আমরা কেমন ঢাকা চাই

Update: 2015-04-23 20:57:07, Published: 2015-04-23 19:37:45
dhaka
আর কয়েকদিন পার হলেই অনুষ্ঠিত হবে ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচন। অতীতের যেকোনো সিটি করপোরেশন নির্বাচনের চেয়ে এবারের নির্বাচন নানা দিক দিয়ে তাৎপর্যপূর্ণ।  কারণ, দীর্ঘ রাজনৈতিক অস্থিরতার পর এই সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সরকার আর বিরোধীদল মোটামুটি একটি শান্তিপূর্ণসহ অবস্থানে এসেছে বলে মনে হচ্ছে। এই রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার পাশাপাশি যে বিষয়টি বিশেষভাবে উল্লেখ করার মতো, তা হচ্ছে এবারের নির্বাচনের প্রার্থীগণ।

অতীতের যেকোনো নির্বাচনের প্রার্থীদের তুলনায় এবার মেয়র প্রার্থীগণ শিক্ষিত, তরুণ এবং আধুনিক বিশ্বের সাথে তারা অত্যন্ত সু-পরিচিত। আওয়ামী সমর্থিত প্রার্থী আনিসুল হক, মাহী বি চৌধুরী, ববি হাজ্জাজ অথবা বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী তাবিথ আউয়াল তার পেশাগত কারণে এবং পারিবারিক সুবাদে পৃথিবীর বিভিন্ন বড় বড় নগরী খুব কাছ থেকে দেখার সুযোগ পেয়েছেন। আর তাই  সঙ্গত কারণেই এবারের মেয়র প্রার্থীদের কাছে নগরবাসীর চাওয়াটা একটু ভিন্ন হওয়াটাই স্বাভাবিক।



গত সপ্তাহে পেশাগত কারণে হংকং যাওয়া হয়েছিল। বর্তমান পৃথিবীর আধুনিক নগরীর মধ্যে হংকং একটি অন্যতম নগরী। গভীর রাত কিংবা দিনের ব্যস্ততম শহরে চলাচলের সময় একটি বারও কাউকে দেখিটি ট্রাফিক সিগন্যাল অমান্য করে রাস্তা পার হতে। একজন অন্ধ ব্যক্তিও যাতে সিগন্যাল মেনে চলতে পারে তার জন্যও রয়েছে সাউন্ড সিগন্যালিং ব্যবস্থা আর তিনিও তা মেনে চলছেন অনায়াসে।  ট্যাক্সি কিংবা অন্য কোনো যানবাহনকে দেখা যায়নি সিগন্যাল না মেনে রাস্তায় চলতে। আর রাস্তার পাশের প্রশস্ত ফুটপাতে দেখা যায়নি হকারদের দৌরাত্ম্য আর কোনো একজন পথচারীকে দেখা যায়নি ফুটপাত ব্যতীত অন্য কোনো স্থান দিয়ে হাঁটতে।

রাস্তায় হাটার সময় তাই হঠাৎই মনে হয়েছিলো আমাদের বর্তমান মেয়র প্রার্থীদের মধ্যে অধিকাংশ প্রার্থীই পেশাগত অথবা ব্যক্তিগত কারণে ছোট্ট এই আধুনিক শহরটিতে এসেছিলেন অসংখ্যবার।যখন তারা একজন সাধারণ মানুষ হিসেবে এই শহরের রাস্তাঘাটে ঘুরেছেন, এই নগরের রাস্তা ঘাট, ট্রাফিক ব্যবস্থা, জনগণের নগরের আইন সম্বন্ধে সচেতনতা, নাগরিক সুযোগ সুবিধা সমূহ আমার মত তাদের চোখেও অব্যশই পড়েছে।

তারাও হয়তো একসময় কল্পনা করেছেন, আমার শহরটি যদি এমন সুন্দর, পরিচ্ছন্ন আর গোছানো হতো! অতীতের কোন মেয়রের কাছে থেকে না হলেও সঙ্গত কারণেই হয়তো আমার মত অনেকেরই প্রত্যাশার সীমাটা এবারে এই শিক্ষিত আধুনিক মেয়র প্রার্থীগণের কাছে বেড়ে গেছে।



