bpl bpl
বিপিএল দল সূচি ফলাফল পয়েন্ট টেবিল খবর ছবি ভিডিও

উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে শেষ ওভারে হেরে গেল মাহমুদুল্লাহর দল

muhummudllah

দুঃসময় পেছনে ফেলতে পারলো না খুলনা টাইটান্স। টানটান উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচের শেষ ওভারে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের কাছে ৩ উইকেটে হেরেছে মাহমুদুল্লাহর দল। টস হেরে আগে ব্যাটিং করে ৭ উইকেটে ১৮২ রান সংগ্রহ করে খুলনা। জবাবে তামিমের ফিফটিতে ২ বল হাতে রেখেই জয় নিশ্চিত করে কুমিল্লা।

সুরমা পাড়ে এসেই প্রথম জয়ের সুবাস পেয়েছিলো খুলনা টাইটান্স। তবে ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারেনি তারা। কুমিল্লার দাপটের কাছে হেরে আবারো হতাশায় ডুবেছে মাহমুদুল্লাহ বাহিনী। আর তামিম, এনামুল আর আফ্রিদিদের কাঁধে ভর করে সিলেট স্টেডিয়ামের রাতের আকাশে বিজয় কেতন উড়িয়েই মাঠ ছেড়েছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় খুলনা। প্রথম ওভারেই জহুরুল ইসলাম অমির উইকেট হারায় রূপসা পাড়ের দলটি। হাল ধরতে এসে একরকম তাণ্ডব শুরু করেন জুনায়েদ সিদ্দিকী ও মোহাম্মদ আল আমিন । দ্রুত গতিতে রান তুলতে থাকে মাহমুদুল্লাহ'র দল। পাওয়ার প্লে'তে এই দু জনের ব্যাট থেকে আসে ৬৫ রান।

দিশেহারা তখন কুমিল্লার বোলাররা। দু'জনের ব্যাটে বড় স্কোরের স্বপ্ন দেখায় খুলনাকে। তবে দলীয় ৭৩ রানেই ঘটে ছন্দপতন। আফ্রিদির বলে আল আমিন ৩২ রানে আউট হলে ভাঙ্গে এই জুটি। আস্থার প্রতিদান দিতে পারেননি অধিনায়ক মাহমুদুল্লাও।

তবে বিপদের দিনে জ্বলে ওঠে জুনায়েদের ব্যাট। ৪১ বলে তার ৭০ রানের সঙ্গে ২৯ রান করেন মালান। আর তাতেই ৭ উইকেট হারিয়ে স্কোরবোর্ডে ১৮১ রান তোলে খুলনা টাইটান্স। আফ্রিদি নেন তিনটি উইকেট।

জবাব দিতে নেমে শুরু থেকেই আগ্রাসী কুমিল্লার দুই ওপেনার তামিম ও এনামুল। চার ছক্কায় আনন্দে ভাসান সিলেটের দর্শকদের। বেপরোয়া হয়ে ওঠা এ জুটিকে ১১৫ রানে থামান লঙ্কান পেসার লাসিথ মালিঙ্গা। আউট হওয়ার আগে ৪২ বলে তামিমের ৭৩ রানের ইনিংসটা নয়ন জুড়িয়েছে সিলেট বাসীর।

সঙ্গীর বিদায়ের পর এনামুল ফেরেন ৪০ রান করে। জুনায়েদ খানের আগুনে বোলিংয়ে অধিনায়ক ইমরুল ২৮ রান করে আউট হওয়ার পর ফিরে যান ডসনও। তবে পেরেরা ও আফ্রিদিরা মিলে ২ বল হাতে রেখেই কুমিল্লাকে নিয়ে যান জয়ের বন্দরে।