• এইমাত্র পাওয়াময়মনসিংহের ভালুকায় সিমেন্ট বোঝায় ট্রাক খাদে পড়ে ১০ জন নিহত। উদ্ধার কাজ চালাচ্ছে ফায়ার সার্ভিস।
  • এইমাত্র পাওয়াসিলেটে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে একটি বাড়ি ঘিরে রেখেছে পুলিশ। বাড়ির ভিতরে বিস্ফোরণের শব্দ পাওয়া গেছে

কমে যাচ্ছে বৈকাল হ্রদের পানির স্তর

Update: 2015-01-17 15:47:13, Published: 2015-01-17 15:47:13
কমে যাচ্ছে বৈকাল হ্রদের পানির স্তর
আশঙ্কাজনক হারে কমতে শুরু করেছে বৈকাল হ্রদ ও এর আশেপাশের এলাকার পানির স্তর। একে আবহাওয়া ও জলবায়ুর ক্ষতিকর প্রভাবের ফল বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

রাশিয়ার সাইবেরিয়া অঞ্চলের দক্ষিণভাগে অবস্থিত জলাধার বৈকাল হ্রদ। গবেষকদের মতে, ৩১ হাজার ৫শ' বর্গকিলোমিটার এলাকা জুড়ে বিস্তৃত এ হ্রদটি প্রায় ২ কোটি ৫০ লাখ বছরের পুরনো। আয়তন ও গভীরতার দিক থেকে এটি বিশ্বের সর্ববৃহৎ সুপেয় পানির হ্রদ। তবে সম্প্রতি আশঙ্কাজনক হারে কমতে শুরু করেছে এই হ্রদ ও এর আশেপাশের এলাকার পানির স্তর।

স্থানীয় একজন বলেন, ' কুয়ায় কাদা ছাড়া আর কিছুই নেই। গত গ্রীষ্ম থেকেই এই অবস্থা এখানে। অনেক দূর থেকে পানি এনে ব্যবহার করতে হচ্ছে আমাদের।'

সম্প্রতি এক জরিপে দেখা গেছে গত ৬০ বছরের রেকর্ড ভেঙে সর্বনিম্ন স্তরে নেমেছে বৈকাল হ্রদের পানি। একে জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিকর প্রভাব বলেই মনে করছেন গবেষকেরা।

গবেষক আন্দ্রেই জাদানোভ বলেন, 'বছরের একটা সময় পানির স্তর নিচে নেমে যায়। এ নিয়মই চক্রাকারে ঘটতে থাকে এই হ্রদে। তবে এবার যা দেখছি তা অন্যরকম। একে স্বাভাবিক বলে উড়িয়ে দেয়া ঠিক হবে না। তবে পানির স্তর নিচে নেমে যাওয়ার কারণ বের করতে আরও সময় দরকার আমাদের।'

রাশিয়ার বিভিন্ন স্থান থেকে তিনশ'র বেশি নদী এসে মিশেছে এই হ্রদে। কেবল মাত্র দু'টি নদীর মাধ্যমে বৈকাল হ্রদের পানি বাইরে নিষ্কাশিত হয়। অবশ্য পানির স্তর কমে যাওয়ার কারণ হিসেবে মানুষের অসচেতনতাকে দায়ী করছেন পরিবেশবাদীরা।

পরিবেশবাদী মারিনা রিখভানোভা বলেন, ' যে নদী গুলো থেকে পানি এই হ্রদে প্রবেশ করে তা বিভিন্ন কারণে বাঁধাগ্রস্ত হচ্ছে। অন্যদিকে ইরখুস্ক জলবিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য বানানো বাঁধের কারণে প্রচুর পানি চলে যাচ্ছে সেখানে। পরিবেশ এবং মানবসৃষ্ট কারণেই কমতে শুরু করেছে বৈকালের স্বাভাবিক পানির স্তর।'

বৈকাল হ্রদের পানিতে অক্সিজেনের পরিমাণ বেশী থাকায় এর ৫ হাজার ফুট গভীর পর্যন্ত জলজ প্রাণীর প্রাণের অস্তিত্ব পাওয়া যায়। ১৭শ'রও বেশী প্রজাতির প্রাণী ও উদ্ভিদ রয়েছে এই হ্রদে। পরিবেশবাদীরা বলছেন, এতে করে হুমকির মুখে পড়তে যাচ্ছে হ্রদের জীব বৈচিত্র্য। ১৯৯৬ সালে বৈকাল হ্রদকে বিশ্ব ঐতিহ্য হিসেবে তালিকাভুক্ত করে ইউনেস্কো।

Update: 2015-01-17 15:47:13, Published: 2015-01-17 15:47:13

আপনার মন্তব্য লিখুন

পাঠকের মন্তব্য ( )


More News
  


আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ


সর্বাধিক পঠিত (সাম্প্রতিক)


Contact Address

89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh.
Fax: +8802 9670057, Email: info@somoynews.tv
উপরে en.Somoynews.tv