মিরপুর যেন আরেক শাহবাগ
সময়নিউজ.টিভি: ২০১৩-০২-২৫
জামায়াতে ইসলামীকে নিষিদ্ধ ও যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবিতে মিরপুর-১০ নম্বর গোলচত্বরে চলছে তরুণ প্রজন্মের সমাবেশ।
সোমবার আন্দোলনের ২১তম দিনে আন্দোরনকারীরা পূর্বঘোষিত এই সমাবেমে জমায়েত হচ্ছেন।
সমাবেশ নির্বিঘ্ন করতে দুপুর থেকেই ১০ নম্বর গোল চক্কর সংলগ্ন রাস্তাগুলো বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। আগাঁরগাও, সনি সিনেমা হল, ১৪ নম্বর এবং পল্লবী থেকে গোল চত্বরমুখী রাস্তায় যান চলাচল করছে না।
মিরপুর এলাকা পরিণত হয়েছে জনসমুদ্রে। বিভিন্ন স্থান থেকে দলে দলে আসে নানা শ্রেনি-পেশার মানুষ।
শনিবার প্রজন্ম চত্বরের বাইরে গণজাগরণ মঞ্চের উদ্যোগে প্রথম সমাবেশ করা হয় রায়েরবাজার বধ্যভূমিতে। রায়েরবাজারের পর প্রজন্ম চত্বরের বাইরে দ্বিতীয় জনসভা হতে যাচ্ছে মিরপুরে। এরপর বৃহস্পতিবার আরেকটি সমাবেশ হবে রাজধানীর মতিঝিলে।
এই সমাবেশ শুরুর আগেই রোববার রাতে আমাদের দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহামুদুর রহমানকে গ্রেপ্তারের দাবি এসেছে জাগরণ মঞ্চ থেকে। তা না হলে সোমবার মিরপুর থেকে কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন এই আন্দোলনের অন্যতম উদ্যোক্তা ইমরান এইচ সরকার।
এদিকে প্রজন্ম চত্বরের মিডিয়া সেলে যুদ্ধারাধীদের ফাঁসি ও জামায়াত-শিবিরের রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবিতে গণসাক্ষর কর্মসূচি অব্যাহত রয়েছে। সেখানে ভিড় করে স্বাক্ষর দিচ্ছেন বিভিন্ন বয়সের মানুষ।
সমাবেশকে কেন্দ্র করে বিপুলসংখ্যক র‌্যাব-পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত জামায়াত নেতা কাদের মোল্লাকে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল গত ৫ ফেব্রুয়ারি যাবজ্জীবন সাজার আদেশ দেন। সেদিন বিকাল থেকেই একদল তরুণ তার ফাঁসির দাবি করে শাহবাগে আন্দোলন করে আসছে।