কারণ একটি আধুনিক শহর সম্পর্কে তাদের জ্ঞানের স্বল্পতা নেই, আর চোখের সামনে তারা দেখেছেন এরকম শত শত আধুনিক নগরী। বই পুস্তক অথবা পত্র-পত্রিকার সাহায্য নেয়া তাদের প্রয়োজন নেই কারণ তারা এরকম অসংখ্য নগরী স্বচক্ষে দেখার সুযোগ পেয়েছেন অসংখ্য বার। একদিন যদি তারা এরকম পরিপাটি নগরী দেখে নিজের নগরপিতার সমালোচনা করে থাকেন, এবার নগর পিতা হয়ে নিজের শহরটিকে পরিপাটি করে গড়ে তোলার পালা তাদের। ব্যক্তিগতভাবে আমি বা আমার মত অনেকেই তাদের কাছে প্রত্যাশা করি, পৃথিবীর যে কোন উন্নত একটি নগরীর আদলে তাদের স্বপ্নে, তাদের কল্পনায় গড়ে উঠুক প্রাণের শহর - ঢাকা। আর কল্পনা থেকে তাদের সততা, মেধা আর একাগ্রতার হাত ধরে একটু একটু করে পরিবর্তিত হতে থাকুক আমাদের এই প্রিয় শহরটি। যে শহরটি হবে যানযট মুক্ত পরিচ্ছন্ন, মানুষ যেখানে যত্র তত্র গাড়ি পার্ক করবে না। ফুটপাত দখল করে বসবে না হকাররা অথবা রেলস্টেশন অথবা বাসস্ট্যান্ড দখল থাকবে না একটি বিশেষ শ্রেণীর দখলবাজদের হাতে। লঞ্চঘাট হবে আধুনিক সুবিধায় সুসজ্জিত। নাগরিকদের নগরের পরিচ্ছন্নতা, ট্রাফিক আইন এবং শৃঙ্খলা সম্বন্ধে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য তিনি বিশেষ কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করবেন। 



এই সচেতনতা সৃষ্টির মাধ্যমে একসময় আমরা নোংরা করবো না আমাদের নগরীকে, যেমনটি আমরা করিনা দেশের বাইরে কোনো উন্নত নগরে ভ্রমণের সময়। আমরা সবুজ সংকেত ব্যতীত রাস্তা পার হবো না যেমনটি আমরা পার হই না অন্য যেকোনো উন্নত দেশে ভ্রমণের সময়।

আমরা নগরের ছোট থেকে বড় প্রতিটি ক্ষেত্রেই আইন কানুন সম্বন্ধে সচেতন থাকবো যেমনটি আমরা অন্য যেকোনো উন্নত নগর ভ্রমণের সময় সচেতন থাকি। আর এই বিষয়গুলি সাধারণ মানুষের কাছে তুলে ধরা থেকে বাস্তবায়নের অগ্রণী ভূমিকা পালন করবেন আমাদের এবারের শিক্ষিত, তরুণ আর আধুনিক মেয়র প্রার্থীগণের মধ্যে যিনি নির্বাচিত হবেন। আর তাকে সহযোগিতা করবে যারা নির্বাচিত হতে পারবেন না তারাও।

আমরা এবারের মেয়র প্রার্থীগণকে গতানুগতিক রাজনৈতিক চর্চা থেকে একটু ভিন্ন করে দেখতে চাই। কল্পনার পরিপাটি নগরটিকে এবারের নির্বাচিত মেয়রের হাত ধরে দেখতে চাই বাস্তবে। আর তা যে একেবারেই সম্ভব তা সুন্দর সুসজ্জিত হাতিরঝিল-বেগুনবাড়ি অথবা  যানজটহীন কুড়িল বিশ্বরোড এলাকায় চোখ রাখলেই আমার মত যে কেউ বিশ্বাস করবেন অবশ্যই।

লেখক: মো. মোক্তার হোসেন

কবি ও ব্লগার

Update: 2015-04-23 20:57:07, Published: 2015-04-23 19:37:45

আপনার মন্তব্য লিখুন

পাঠকের মন্তব্য ( 1 )

  • ফারজানা আফরিন: at 2015-08-06 18:48:35
    ঢাকায় বেড়াতে গিয়ে জ্যাম... জ্যাম... জ্যাম। সমাধান চাই

More News
  


আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ



সরাসরি যোগাযোগ

৮৯, বীর উত্তম সি. আর. দত্ত রোড, ঢাকা ১২০৫, বাংলাদেশ।
ফ্যাক্স: +৮৮০২ ৯৬৭০০৫৭, ইমেইল: info@somoynews.tv
উপরে en.Somoynews.tv