দেশের বিভিন্ন স্থানে ভাংচুর-সংঘর্ষ
সময়নিউজ.টিভি: ২০১৩-০৩-০৫
বিএনপির ডাকা সকাল-সন্ধ্যা হরতালে রাজধানীর বাইরে দেশের বিভিন্ন স্থানে বিচ্ছিন্ন ভাংচুর, ককটেল বিস্ফোরণ, সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।
রংপুর: রংপুরে বেলা ১২টার দিকে হরতাল সমর্থকরা গণজাগরণ মঞ্চ ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। পরে হরতাল সমর্থকরা তিনটি মোটরসাইকেল ভাংচুর সহ নগরীর বিভিন্ন এলাকায় টায়ার জ্বালিয়ে ও গাছের গুড়ি ফেলে সড়ক অবরোধ করে। পুলিশ নগরীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ২০ জনকে আটক করেছে।
নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে বিএনপির নেতাকর্মীদের সংঘর্ষে সাংবাদিক, জেলা বিএনপির সভাপতিসহ আহত হয়েছে দশজন। পুলিশ জানায়, সকালে শহরের দ্বিগুবাবুর বাজার এলাকা থেকে জেলা বিএনপি হরতালের সমর্থনে একটি মিছিল বের হলে পুলিশ লাঠিচার্জ করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এসময় ২জন সাংবাদিক, জেলা বিএনপির সভাপতিসহ ১০ জন আহত হয়। পরে নেতাকর্মীরা গলাচিপা এলাকায় গিয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে স্লোগান দেয় ও পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। এসময় দুপক্ষের সংঘর্ষ শুরু হলে পুলিশ টিয়ার শেল ও ২৫ রাউন্ড শট গানের গুলি ছোড়ে। তবে এসময় কেউ হতাহত হয়নি। এছাড়া রুপগঞ্জের বরাবো এলাকাতেও বিএনপি কর্মীরা একটি গাড়ি ভাংচুর করলে পুলিশের সঙ্গে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।
বরিশাল: বরিশালে বিএনপি ডাকা সকাল সন্ধ্যা হরতালের প্রথম প্রহরেই বিভিন্ন স্থানে চোরাগুপ্তা হামলা, পুলিশের ওপর ইট পাটকেল নিক্ষেপ, এবং ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। ভোরে মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক আফরোজা খানম নাছরিন সহকর্মীদের নিয়ে নবগ্রাম রোডে বেরিকেট দিয়ে টায়ার জ্বালিয়ে দেয়। এসময় তারা একটি রিক্সায় ভাঙচুর চালায়। এর কিছুক্ষণ পর ঘটনাস্থলে পুলিশ হাজির হলে তাদের ওপর ইট পাটকেল নিক্ষেপ করা হয়। এসময় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।
নরসিংদী: নরসিংদীতে রেল লাইনে আগুন ও মহাসড়কে দুটি ককটেল বিষ্ফোরন ঘটিয়েছে পিকেটাররা। মঙ্গলবার সকালে চিনিশপুরে রেল লাইনে আগুন দিলে সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ গিয়ে সে আগুন নিভিয়ে ফেলে। অন্যদিকে ঢাকা সিলেট মহাসড়কের জেলখানা মোড়ে দুটি ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া মাধবদীতে ঢাকা সিলেট মহাসড়কে গাছের গুড়ি ফেলে সড়ক অবরোধ করে হরতালের সমর্থনে মিছিল বের করে জেলঅ বিএনপি। এতে ঢাকা সিলেট মহসড়কে সকল প্রকার যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।
ফেনী: পিকেটিং এর মধ্যদিয়ে ফেনীতে শুরু হয়েছে বিএনপির সকাল সন্ধ্যা হরতাল। রেলওয়ে সূত্র জানায়, সকালে ঢাকা চট্টগ্রাম রেলপথের ফেনীর দেওয়ানগঞ্জ রেল গেইট এলাকায় লাইনের উপর বস্তা ফেলে ব্যারিকেড দেয় হরতাল সমর্থকরা। এছাড়া পিকেটাররা সেখানে ডাবল লাইন স্থাপনের কাজ ব্যবহৃত যানবাহন ভাংচুর করে। এদিকে সকালে শহরের খেজুর তলা থেকে বিএনপির একটি মিছিল বের হয়।
রাজশাহী: রাজশাহীতে হরতালে বিচ্ছিন্ন ভাবে পিকেটিং এর ঘটনা ঘটেছে। ভোরে বহরমপুর বাইপাস এলাকায় রেল লাইনের উপর টায়ার জ্বালিয়ে পিকেটিং করে হরতাল সমর্থকরা। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছালে পিকেটাররা পালিয়ে যায়। এরপর নগরীর ভুবনমোহন পার্কের সামনে থেকে মহানগর বিএনপি হরতালের সমর্থনে একটি মিছিল বের করে। এর আগে রাজপাড়া থানা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা। হরতালে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর টহল জোরদার করা হয়েছে।
চাঁদপুর: চাঁদপুরে বিভিন্ন স্থানে গাছের গুড়ি ফেলে এবং আগুন জ্বালিয়ে হরতাল সমর্থকরা সড়ক অবরোধ করায় বন্ধ রয়েছে বিভিন্ন সড়ক। জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে বিএনপি-জামায়াতের ৪ কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। সকালে হরতালের সমর্থনে বিএনপি ও এর অঙ্গ সংগঠন শহরে খণ্ড খণ্ড মিছিল বের করে। এসময় তারা চাঁদপুর-লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর-কুমিল্লা এবং চাঁদপুর-মতলব-ঢাকা সড়ক ছাড়া জেলার অভ্যন্তরীণ বিভিন্ন সড়ক অবরোধ করে। এদিকে হরতালের সমর্থনে শপথ চত্বর থেকে মিছিল বের করার চেষ্টা করলে যুবলীগ ও ছাত্র লীগের নেতাকর্মীরা তাদের ধাওয়া দিয়ে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে গুরুত্বপূর্ণ স্থানে পুলিশ অবস্থান নিয়েছে।
ময়মনসিংহ: ময়মনসিংহে সকালে হরতালের সমর্থনে শহরের জেলা কলেজ রোড ও রামবাবু রোডে অটোরিকশা ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ করে পিকেটাররা। এছাড়া এর আগে দলীয় কার্যালয় থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে ছাত্রদল ও যুবদলের নেতাকর্মীরা। নতুন বাজার মোড়ে পুলিশ বাধা দিলে আবার কার্যালয়ে ফিরে যায় নেতাকর্মীরা।
এছাড়া দেশের অন্যান্য স্থানে হরতালে তেমন কোনো বিশৃঙ্খলতার খবর পাওয়া যায়নি।