fair            

বিক্রি বন্ধ ‘প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ-২’

paradoxical-sajid

আরিফ আজাদের লেখা দ্বিতীয় বই ‘প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ-২’ বিক্রি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। প্রকাশকের হোল্ডিং নম্বর না থাকায় একুশে বইমেলায় থেকে বইটি সরিয়ে নিতে বলেছে বাংলা একাডেমি কর্তৃপক্ষ।

গত ১৫ ফেব্রুয়ারি বইটি প্রকাশের পরপরই ব্যাপকহারে বিক্রি হচ্ছিল। প্রতি দিনই বইটি স্টক আউট হচ্ছিল বলে জানিয়েছেন এর লেখক আরিফ আজাদ। 

এক সপ্তাহের মধ্যে ৮ হাজার কপির বেশি বিক্রি হয়ে গেছে বলে প্রকাশনা সংস্থাটি জানিয়েছে। এছাড়া অনলাইনে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হওয়া বইয়ের তালিকায় রয়েছে এই বইটি।

আরিফ আজাদ বলেন, ‘আমার বইটা মেলায় এসেছে ১৫ তারিখে। তারপর থেকেই সেটার খুব চাহিদা ছিল, প্রতিদিনই বইটা স্টক আউট হয়ে যাচ্ছিল। গতকাল বাংলা একাডেমির একজন কর্মকর্তা এসে প্রথমে বইটা দেখতে চান। এরপর তিনি বলেন, আপনারা আর এই বইটা বিক্রি করবেন না। যখন তার কাছে কারণ জানতে চাওয়া হলো, তখন তিনি বলছেন, প্রকাশনী অফিসের হোল্ডিং নম্বর নেই, তাই এখানে বিক্রি করা যাবে না।’

ঠিকানা কেন দেয়া হয়নি, সেটা জানতে চাইলে প্রকাশনী প্রতিষ্ঠান সমকালীন প্রকাশনীর কর্মকর্তা এস এম আখতারুল হক বলছেন, ‘হোল্ডিং নম্বরটা আসলে ভুলে বাদ পড়ে গেছে। আমাদের সবগুলো বইতেই সেটা বাদ পড়েছে। এ কারণে পুরো মেলাতেই আমাদের বই বিক্রি বন্ধ রেখেছি।’

এর আগে ২০১৭ সালে 'প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ' নামে এর প্রথম পর্বটি প্রকাশিত হয়। তারই ধারাবাহিকতায় এই দ্বিতীয় বইটি লেখা হয়েছে।

অনলাইন বই বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান 'রকমারি' ডটকমের তথ্য অনুযায়ী, সেই বইটি এখনো তাদের বিক্রি তালিকার শীর্ষে রয়েছে। দ্বিতীয় বইটিও রয়েছে বিক্রিত বইয়ের তালিকার শীর্ষে।

প্রকাশিত বই
বই মেলার সংবাদ
ছবি
বই মেলায় আড্ডা
book-fari-adda
b5
b4
b3
b2
b1
ভিডিও
SOMOY
SOMOY
SOMOY
SOMOY
SOMOY
SOMOY
SOMOY
SOMOY
SOMOY
SOMOY
SOMOY
SOMOY
SOMOY
SOMOY
SOMOY
SOMOY
fair            
somoy