিশ্বের অন্যতম অর্থনৈতিক প্রাণকেন্দ্রে।

ব্যবসায়িক নগরী হিসেবে এটি পরিচিত হলেও পুরো শহরটিকেই গড়ে তোলা হয়েছে পরিবেশ বান্ধব হিসেবে, যা অনুকরণীয় হতে পারে বাংলাদেশের নগরীগুলোর জন্য।

গুয়াংজু প্রদেশ থেকে একশ কিলোমিটার দুরে হংকং লাগোয়া চীনের শেনজেন সিটি। চীন বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলের পরিকল্পনা ১৯৮০ সালে প্রথম গড়ে তোলে এ শহর।

মাত্র ৩ দশকেই শেনজেনের অবস্থান এখন বিশ্ব অর্থনীতির ১৯তম প্রাণ কেন্দ্র হিসেবে। কংকা, স্কাইওর্থ, টেনসেন্ট, ওয়ান প্লাস এবং হুয়াওয়ের মতো দেশি প্রতিষ্ঠানের সদর দপ্তর থেকে শুরু করে বিদেশি বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানও চীনে তাদের ব্যবসা পরিচালনা করে এ শহর থেকে।

প্রায় ২ হাজার বর্গকিলোমিটার আয়তনের এই শহরটির গত বছর জিডিপি ছিলো বাংলাদেশের বাজেটের প্রায় ৭ গুন, ২২ লাখ কোটি টাকা। পুরো চীনের গড় জিডিপি প্রবৃদ্ধি যেখানে ৯ দশমিক ৮ সেখানে শুধু শেনজেনেরই প্রবৃদ্ধি অর্জন ১৬ দশমিক ৩ ভাগ।

বাণিজ্য নগরী হলেও পুরো শহরটিই গড়ে তোলা হয়েছে পরিবেশকে গুরুত্ব দিয়ে। পরিকল্পিত প্রতিটি ভবনের সামনে সড়ক বিভাজনে কিংবা রাস্তার দুই পাশে চোখে পড়বে গাছের দীর্ঘ সারি।

ঢাকা শহরে যেখানে ব্যক্তিগত গাড়ির সংখ্যা নিয়ে উদ্বেগ বাড়ছে সেখানে প্রায় ১ কোটি ৭ লাখ জনসংখ্যার এই শহরের প্রায় ৭০ ভাগ মানুষের ব্যক্তিগত গাড়ি থাকলেও পরিকল্পিত সড়ক ব্যবস্থাপনার কারণে নেই কোনো যানজট কিংবা হর্নের শব্দ।

স্থানীয় এক নারী বলেন, ‘শেনজেন শহরটিকে আমরা নানা কারণেই ভালোবাসি। এখানকার মানুষ বন্ধু ভাবাপন্ন। যেকোনো দেশের মানুষকেই আমরা স্বাগত জানাই।’

অপর এক ব্যক্তি বলেন, ‘আমাদের শহরটা একবারেই নতুন। আমরা এটিকে সবসময় পরিষ্কার রাখি। এটাই আমাদের ভালোবাসা।’

ঘুরতে আসা এক ব্যক্তি বলেন, ‘পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের শহরে আমি গিয়েছি। কিন্তু শেনজেনের মতো এত সবুজ শহর খুব কম আছে।’

স্থানীয় এক নারী বলেন, ‘শেনজেন বাণিজ্যিক নগরী হলেও এখানে নানা সুযোগ সুবিধার কারণে পর্যটকরাও এ শহরটিকে খুব পছন্দ করেন।’

ভূমির পরিকল্পিত ব্যবহার নিশ্চিত করতে আকাশ ছোঁয়ার পরিকল্পনায় বেড়ে উঠছে সেনজেন। শহরে ১শ তলার কিংকে ভবন ছাড়াও ২০০ মিটারের বেশি উচ্চতার ভবন রয়েছে ৫৯টি।

Update: 2016-06-06 08:31:12, Published: 2016-06-06 08:31:12

আপনার মন্তব্য লিখুন

পাঠকের মন্তব্য ( )


More News
  


আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ



সরাসরি যোগাযোগ

৮৯, বীর উত্তম সি. আর. দত্ত রোড, ঢাকা ১২০৫, বাংলাদেশ।
ফ্যাক্স: +৮৮০২ ৯৬৭০০৫৭, ইমেইল: info@somoynews.tv
উপরে en.Somoynews.tv